২৫ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

মুক্তি পেল না নির্ভয়ার ধর্ষক


অনলাইন ডেস্ক ॥ শেষ পর্যন্ত মুক্তি মেলেনি নির্ভয়ার ধর্ষকের। আজ রোববার সংশোধনাগার থেকে তার ছাড়া পাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু শনিবার গভীর রাতে সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতির বাড়িতে দিল্লী মহিলা কমিশনের চেয়ারপার্সন স্বাতী মালিওয়াল একটি আবেদন পেশ করেন। তাতে নির্ভয়ার নাবালক ধর্ষককে কাল যেন কোন ভাবে ছেড়ে দেয়া না হয় তার দাবি করা হয়।

প্রধান বিচারপতির বাড়িতে স্বাতী দু’ঘণ্টার বেশি অবস্থান করেন। প্রধান বিচারপতি স্থগিতাদেশের বিষয়ে কিছু না বললেও জানিয়েছেন, সোমবার সকালে এ বিষয়ে শুনানি হবে।

শনিবার ওই নাবালক অপরাধীর সংশোধনাগারে থাকার মেয়াদ বাড়ানোর আবেদন খারিজ করে দেয় দিল্লীর হাইকোর্ট। ফলে রোববার বিকেল নাগাদ তার মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তা আপাতত আটকে গেল। গত ৩ বছর ধরে এই নাবালক ধর্ষক সংশোধনাগারে রয়েছে। তার মুক্তি নিয়ে পুরো ভারতজুড়ে একটা চাপা ক্ষোভ তৈরি হয়েছিল। অনেকে কর্তৃপক্ষের সমালোচনায় মুখর হয়ে উঠেছিলেন।

উল্লেখ্য, ২০১২ সালের চলন্ত বাসে ৫ জনের যে দলটি ২৩ বছর বয়সী নির্ভয়াকে ধর্ষণ করে তাদের মধ্যে সবচেয়ে ছোট ছিল এই নাবালক ধর্ষক। তাকে ভারতের কিশোর অপরাধ আইনে সংশোধনের উদ্দেশ্যে তিন বছরের জন্য সংশোধনাগারে পাঠানো হয়। ধর্ষক দলের অন্য চারজনকে ২০১৪ সালে মৃত্যুদ- দেয়া হয়। দ-প্রাপ্ত এসব ধর্ষক সুপ্রিম কোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে আপীল করেছে।

চলন্ত বাসে ধর্ষণের শিকার হওয়া তরুণী নির্ভয়া ২ সপ্তাহ মৃত্যুর সাথে লড়ে শেষ পর্যন্ত পর মারা যায়। ভারতীয় আইন অনুযায়ী ধর্ষণের শিকার হওয়া কারো নাম প্রকাশের নিয়ম নেই। তা মেনে নির্ভয়ার নামও প্রকাশ করা হয়নি। তবে সম্প্রতি তার মা জানিয়েছেন, মেয়েটির নাম ছিল জ্যোতি সিং।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: