২২ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৩ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

গণতন্ত্র শক্তিশালী করতে যুক্তরাষ্ট্রের সহায়তা চাইলেন খালেদা


স্টাফ রিপোর্টার ॥ দেশের গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়াকে শক্তিশালীকরণে যুক্তরাষ্ট্রের সহায়তা চাইলেন বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া। ঢাকা সফররত যুক্তরাষ্ট্রের কাউন্সেলর টমাস শ্যাননের সঙ্গে বৈঠকে বিএনপি চেয়ারপার্সন দেশে মানবাধিকার এবং গণতন্ত্রের ঘাটতির কথা জানান। একই দিন শ্যানন বিরোধীদলীয় নেতা বেগম রওশন এরশাদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন। তিনি সোমবার দুপুরেই শ্রীলঙ্কার উদ্দেশে ঢাকা ছাড়েন।

সোমবার সকাল ১১টায় বিএনপি চেয়ারপার্সনের গুলশানের বাসায় তার সঙ্গে দেখা করতে যান মার্কিন রাজনীতি বিষয়ক আন্ডার সেক্রেটারি শ্যানন। প্রায় ৫০ মিনিটের এই বৈঠকের পর দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য আবদুল মঈন খান।

এই বৈঠকে শান্তি, গণতন্ত্র ও মানবাধিকার রক্ষার বিষয়ে আমাদের বক্তব্য স্পষ্টভাবে তুলে ধরেছি। আজকের বিশ্বে মানবাধিকার রক্ষা তথা গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া সমুন্নত রাখা ব্যতীত অন্য কোন ব্যবস্থা মানুষের কাছে গ্রহণযোগ্য হতে পারে না। এটাই ছিল আমাদের মূল বক্তব্য।

বৈঠকে উপস্থিত দলের কয়েকজন নেতা জানান, চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি, মানবাধিকার পরিস্থিতি, কয়েকজন বিদেশী হত্যাকা-সহ দেশের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি, বিরোধীদলের ওপর সরকারের দমন-পীড়ন, যুক্তরাষ্ট্র ও বাংলাদেশের মধ্যে অর্থনৈতিক এবং বাণিজ্যিক সম্পর্ক উন্নয়ন, তৈরি পোশাক শিল্প এবং সন্ত্রাস ও উগ্রবাদ দমন নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের এই কর্মকর্তার সঙ্গে বিএনপি প্রধানের আলোচনা হয়েছে। তবে এসব বিষয়ে সুনির্দিষ্ট করে কিছু বলতে বিএনপি নেতাদের কেউ রাজি হননি।

শ্যাননের সাক্ষাতের সময় বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা রিয়াজ রহমান ও সাবিহ উদ্দিন আহমেদ উপস্থিত ছিলেন।

মঈন খান বলেন, আমরা আমাদের কথা বলেছি, যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধি তাদের কথা বলেছেন। তারা কী বলেছেন, সে সম্বন্ধে তারা বক্তব্য দেবেন।

আমরা বলেছি, বিএনপি একটি উদারনৈতিক গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক দল। আমরা গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় বিশ্বাসী, গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় ক্ষমতা হস্তান্তরে বিশ্বাসী।

তার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়া বিষয়ক এ্যাসিসট্যান্ট সেক্রেটারি নিশা দেশাই বিসওয়াল ও দক্ষিণ এশিয়া বিষয়ক ডেপুটি এ্যাসিসট্যান্ট সেক্রেটারি মানপ্রিত সিং আনন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সাক্ষাত শেষে শ্রীলঙ্কার উদ্দেশে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের পথে রওনা হন শ্যানন।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: