১৯ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

বিপিএলের পর পিএসএল নিয়েও হতাশা মিসবাহদের


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগের প্রথম আসরে দাপট ছিল পাকিস্তানী ক্রিকেটারদের। দ্বিতীয় আসরে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) ও পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) মধ্যে সমস্যা থাকায় পাক ক্রিকেটাররা খেলেননি। কিন্তু প্রথম আসরে অধিকাংশ পাকিস্তানী তারকা বিপিএলে অংশ নিয়ে পরবর্তীতে জাতীয় দলে ডাক পেয়েছেন এবং অনেকে নতুন করে দলে ফিরেছিলেন। কিন্তু এবার বিপিএল পাক ক্রিকেটারদের জন্য তেমন সুফল বয়ে আনেনি। অনেক পাক ক্রিকেটারকে শুধু ড্রেসিংরুমেই বসে কাটাতে হয়েছে। হতাশার বিপিএল কেটেছে পাক ক্রিকেটারদের। এবারই প্রথম পিসিবি ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক টি২০ আসর পাকিস্তান সুপার লীগ (পিএসএল) আয়োজন করতে যাচ্ছে। ইতোমধ্যেই অংশগ্রহণকারী ৫ দলের জন্য আইকন ঘোষণা করেছে। এর মধ্যে তিনজনই বিদেশী আর পাকিস্তানী ক্রিকেটারদের মধ্যে আইকন হয়েছেন শুধু শহীদ আফ্রিদি ও শোয়েব মালিক।

বিপিএলে এবার প্রতি দলেই একাধিক পাক ক্রিকেটার ছিলেন। কিন্তু অনেক পাক ক্রিকেটারই একাদশে নিয়মিত খেলার সুযোগ পাননি। ওয়ানডে ও টি২০ থেকে অবসর নেয়া টেস্ট অধিনায়ক মিসবাহ-উল-হক ব্যাট হাতে প্রথম ম্যাচেই জিতিয়েছিলেন রংপুর রাইডার্সকে। কিন্তু ৭ ম্যাচেই খেলা হয়নি তার। এ বিষয়ে আক্ষেপ করে মিসবাহ পরবর্তীতে বলেছেন, ‘এ বিষয়ে কিছু বলার নেই। দলের মালিক ও কোচরা নিশ্চয় জানতেন কোনটা দরকার। কিন্তু এতটা সময় বেঞ্চে বসে থাকাও সহজ নয়।’ এছাড়াও উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান কামরান আকমল, পেসার ওয়াহাব রিয়াজ ও সাঈদ আজমলকে বসেই থাকতে হয়েছে। কামরানও এজন্য নিজের হতাশা ঢাকতে পারেননি। তিনি বলেছেন, ‘আমি বলেছিলাম ওপেন করতে চাই। কিন্তু দুই ম্যাচ পর সুযোগই পেলাম না। শুধু টাকার জন্য এখানে আসিনি। আমি চেয়েছিলাম বিপিএলের মাধ্যমে নির্বাচকদের মনে করিয়ে দিতে যে আমি ভাল করছি।’

অনেক পাক ক্রিকেটারদের জন্য হতাশা শেষ হচ্ছে না নিজেদের টুর্নামেন্টেও। প্রথম পিএসএলের ৫ দলের যে আইকন ঘোষণা হয়েছে তার মধ্যে তিনজনই বিদেশী। আফ্রিদি ও শোয়েব শুধু পাকিস্তানী, বাকি তিন আইকন হচ্ছেনÑ কেভিন পিটারসেন, ক্রিস গেইল ও শেন ওয়াটসন। সে কারণে দারুণ হতাশ পাকিস্তানের দুই অভিজ্ঞ ক্রিকেটার মিসবাহ ও ইউনুস খান। দু’জনই ওয়ানডে ও টি২০ থেকে অবসর নিয়েছেন। তবে টেস্টের অপরিহার্য এ দুই ক্রিকেটার এখন দাবি করেছেন পিএসএলে কোন দলের অধিনায়ক না করা হলে খেলবেনই না। ইউনুস ২০০৯ সালের টি২০ বিশ্বকাপ জিতিয়েছেন পাকিস্তানকে নেতৃত্ব দিয়ে। মিসবাহও দীর্ঘদিন টি২০ দলকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। কিন্তু পিএসএলে তাদের আইকন করা হয়নি। এবার নেতৃত্বও না পেলে খেলবেন না বলে ঘোষণা দিয়েছেন তারা। এ বিষয়ে পিসিবির এক বিশ্বস্ত সূত্র জানিয়েছে, ‘তারা খুবই অসন্তুষ্ট এবং জানিয়েছেন পিএসএলের নেতৃত্বের পর্যায়ে না থাকতে পারলে খেলবেন না।’