২২ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৬ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

ইসি একতরফা আচরণ করছে ॥ আওয়ামী লীগ


বিশেষ প্রতিনিধি ॥ এবার নির্বাচন কমিশনের বিরুদ্ধে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগের কামান দাগল শাসক দল আওয়ামী লীগ। দলটির অভিযোগ, নির্বাচন কমিশন একতরফা আচরণ করছে। ক্ষমতার বাইরে থাকায় বিএনপির প্রতি সহানুভূতি নিয়ে সরকারী দলের প্রতি খ—গহস্ত চালানো হচ্ছে। নির্বাচন কমিশনের কাছে এমন আচরণ প্রত্যাশিত নয়। সকলের প্রতি সমান আচরণ করার জন্য নির্বাচন কমিশনের প্রতি অনুরোধও জানিয়েছে ক্ষমতাসীন দলটি।

মঙ্গলবার ধানম-ির আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের পক্ষ থেকে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে দলটির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ বলেন, নির্বাচন কমিশন অনেকটাই একতরফা আচরণ করছে। রাজনৈতিক দল হিসেবে বিএনপি ক্ষমতার বাইরে রয়েছে। এ কারণে তাদের প্রতি সহানুভূতি নিয়ে সরকারী দলের প্রতি খ—গহস্ত চালানোর কোন যৌক্তিকতা আছে বলে আমরা মনে করি না।

তিনি বলেন, আমরা গত কয়েকদিনে দেখেছি, বিভিন্ন জায়গায় নির্বাচনী আচরণবিধির অভিযোগে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ও নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশন শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিয়েছে, যেটা অনেকটাই একতরফা হয়েছে। বিএনপি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে অনেক অভিযোগ থাকা সত্ত্বেও তাদের বিরুদ্ধে এখন পর্যন্ত কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। আমরা নির্বাচন কমিশনকে অনুরোধ করব, যাতে তারা সকলের প্রতি সমান আচরণ করে।

খ্রীস্টান সম্প্রদায়ের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠানে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার প্রদত্ত বক্তব্যের জবাব দেন হানিফ। ‘আন্দোলন নয়, নির্বাচনে সরকারকে ঘায়েল করতে হবে’- খালেদা জিয়ার এমন বক্তব্য প্রসঙ্গে হানিফ বলেন, আন্দোলন করে সরকারের বিরুদ্ধে কিছু করার ক্ষমতা তাদের নেই। বহু আন্দোলন করে ব্যর্থ হয়ে সান্ত¡নার জন্য নির্বাচনের মাধ্যমে কিছু অর্জন করা যায় কি-না, বিএনপি নেত্রী সেটিই খোঁজার চেষ্টা করছেন। কিন্তু আমার বিশ্বাস, জনগণ যেভাবে তাদের আন্দোলন ব্যর্থ করেছে, তেমনিভাবে নির্বাচনেও জনগণ বিএনপির পরাজয় সুনিশ্চিত করে তাদের সকল ষড়যন্ত্র ব্যর্থ করে দেবে।

তিনি বলেন, বিএনপিকে ভোট দেয়ার কোন কারণ আছে বলে জনগণ মনে করে না। পেট্রোলবোমা ও আগুনে পুড়িয়ে মানুষ হত্যা মানুষ আর দেখতে চায় না। তিনি বলেন, বিএনপির নেতারা অহেতুক আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে বিভিন্ন মিথ্যাচার করে বিভ্রান্তি ছড়ানোর চেষ্টা করছে। অনেক ক্ষেত্রেই তাদের (বিএনপি নেতাদের) বক্তব্য এবং আচরণ নির্বাচনী আচরণবিধি ভঙ্গের শামিল হচ্ছে। নির্বাচন কমিশনের প্রতি আমাদের অনুরোধ থাকবে, নির্বাচনের লেভেল প্লেইং ফিল্ড বলতে যেটা বোঝায়, সেটার জন্য নির্বাচন কমিশনকে আরও কঠোর পদক্ষেপ নিতে হবে।

আওয়ামী লীগের এ নেতা বলেন, প্রধানমন্ত্রী সম্পর্কে অশালীন ভাষায় খালেদা জিয়া কথা বলেছেন। কোন সভ্য দেশে এ ধরনের ভাষা প্রয়োগ কেবলমাত্র খালেদা জিয়ার মুখেই মানায়। বাংলাদেশের মানুষ মনে করে, খালেদা জিয়ার বক্তব্যকে মানসিক ভারসাম্যহীন উন্মাদের প্রমাদ ছাড়া আর কিছুই নয়। দ্রুত তার চিকিৎসা করে সুস্থতা নিশ্চিত করা দরকার। আমরাও দোয়া করব উনার সুস্থতার জন্য। কারণ একটি দলকে কেন্দ্রীয় পর্যায় থেকে নেতৃত্ব দিতে মানসিক সুস্থতা প্রয়োজন।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- কেন্দ্রীয় নেতা ডাঃ দীপু মনি এমপি, আহমদ হোসেন, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম এমপি, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এমপি, এ্যাডভোকেট আবদুল মান্নান খান, ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, ড. হাছান মাহমুদ এমপি, হাবিবুর রহমান সিরাজ, ডাঃ বদিউজ্জামান ভূঁইয়া ডাবলু প্রমুখ।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: