২৩ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

আঙ্গুলের ছাপে মোবাইলের সিম নিবন্ধন উদ্বোধন


স্টাফ রিপোর্টার ॥ মোবাইল ফোনের সিম নিবন্ধনে বায়োমেট্রিক পদ্ধতির আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হলো বুধবার। গ্রাহকরা এখন থেকে আর আঙ্গুলের ছাপ ছাড়া নতুন সিম কিনতে পারবেন না। টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসির কার্যালয়ে সিম নিবন্ধনে বায়োমেট্রিক পদ্ধতির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। পরীক্ষামূলক-ভাবে এ পদ্ধতিতে নিবন্ধন শুরু হয়েছে গত ১ নবেম্বর। এই সময়ে পদ্ধতিগত সমস্যাগুলোর সমাধান করা হয়। প্রতিমন্ত্রী বলেন, সিম নিবন্ধনে বায়োমেট্রিক পদ্ধতি উদ্বোধনের মাধ্যমে আমরা ডিজিটাল পরিচয়ের পথে যাত্রা শুরু করলাম।

সিম নিবন্ধনের পর আগামী ফেব্রুয়ারি থেকে গ্রাহকের কাছ থাকা মোবাইল হ্যান্ডসেট নিবন্ধনের প্রক্রিয়া শুরু হবে বলে জানিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম। বিটিআরসিকে এ বিষয়ে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। বিটিআরসি সব অপারেটরকে মোবাইল হ্যান্ডসেট নম্বরও রেজিস্ট্রেশন করতে হবে এই মর্মে চিঠি পাঠাবে। তবে কি প্রক্রিয়ায় গ্রাহকের হাতে থাকা হ্যান্ডসেট নিবন্ধন করতে হবে তা জানাননি প্রতিমন্ত্রী। মোবাইল সেট নিবন্ধন হলে নাগরিকের সম্পূর্ণ ডিজিটাল আইডেনটিটি হবে। এক বা একাধিক সিম ও মোবাইল ফোন ব্যবহার করলে তা তারই নামে হতে হবে। এভাবে নাগরিকদের সিকিউর করতে চাই। প্রতিমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী এ পদ্ধতি শুরু হলে মোবাইল হ্যান্ডসেটের ইন্টারন্যাশনাল মোবাইল ইক্যুইপমেন্ট আইডেনটিটি (আইএমইআই) নম্বর ব্যবহারকারীদের নিবন্ধন করতে হবে। প্রাথমিকভাবে হ্যান্ডসেট নম্বর নিবন্ধনে মোবাইল ফোন অপারেটরদের কাস্টমার কেয়ার ব্যবহার করা হবে। বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সব গ্রাহককে সিম নিবন্ধন করতে হচ্ছে। সিম নিবন্ধনের সময় হ্যান্ডসেট নিবন্ধনের কাজটিও করে নেয়া হবে।

বিটিআরসি চেয়ারম্যান ড. শাহজাহান মাহমুদ বলেন, আমরা উন্নত দেশের কাতারে চলে এলাম এ যাত্রার মাধ্যমে। তারা যেভাবে সবার পরিচয় নিশ্চিত করছে, আমারাও সেভাবে করা শুরু করলাম। বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম নিবন্ধনে কোন সমস্যা হলে তা ২৪ থেকে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে সমাধান করা হবে বলেও অপারেটরদের আশ্বাস দেন বিটিআরসির চেয়ারম্যান।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: