১৮ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৭ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

রাজশাহীতে প্রচারে বাধা ও হামলার অভিযোগ


মামুন-অর-রশিদ, রাজশাহী ॥ ভোটের দিন যতই ঘনিয়ে আসছে নির্বাচনী প্রচার ততই উত্তাল হচ্ছে মাঠ। সেই সঙ্গে বাড়ছে স্নায়ুচাপ। জমজমাট প্রচারের সঙ্গে সঙ্গে উত্তেজনাও বাড়ছে। বিভিন্ন পৌরসভায় সংঘর্ষের ঘটনাও ঘটতে শুরু করেছে। রাজশাহীর ১৩ পৌর এলাকার সবখানেই আওয়ামী লীগ প্রার্থীর কর্মী সমর্থকদের সঙ্গে বিএনপি সমর্থিতদের সৃষ্টি হচ্ছে উত্তেজনা। ভোটের দিন ঘনিয়ে আসার সঙ্গে সঙ্গে প্রচারের মাত্রা যেমন বৃদ্ধি পাচ্ছে তেমনি বাড়ছে উত্তেজনাকর পরিস্থিতির।

এরই মধ্যে বাঘা উপজেলার আড়ানীতে নির্বাচনী প্রচারের সময় বিএনপির প্রার্থী তোজাম্মেল হকের কর্মীদের ওপর পেছন থেকে হামলা চালিয়েছে দুর্বৃত্তরা। বিএনপি মনোনীত প্রার্থী তোজাম্মেলের অভিযোগ একই পৌরসভার আওয়ামী লীগ প্রার্থী মোক্তার হোসেনের কর্মী-সমর্থকরা এ হামলা চলিয়েছে। এ ঘটনায় ৫ জন আহত হয়েছে। শনিবার রাতে পৌর এলাকার চক সিংড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

এদিকে কাটাখালি পৌরসভায় বিএনপির প্রার্থী মাসুদ রানার প্রধান নির্বাচন সমন্বয়কারী মনিরুজ্জামান দুলালকে আটক করলে রবিবার উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। তবে দুপুরের মধ্যে মতিহার থানা পুলিশ তাকে ছেড়ে দেয়। প্রার্থী মাসুদ রানা জানান, শনিবার রাতে দুলালকে কাটাখালির নিজ বাসা থেকে আটক করা হয়। দুলাল কাটাখালি পৌর বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক। মাসুদের অভিযোগ তার প্রধান সমন্বয়কারী আটকের ফলে নির্বাচনী প্রচারে বিঘœ সৃষ্টি হয়েছে।

একই পৌরসভায় ওয়ার্কার্স পার্টির প্রার্থী মাহাবুবুর রহমান ডালিম অভিযোগ করেন তার বিভিন্ন নির্বাচনী অফিসে গিয়ে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থীর কর্মীরা ভয়ভীতি দেখাচ্ছে। তারা ভোট নিয়ে শঙ্কায় রয়েছেন বলে জানান।

তাহেরপুর পৌর এলাকায় ৮ ও ৯ নম্বর ওয়ার্ডে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থীর পক্ষে প্রচারে বাধা দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। এখানকার বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী আনম শামসুর রহমান জানান, ওই এলাকায় তাদের পোস্টারও টানাতে দেয়া হয়নি। তার সমর্থিত লোকজনকে ওই এলাকায় প্রবেশ করতে প্রকাশ্যে বাধা দেয়া হচ্ছে। সুষ্ঠু নির্বাচন নিয়ে তিনি সংশয় প্রকাশ করেছেন। জেলার অন্যান্য পৌরসভাতেও প্রার্থীদের মধ্যে ¯œায়ুচাপ ও উত্তেজনাকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হচ্ছে। জেলা পুলিশের একজন সিনিয়র কর্মকর্তা জানান, নির্বাচনী এলাকায় পুলিশকে সতর্কাবস্থায় থাকার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। বিচ্ছিন্ন কোন ঘটনা ঘটলেও রাজশাহীর ভোটের মাঠে এখনও কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। পুলিশ সার্বিক আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সচেষ্ট রয়েছে বলে জানান তিনি।