১৮ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

মোদী ‘মানসিক বিকারগ্রস্ত’!


মোদী ‘মানসিক বিকারগ্রস্ত’!

অনলাইন ডেস্ক ॥ ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে ‘মানসিক বিকারগ্রস্ত’ ও ‘কাপুরুষ’ বলে অভিহিত করেছেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল।

মঙ্গলবার সকালে ভারতের কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা দিল্লির মুখ্যমন্ত্রীর অফিসে অভিযান চালানোর পর ক্ষুব্ধ কেজরিওয়াল কেন্দ্রীয় প্রধানমন্ত্রীকে ‘এর জন্য দায়ী’ করেন বলে জানিয়েছে এনডিটিভি।

তদন্ত সংস্থার অভিযানকে ‘হানা’ অ্যাখ্যা দিয়ে নিজের ট্যুইটার পাতায় কেজরিওয়াল বলেন, “রাজনৈতিকভাবে মোকাবেলা করতে ব্যর্থ হয়ে মোদী কাপুরুষতার এ পথ বেছে নিয়েছেন।”

কিছুক্ষণ পরে দেওয়া অন্য এক টুইটে আম আদমি পার্টির প্রধান কেজরিওয়াল আবার বলেন, “মোদী কাপুরুষ ও মানসিক ব্যাধিতে আক্রান্ত।”

কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা সিবিআই এসব অভিযোগ অস্বীকার করে সিবিআই’র মুখপাত্র দেবপ্রিত সিং বিবিসিকে বলেন, এটি অরবিন্দ কেজরিওয়ালের অফিসে ‘হানা’ দেওয়ার কোন ঘটনা নয়, আমরা সেখানে গিয়েছিলাম তার মুখ্য সচিব রাজেন্দ্র কুমারের দুর্নীতির বিষয়ে তদন্ত করতে।

প্রতিক্রিয়ায় একে ‘মিথ্যা’ অ্যাখ্যা দিয়ে কেজরিওয়াল বলেন, সিবিআই মিথ্যা কথা বলছে। তারা আমার কার্যালয়ে হানা দিয়েছে। মুখ্যমন্ত্রীর অফিসের নথিপত্র ঘেঁটেছে। এখন প্রধানমন্ত্রী বলুক, কোন ফাইল তার দরকার?

আম আদমি পার্টির সদস্যরা এ ঘটনাকে ‘গণতন্ত্রের অন্ধকারতম দিন’ হিসেবে অভিহিত করেছে।

কেন্দ্র নিয়ন্ত্রিত দিল্লির পুলিশবাহিনী, আইন-শৃঙ্খলা ও ভূমি সংক্রান্ত কোন বিষয়ে আম আদমি পার্টি শাসিত স্থানীয় সরকার ভূমিকা রাখতে পারে না বলে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে নির্বাচিত হওয়ার পর থেকেই দিল্লির ‘আরও স্বায়ত্বশাসন’ নিয়ে বেশ উচ্চকিত কেজরিওয়াল। এর মধ্যেই এ ঘটনা ঘটল।

কেজরিওয়ালের করা অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করে এর সমালোচনা করেছেন ক্ষমতাসীন বিজেপির নেতারা।

কেন্দ্রের সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী ভেঙ্কাইয়া নাইডু ‘অহেতুক অভিযোগ’ এর জন্য কেজরিওয়ালের সমালোচনা করে বলেছেন, মোদীর সমালোচনা করা তার (কেজরিওয়াল) ফ্যাশন হয়ে দাঁড়িয়েছে।

ভারতের অর্থমন্ত্রী অরুন জেটলি সংসদের উচ্চকক্ষকে জানিয়েছেন, “সিবিআই-এর কোনো সদস্য কেজরিওয়ালের কক্ষে প্রবেশ করেননি এমন কি এর সঙ্গে তার (কেজরিওয়াল) কোন যোগও নেই। এই অনুসন্ধান একজন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে।”

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: