১৯ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট পূর্বের ঘন্টায়  
Login   Register        
ADS

শিশির থেকে পোস্টার রক্ষায় পলিথিন কেনার হিড়িক


স্টাফ রিপোর্টার, বগুড়া অফিস ॥ পৌরসভা নির্বাচনের সময় এগিয়ে আসার সঙ্গে সঙ্গে বগুড়ায় ভোটযুদ্ধের প্রচার জমজমাট হয়ে উঠছে। ভোটের এই প্রচারে অন্যতম অনুষঙ্গ হয়ে উঠেছে পলিথিন। জেঁকে বসা শীত যেমন প্রার্থীদের প্রচারে বিড়ম্বনা তৈরি করছে, তেমনি শীতের শিশির ভোটের প্রচারের অন্যতম মাধ্যম পোস্টারের স্থায়িত্ব হুমকির মুখে ফেলেছে। আর শিশির থেকে পোস্টার রক্ষায় প্রার্থীদের বাড়তি টাকা গুনতে হচ্ছে।

এ কারণে পলিথিন বিক্রির ধুম পড়েছে। এতে স্বচ্ছ পলিথিনের সঙ্কটও শুরু হয়েছে। দোকানিরা বলছেন, চাহিদার তুলনায় প্রার্থীদের পোস্টারের জন্য প্রয়োজনীয় পলিথিন তারা সরবরাহ করতে পারছেন না। বগুড়ার বাজারে পোস্টারের জন্য প্রতিদিন বিক্রি হচ্ছে প্রায় ৫শ’ কেজি পলিথিন। শহরের অন্যতম পাইকারি বাজার রাজাবাজার। দূর থেকে এই সড়কের দু’পাশে তাকালে মনে হবে একেকটি পলিথিনের দোকান যেন কোন প্রার্থীর নির্বাচনী ক্যাম্প। কারণ প্রতিটি দোকানের সামনে পলিথিনে মোড়ানো বিভন্ন সাইজের পোস্টার ঝুলছে। তবে কাছে গেলেই ভুল ভাঙবে। আসলে পোস্টারের পলিথিন পাওয়া যায় জানান দিতেই দোকানিদের এমন ব্যবস্থা। রাজাবাজার এলাকায় পলিথিন বিক্রি হয় এমন ভারাইটি স্টোর রয়েছে প্রায় ২৫টি। পলিথিন কিনতে আসা এক কাউন্সিলর প্রার্থীর কর্মী রেজাউল জানালেন, শিশিরের জন্য পোস্টার ঝুলিয়ে রাখা যাচ্ছে না। ভিজে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। এজন্য পোস্টার পলিথিনে মুড়িয়ে ঝোলাতে হচ্ছে। প্রথম দফায় ৩০ কেজি পলিথিন কেনার পর এবার আরও ৩০ কেজি কিনছেন। দোকানি সাজ্জাদুল ইসলাম জানালেন, প্রতিদিন গড়ে তারা দেড় থেকে ২শ’ কেজি পলিথিন বিক্রি করছেন। দোকানিদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, প্রতি মেয়র প্রার্থীর পোস্টারের জন্য ১শ’ কেজি এবং কাউন্সিলর প্রার্থীর পোস্টারের জন্য ৩০ থেকে ৮০ কেজি পর্যন্ত পলিথিন কেনা হচ্ছে। প্রতি ১শ’ পোস্টারের জন্য এক কেজি পলিথিন লাগছে। বগুড়ার ৩টি কারখানা ছাড়াও প্রতিদিন ঢাকা থেকে পলিথিন আসছে। সরবরাহ কম থাকলে কেজিপ্রতি ২০-৩০ টাকা পর্যন্ত দাম বেড়ে যায়। দোকানিরা জানালেন, চলতি সপ্তাহ পর্যন্ত এই চাহিদা থাকবে। এমনিতে স্বচ্ছ পলিথিনের চাহিদা থাকে না। ভোটের জন্যই এখন পলিথিন বিক্রিতে তাদের ব্যস্ত সময় কাটছে। শুধু বগুড়ার প্রার্থীরা নয়, আশপাশের জেলাগুলো থেকেও প্রার্থীর লোকজন বগুড়ায় আসছে পোস্টার রক্ষার পলিথিন কিনতে।