২৩ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

নব্য পাকিস্তান বানানোর চক্রান্ত ঐক্যবদ্ধভাবে প্রতিহত করতে হবে ॥ আমু


স্টাফ রিপোর্টার ॥ শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বলেছেন, পেট্রোলবোমা নিক্ষেপ করে মানুষ হত্যাকারীদের বিচার হওয়া উচিত। আন্দোলনের ডাক দিয়ে বোমা মেরে যারা মানুষ হত্যা করে, তারা কখনও জনগণের বন্ধু হতে পারে না। একাত্তরে গণহত্যাকারীদের মতো তাদেরও বাংলার মাটিতে বিচার হওয়া দরকার।

শনিবার টিএসসিতে বাংলাদেশ-ভারত মৈত্রী সমিতির মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে রক্তদান কর্মসূচীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি আরও বলেন, পঁচাত্তরের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর যারা ক্ষমতায় ছিল তারা দেশের অগ্রগতি চায়নি। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর তারা একুশ বছর ক্ষমতায় ছিল, কিন্তু দেশের সমুদ্র ও স্থল সীমানা নির্ধারণে কোন উদ্যোগ নেয়নি।

আমু বলেন, দেশকে নব্য পাকিস্তান বানানোর চক্রান্ত অব্যাহত রয়েছে, মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের সকল শক্তি ঐক্যবদ্ধ হয়ে এ চক্রান্ত প্রতিহত করতে হবে। পঁচাত্তরের ১৫ আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যার মাধ্যমে দেশের উন্নয়নের চাকা পেছনের দিকে ঘুরিয়ে দেয়া হয়েছিল। এই অপশক্তি এখনও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রাণনাশের অপচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

শিল্পমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে ভারত সরকার শুধু এক কোটি শরণার্থীকে আশ্রয় দেয়নি, পশ্চিমা হানাদার বাহিনীকে বিতাড়িত করতে অস্ত্র ও প্রশিক্ষণসহ সর্বাত্মক সহায়তা দিয়েছে। ভারতের জনগণ শরণার্থী বাঙালীকে নিজেদের অন্ন ভাগ করে খাইয়েছে। ভারতের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী দুইবার বিশ্বভ্রমণ করে বাংলাদেশের স্বাধীনতার পক্ষে জনমত সৃষ্টির পাশাপাশি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবন রক্ষায় কার্যকর অবদান রেখেছিলেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের জনগণের চরম দুঃসময়ে ভারত সরকার ও জনগণ যে বন্ধুত্বের পরিচয় দিয়েছে, তা ইতিহাসের একটি বিরল ঘটনা। বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে বিদ্যমান মৈত্রীর বন্ধন রক্ত ও আত্মাহুতির মধ্য দিয়ে সূচিত হয়েছে। একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে ৩০ লাখ বাঙালী শহীদের পাশাপাশি ১১ হাজার ভারতীয় সৈন্য রক্ত ও জীবন উৎসর্গ করেছিল। মুক্তিযুদ্ধে ভারত সরকারের অকুণ্ঠ সমর্থন এবং ভারতীয় সেনাসদস্যদের আত্মত্যাগ বাংলাদেশের জনগণ চিরকাল গভীর কৃতজ্ঞতার সঙ্গে স্মরণ রাখবে।

বাংলাদেশ-ভারত মৈত্রী সমিতির সভাপতি এমিরেট অধ্যাপক ড. এ কে আজাদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে সভায় আরও বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির মহাসচিব ও সাবেক সচিব বিএমএম মোজহারুল হক, ভারতীয় হাইকমিশনের প্রথম সচিব রাজেশ উইকি, মৈত্রী সমিতির সাধারণ সম্পাদক সুবীর কুশারী, বীর মুক্তিযোদ্ধা আহসান উল্লাহ মনি প্রমুখ।

পাকিস্তানের সঙ্গে একাত্তরেই সম্পর্ক ছিন্ন হয়েছে- হানিফ ॥ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ বলেছেন, পাকিস্তানের সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক একাত্তরেই ছিন্ন হয়েছে। বর্তমানে পাকিস্তান ব্যর্থ রাষ্ট্র। তাই পাকিস্তানের সঙ্গে সম্পর্ক থাকলেই কী আর না থাকলেই বা কী। তাদের সঙ্গে রাষ্ট্রীয়ভাবে সম্পর্ক থাকবে কিনা সেটা রাষ্ট্র সিদ্ধান্ত নেবে।

শনিবার রাজধানীর উদয়ন স্কুলে বঙ্গবন্ধু মেধাবৃত্তি ফাউন্ডেশনের লিখিত পরীক্ষা পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি আরও বলেন, আমি মনে করি বাংলাদেশের জনগণ একাত্তরেই পাকিস্তানের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করেছে। বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন বৃত্তি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ২০০৫ সাল থেকে মেধাবী শিক্ষার্থীদের এ বৃত্তি প্রদান করা হচ্ছে। এর মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের মাঝে দেশ ও জাতির সঠিক ইতিহাস তুলে ধরা হয়।

চট্টগ্রামে নৌ-বাহিনীর মসজিদে হামলার ঘটনা বিএনপি-জামায়াতের নাশকতার অংশ দাবি করে বলেন, যেদিন থেকে যুদ্ধাপরাধীর বিচার শুরু হয়েছে সেদিন থেকে বিভিন্ন সন্ত্রাসী কর্মকা-ের মাধ্যমে বিএনপি জামায়াত দেশকে অস্থিতিশীল করার ষড়যন্ত্র করছে। সন্ত্রাসী কর্মকা-ে ব্যর্থ হয়ে তারা (বিএনপি-জামায়াত) এখন চোরাগোপ্তা হামলা শুরু করেছে। এমনকি তারা বিদেশী নাগরিকদের হত্যা করেছে। এ হামলা তাদেরই নাশকতার অংশ।