১৭ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

লোকসানের বোঝা নিয়ে ঠাকুরগাঁও চিনিকলের মাড়াই শুরু


নিজস্ব সংবাদদাতা, ঠাকুরগাঁও ॥ তিন মৌসুমের সাড়ে ১২ হাজার মেট্রিক টন অবিক্রিত চিনি আর দেড়শ’ কোটি টাকা লোকসানের বোঝা মাথায় নিয়ে চালু করা হলো ঠাকুরগাঁও সুগার মিলের আখ মাড়াই কার্যক্রম।

শুক্রবার দুপুরে মিলের ২০১৫-১৬ মাড়াই মৌসুমের একসাথে আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন ঠাকুরগাঁও-১ আসনের সংসদ সদস্য রমেশ চন্দ্র সেন, ঠাকুরগাঁও-২ আসনের সংসদ সদস্য দবিরুল ইসলাম এমপি, ঠাকুরগাঁও-৩ আসনের সংসদ সদস্য ইয়াছিন আলী ও সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য সেলিনা জাহান লিটা, জেলা পরিষদ প্রশাসক সাদেক কুরাইশী, বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প করপোরেশনের চেয়ারম্যান একেএম দেলোয়ার হোসেন, মিলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী এনায়েত হোসেন। অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু ঘণকুয়াশা ও হেলিকাপ্টারের যান্ত্রিকত্র“টির কারণে উপস্থিত হতে পারেননি।

এ বছর ৫৬ দিন মিলটি চালু রেখে ৭৫ হাজার মেট্রিক টন আখ মাড়াই করে পাঁচ হাজার ২৫০ মেট্রিক টন টিনি উৎপাদন করবে বলে জানায় মিলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী এনায়েত হোসেন।

দীর্ঘদিনের পুরানো এ মিলটি বেশি সময় চালু রেখে লোকসান কমাতে মিল কর্তৃপক্ষ বহুমুখী কর্ম প্রস্তাবনা দিয়েছে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে। প্রস্তাবনা প্রকল্প চালু হলে আরো বেশি চিনি উৎপাদনের পাশাপাশি এখান থেকে বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রিডে যোগ হবে বলে জানান মিলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী এনায়েত হোসেন।

মিলটি সংস্কার করে আখ সংকট রোধে সুগারবিটে উৎপাদন হবে চিনি। আর বায়োগ্যাস প্লান্টের মাধ্যমে বিদ্যুৎ উৎপাদন, বায়োফার্টিলাইজার প্লান্টসহ বহুমুখী প্রকল্প মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে বাড়বে চিনি উৎপাদন ক্ষমতা, ফলে লোকসান কমে আসবে বলে জানান মিলের ব্যাস্থাপনা পরিচালক।

দেশের চিনিকলগুলোর এ অবস্থা থেকে উত্তরণে দেশি চিনি উৎপাদন বৃদ্ধির পাশাপাশি বিপণনের উপর গুরুত্বারোপ করে ভারী শিল্প রক্ষায় এগিয়ে আসবে সরকার এমন প্রত্যাশা সবার।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: