মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
১৯ আগস্ট ২০১৭, ৪ ভাদ্র ১৪২৪, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

বায়ার্ন ছাড়ছেন গুয়ার্দিওলা, পেতে এগিয়ে ম্যাঞ্চেস্টার সিটি

প্রকাশিত : ১৭ ডিসেম্বর ২০১৫, ১১:৩৭ এ. এম.
বায়ার্ন ছাড়ছেন গুয়ার্দিওলা, পেতে এগিয়ে ম্যাঞ্চেস্টার সিটি

অনলাইন ডেস্ক॥ ম্যাঞ্চেস্টার সিটি। চেলসি। ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড।

প্রতি মরসুমেই চারটে ইউরোপিয়ান ট্রফির জন্য লড়াই করে ইপিএলের এই তিন মেগা ক্লাব। এ বার তালিকায় যোগ হল আর এক নতুন ট্রফি তোলার লড়াই।

যার নাম পেপ গুয়ার্দিওলা!

ব্রিটিশ প্রচারমাধ্যমের খবর, বায়ার্ন মিউনিখকে ব্যক্তিগত ভাবে গুয়ার্দিওলা জানিয়ে দিয়েছেন, এটাই কোচ হিসাবে বিখ্যাত জার্মান ক্লাবে তাঁর শেষ মরসুম। আর তাতেই তিন ব্রিটিশ ক্লাব নড়েচড়ে বসেছে। যাদের মধ্যে ফিনিশিং লাইনে পৌঁছনোর ব্যাপারে আপাতত এগিয়ে ম্যাঞ্চেস্টার সিটি। ম্যানুয়েল পেলিগ্রিনি যতই ম্যান সিটিতে ম্যানেজার হিসেবে ভাল করুন না কেন মরসুম শেষে তাঁকে ছেড়ে দেওয়া হবে বলেই খবর। পাশাপাশি ক্লাবের আর্থিক অবস্থা স্বচ্ছন্দ থাকায় বড় অর্থের চুক্তি দেওয়া হতে পারে গুয়ার্দিওলাকে। সবচেয়ে বড় কথা, বিখ্যাত স্প্যানিশ কোচকে নিজেদের শিবিরে সই করানোর জন্য লিও মেসি-ফাঁদ পাততেও তৈরি আছেন ম্যান সিটি কর্তারা। ইউরোপিয়ান ফুটবলমহলের ধারণা, আর্জেন্তিনা-রাজপুত্রকে সই করাতে অবিশ্বাস্য বিশাল অর্থের চুক্তি দিতে পারে ম্যান সিটি। যাতে বার্সার সোনালি সময়ের স্বপ্নের জুটি পেপ-লিও ম্যান সিটিকে প্রবল শক্তিশালী করে। বায়ার্নের প্রাক্তন কোচ অটমার হিৎজফিল্ড বলেছেন, ‘‘আমার মনে হয় মরসুম শেষে ম্যাঞ্চেস্টার সিটিতে যাবে পেপ, কারণ ওদের প্রচুর অর্থ আছে।’’

তবে ম্যাঞ্চেস্টার ডার্বির মতো গুয়ার্দিওলা-দৌড়ের ফিনিশিং লাইন পৌঁছতে ম্যান সিটিকে টপকাতে হবে তাঁদের মহাপ্রতিদ্বন্দ্বী ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডকে। ব্রিটিশ মিডিয়ার খবর অনুযায়ী, লুই ফান গলের সঙ্গে ম্যান ইউ ফুটবলারদের সম্পর্ক বিশেষ ভাল নয়। যা নিয়ে ক্লাব কর্তারা যথেষ্ট চিন্তিত। ম্যান ইউকে ফের ইংলিশ ফুটবল তথা ইউরোপে স্বমহিমায় ফেরাতে তাই গুয়ার্দিওলাকে পাখির চোখ করছেন ম্যান ইউ কর্তারা। ক্লাবের কিংবদন্তি প্রাক্তন ম্যানেজার স্যর অ্যালেক্স ফার্গুসনের কাছেও কর্তারা আবেদন করেছেন, যাতে গুয়ার্দিওলাকে ব্যক্তিগত ভাবে তিনি বোঝান ম্যান ইউয়ের দায়িত্ব নিতে।

গুয়ার্দিওলাকে পেতে দুই ম্যাঞ্চেস্টারের ঠিক পিছনেই ধাওয়া করছে চেলসি। জোসে মোরিনহোর অধীনে প্রিমিয়ার লিগে এই মুহূর্তে ষোলো নম্বরে গত বারের চ্যাম্পিয়ন চেলসি। প্রায় প্রত্যেক সপ্তাহেই হেরে চলেছে ‘দ্য স্পেশ্যাল ওয়ানের’ দল। এখনও নিজের চাকরি বাঁচিয়ে রাখলেও মরসুম শেষে তাঁকে সরিয়ে দেওয়া হবে বলেই বেশির ভাগের ধারণা। এর আগেও গুয়ার্দিওলাকে চেলসি কোচ হিসাবে চেয়েছিলেন ক্লাব মালিক রোমান আব্রামোভিচ। তখন পারেননি। এ বার ফের সুযোগ পেয়ে তাই কোনও মতে হাতছাড়া করতে চান না চেলসি মালিক। টিমের নতুন প্রজন্মের চাবি গুয়ার্দিওলার হাতেই দিতে চান।

সরকারি ভাবে গুয়ার্দিওলা অবশ্য নিজের ভবিষ্যৎ সম্পর্কে জানাবেন পরের সপ্তাহে। ‘‘এখন আমার কাছে কোনও উত্তর নেই। পরের সপ্তাহে পরিষ্কার কিছু বলতে পারব।’’ ক্রিসমাসের জন্য বুন্দেশলিগা বন্ধ থাকবে। সেই সময় বায়ার্ন কর্তাদের সঙ্গে আলোচনায় বসবেন গুয়ার্দিওলা। ওয়াকিবহাল মহলের ধারণা, তখনই গুয়ার্দিওলা জানিয়ে দেবেন বায়ার্ন ছাড়ার কথা।

গুয়ার্দিওলার জায়গায় এখন থেকেই উঠে আসছে রিয়াল মাদ্রিদের প্রাক্তন ইতালীয় ম্যানেজার কার্লো আন্সেলোত্তির নাম। যার মানে মেসির গুরুর পর বায়ার্ন এ বার ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর পুরনো কোচের হাতে তুলে দিতে চাইছে তাদের টিমকে। গুয়ার্দিওলাকে হারানোর জন্য আগাম তৈরি বায়ার্নের অন্যতম প্রধান কর্তা কার্ল হেইঞ্জ রুমেনিগে বলেছেন, ‘‘বিশ্বে এমন কেউ নেই যাঁকে পাল্টে তাঁর জায়গায় অন্য কাউকে আনা যায় না। ফুটবলাররা আসে, চলে যায়। কোচেদের ক্ষেত্রেও তাই।’’ কিন্তু বার্য়ান ফুটবলারদের কী ইচ্ছে? ফিলিপ লাম বলেছেন, ‘‘আমাদের কোনও অসুবিধা হচ্ছে না গুয়ার্দিওলার সঙ্গে কাজ করতে।’’

সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা

প্রকাশিত : ১৭ ডিসেম্বর ২০১৫, ১১:৩৭ এ. এম.

১৭/১২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: