২০ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

ছুটির দিনেও তীব্র যানজটে নাকাল নগরবাসী


স্টাফ রিপোর্টার ॥ আগারগাঁও থেকে ফার্মগেট হয়ে মতিঝিল আসতে সময় লেগেছে প্রায় দেড় ঘণ্টা। মতিঝিল থেকে মিরপুর যেতে সময় লেগেছে তারও বেশি। মিরপুর থেকে বিজয় সরণি হয়ে বনানী বা ক্যান্টনমেন্ট প্রবেশের ‘বাঁ’ দিকের লেনটি হঠাৎ করে বন্ধ করে দেয়া হয়। রাস্তার ওপর রাখা হয় ‘ডাইভারশন চলিতেছে’ লেখা সাইনবোর্ড। তবে ফার্মগেট থেকে মহাখালী সড়কে যানবাহন চলাচলে কোন প্রতিবন্ধকতা ছিল না। শনিবার ছুটির দিনে রাজধানীতে এমন চিত্র লক্ষ্য করা গেছে। ভিআইপি সড়কজুড়ে হঠাৎ করেই তীব্র যানজট দেখা দেয়। বাড়ে ভোগান্তি।

ঢাকা মহানগর ট্রাফিক পুলিশের কর্তাব্যক্তিরা বলছেন, ঢাকা ক্লাবের নির্বাচনের কারণে শিশুপার্ক থেকে শাহবাগ পর্যন্ত গাড়ির বাড়তি চাপ পড়ে। রাস্তার ওপর গাড়ি রাখার কারণে যানবাহন চলাচলে প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি হয়। সঙ্কট সমাধানে প্রয়োজনীয়সংখ্যক ট্রাফিক পুলিশ মোতায়েন করা হয় এ এলাকায়। এছাড়াও ১৬ ডিসেম্বরের ছুটি শেষে কর্মস্থলে যোগ দিতে ঢাকামুখী গাড়ি ও মানুষের চাপ অন্যদিনের তুলনায় বেশি ছিল। রাষ্ট্রপতি একটি ও প্রধানমন্ত্রী দুটি অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছেন শনিবার। সব মিলিয়ে যানজট সৃষ্টির কথা বলছেন সংশ্লিষ্ট কর্তাব্যক্তিরা।

ধানম-ি থেকে সিটি বাসে মতিঝিলের উদ্দেশে রওনা দিয়ে অনেকটা বিপাকে পড়েছিলেন রাসেল মিয়া। তিনি জানান, সাইন্সল্যাব থেকে শাহবাগের দিকে গাড়ি চলছিলই না। এইটুকু রাস্তা পার হতে সময় লেগেছে অন্তত এক ঘণ্টার বেশি। শাহবাগ থেকে মৎস্য ভবন পর্যন্ত যেতে সময় লেগেছে প্রায় ৪০ মিনিট। তিনি জানান, ঢাকা ক্লাবের নির্বাচনকে কেন্দ্র করে শাহবাগ এলাকায় বিপুলসংখ্যক প্রাইভেট গাড়ির চাপ পড়ে। অনেকে রাস্তার ওপর গাড়ি রেখে ভেতরে চলে যান। চাপা রাস্তা হওয়ার কারণে সমস্যার সৃষ্টি হয়। মৎস্য ভবন এলাকায় কর্তব্যরত ট্রাফিক কনস্টেবলরা বলেন, এই রাস্তায় যানজটের সৃষ্টি হওয়ায় অনেক গাড়ি আমরা রমনার রাস্তা দিয়ে চলাচলের পরামর্শ দিচ্ছি। ঢাকা ক্লাবের নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ফার্মগেট, কাওরান বাজার, সাইন্সল্যাব, ধানম-িসহ বিভিন্ন এলাকায় ধীর গতিতে গাড়ি চলছে। যার প্রভাব হয়ত অন্যান্য ভিআইপি সড়কেও পড়েছে।

মিরপুর থেকে বিজয় সরণি হয়ে গুলশান যাচ্ছিলেন আরিফ মিয়া। তিনি জানান, বিজয় সরণি মোড় থেকে মহাখালীর দিকে যেতে হঠাৎ করেই রাস্তা বন্ধ হয়। কেউ কোন কারণ জানে না। তাই সোজা রাস্তা দিয়ে বিজয় সরণি ওভারপাস দিয়ে যেতে হয়। এজন্য আটকে থাকতে হয় এক ঘণ্টারও বেশি সময়। ভিভিআইপি সড়কে বাড়তি গাড়ির চাপ থাকায় এ রাস্তার গাড়ি ছাড়তে বিলম্ব হচ্ছিল বলে জানান তিনি। এছাড়াও গুলশান এক ও দুই নম্বরের রাস্তা, বনানী, হাতিরঝিল, মৌচাক, মালিবাগ, তেজগাঁও, মহাখালী, পল্টন, কাকরাইলসহ বিভিন্ন রুটে যানবাহন চলাচলে ধীরগতি লক্ষ্য করা গেছে।

ট্রাফিক বিভাগের সংশ্লিষ্টরা বলছেন, আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে শনিবার সকালে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উচ্চপর্যায়ের কর্তাব্যক্তিদের সঙ্গে নির্বাচন কমিশনের কর্মকর্তারা বৈঠক করেন। নিউ ইস্কাটনের বিয়াম মিলনায়তনে সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত এ বৈঠকটি চলে। ফলে পুরো এলাকাজুড়ে ব্যাপক নিরাপত্তাবলয় গড়ে তোলা হয়। কর্মকর্তাদের আসা-যাওয়ার সময় যানবাহন ও পথচারী চলাচলে কড়াকড়ি আরোপ করা হয়। জায়গা স্বল্পতার কারণে কিছু গাড়ি রাস্তা পর্যন্ত চলে আসে। এতেও কিছুটা সমস্যার সৃষ্টি হয়।

শনিবার সকালে রাজধানীর মিরপুর সেনানিবাসের এনডিসি অডিটরিয়ামে ন্যাশনাল ডিফেন্স কোর্স (এনডিসি)-২০১৫ এবং আর্মড ফোর্সেস ওয়ার (এএফডব্লিউ) কোর্স ২০১৫-এর গ্র্যাজুয়েশন সনদ বিতরণ অনুষ্ঠানে যোগ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বিকেলেও অপর আরেকটি অনুষ্ঠানে যোগ দেন তিনি। এ কারণেও ভিআইপি সড়কে যানবাহন চলাচল নিয়ন্ত্রণ করায় বেলা শেষে রাস্তায় গাড়ির চাপ বাড়ে।

যানজটের কারণ জানতে চাইলে তেজগাঁও জোনের ট্রাফিক বিভাগের সহকারী পুলিশ কমিশনার রাজিব দাশ জনকণ্ঠ’কে বলেন, ঢাকা ক্লাবের নির্বাচনের কারণে যানবাহন চলাচলে কিছুটা সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে সেখানে বাড়তি ট্রাফিক পুলিশ দেয়া হয়েছে। তাছাড়া শনিবার বিকেলে রাস্তায় গাড়ির চাপ কিছুটা বেশি থাকে। সেই সঙ্গে রবিবার কর্মস্থলে যোগ দিতে ঢাকামুখী মানুষের ভিড় তো আছেই। সব মিলিয়ে কয়েকটি রাস্তায় কিছুটা যানজট দেখা দেয়।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: