১৮ ডিসেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

কৃষিকাজে ইউরোপীয়দের জিন বদল


আজ থেকে সাড়ে আট হাজার বছর আগে নিকটপ্রাচ্যের সাধারণ কৃষকদের জীবনধারা কেমন ছিল? কৃষকরা যখন প্রথম ইউরোপে চাষাবাদ শুরু করে সেই সঙ্গে তাদের জিনেরও পরিবর্তন হয়। যার ফলে ইউরোপীয়দের চেহারা, তাদের খাদ্য হজম এবং রোগব্যাধির সঙ্গে খাপ খাইয়ে নেয়ার ধারাও বদলে যায়।

‘নেচার’ সাময়িকীতে প্রকাশিত একটি গবেষণাপত্রে এই তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে। এতে জানা যায় যে একদল আন্তর্জাতিক গবেষক ৩ হাজার থেকে ৮৫০০ বছর আগে ইউরোপ, সাইবেরিয়া ও তুরস্কে বসবাসকারী ২৩০ ব্যক্তির প্রাচীন ডিএনএ ক্রমবিন্যাস্ত করেছেন। তাদের নমুনায় ছিল নিকটপ্রাচ্যের আদি কৃষকদের ডিএনএ যা আগে কখনও বিন্যস্ত করা হয়নি। এই কৃষকদের একজনের দেহাবশেষ উত্তর-পশ্চিম আনাতোলিয়া তথা আজকের তুরস্কের বারসিন হোয়ুক-এ মাটি চাপা ছিল।

এর আগে গবেষক দলটি জানিয়েছিল কিভাবে প্রাকৃতিক নির্বাচন শ্বেতাঙ্গ চামড়ার লম্বাটে মানুষের অনুকূলে জিনের বিস্তারে সহায়ক হয়েছিল এবং দুধের শর্করা হজমে সাহায্য করেছিল। এখন নতুন গবেষকপত্রে সেই একই দল আরও কিছু কঙ্কালের ডিএনএ ক্রমবিন্যস্ত করে দেখতে পান যে চাষাবাদও জিনসমূহকে চর্বি হজমে সহায়তা করেছিল এবং সেই সঙ্গে সেগুলোকে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা যুগিয়েছিল যার কারণে যক্ষ্মা ও কুষ্ঠরোগের মতো সংক্রামক রোগব্যাধির হাত থেকে রক্ষা পাওয়া সম্ভব হয়।

মজার ব্যাপার গবেষক দলটি আরও লক্ষ্য কারেন যে সেলিয়াক রোগের সঙ্গে দু’ধরনের জিনেরও বিস্তার ঘটেছিল। এই জিনগুলো হয়ত আনুকূল্য পেয়েছিল এই কারণে যে সেগুলো কিছু কিছু কৃষিজ খাদ্যের সঙ্গে যুক্ত ঘাটতি পূরণ করতে সহায়ক।

সূত্র : বিবিসি

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: