১৬ ডিসেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

যৌতুক না পেয়ে কেরোসিন ঢেলে গৃহবধূর শরীরে আগুন


নিজস্ব সংবাদদাতা, কুমিল্লা ১৭ ডিসেম্বর ॥ কুমিল্লায় যৌতুক না পেয়ে সুমি আক্তার নামে এক গৃহবধূকে নির্যাতনের পর শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুনে পুড়িয়ে হত্যা চেষ্টা করেছে স্বামী ও শ্বশুর বাড়ির লোকজন। আশঙ্কাজনক অবস্থায় বুধবার গভীর রাতে আহত গৃহবধূকে ঢামেকের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে। মুরাদনগর উপজেলার বাঙ্গরা ইউনিয়নের শিমানারপাড় গ্রামে এ নৃশংস ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার পর সুমির স্বামীসহ শ্বশুর পক্ষের লোকজন বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে গেছে। জানা যায়, মুরাদনগর উপজেলার শিমানারপাড় গ্রামের নূরু মিয়ার পুত্র আল-আমিনের সঙ্গে জাঙ্গাল গ্রামের রফিকুল ইসলামের মেয়ে সুমি আক্তারের (২২) বিয়ের পর থেকে যৌতুকের জন্য কয়েকবার তার স্বামী ও শ্বশুর বাড়ির লোকজন নির্যাতন চালায়। সুমির বাবা রফিকুল ইসলাম জানান, ‘তার জামাতার চাহিদা মতো যৌতুক দিতে না পারায় স্বামী আল-আমিন, শ্বশুর নূরু মিয়া, শাশুড়ি আয়েশা বেগম, ননদ মরিয়ম ও দেবর আশিক আমার মেয়েকে হত্যার উদ্দেশে অমানুসিক নির্যাতন করে এবং পরে ঘরে আটকে রেখে বুধবার সন্ধ্যায় গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়।’ তার স্বজনরা বুধবার রাতে এ খবর পেয়ে আগুনে ঝলসে যাওয়া সুমিকে উদ্ধার করে প্রথমে মুরাদনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং পরে গভীর রাতে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢামেকের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসকদের বরাত দিয়ে সুমির বাবা জানান, তার শরীরের প্রায় ৬৫ ভাগ পুড়ে গেছে এবং বিলম্বে হাসপাতালে নেয়ার কারণে শারীরিক অবস্থার দ্রুত অবনতি ঘটছে।