১৫ অক্টোবর ২০১৯, ৩০ আশ্বিন ১৪২৬, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 
সর্বশেষ

নতুন গবেষণা

প্রকাশিত : ১৩ নভেম্বর ২০১৫, ০১:১৭ এ. এম.

কম খেয়েও কেন মোটা হয়

বেশি খেলে মানুষ বেশি মোটা হয়- কথাটা ঠিক নয়। বেশি বেশি খাবার আর কম দৌড়াদৌড়ি বা ব্যায়াম করাটাই বেশি মোটা হওয়ার একমাত্র কারণ বলে মনে করেন অনেকে। তবে অস্ট্রেলিয়ার গবেষকেরা বলছেন, মোটা হওয়ার পেছনে আরও কারণ আছে। এর মধ্যে একটি হচ্ছে চাকরি।

গবেষকেরা বলছেন, বসে বসে কাজ করার জীবনধারায় অভ্যস্ত হয়ে গেলে এবং কর্মক্ষেত্রে নানাবিধ চাপের মুখে যখন দীর্ঘসময় ধরে কোন কর্মীকে কাজ করে যেতে হয়, তখন তার ওজন অস্বাভাবিকভাবে বেড়ে যেতে পারে। গবেষকরা বলছেন, বিশ্বের ১৯০ কোটিরও বেশি প্রাপ্তবয়স্ক মানুষের ওজন বেশি। এদের মধ্যে ৬০ কোটি মানুষ স্থূলকায় হয়ে গেছে।

‘সোশ্যাল সায়েন্স এ্যান্ড মেডিসিন’ সাময়িকীতে প্রকাশিত হয়েছে এ সংক্রান্ত গবেষণাবিষয়ক নিবন্ধটি।

কী কারণে মানুষের ওজন বাড়ে, তা খুঁজে বের করতে অস্ট্রেলিয়ার গবেষকেরা ৪৫০ জন মধ্যবয়স্ক ব্যক্তির তথ্য নিয়ে বিশ্লেষণ করেন। এদের মধ্যে ২৩০ জন নারী ও ২২০ জন পুরুষ। গবেষণায় যাদের তথ্য বিশ্লেষণ করা হয়েছে, তাদের মধ্যে সবধরনের কর্মী রয়েছেন। গবেষকেরা এতে অংশ নেয়া কর্মীদের উচ্চতা, ওজন ও কোমরের মাপ নেন এবং টেলিফোনে তাদের কাজ সম্পর্কে তথ্য যোগাড় করেন। গবেষণায় কর্মীদের মানসিক চাপের বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করা হয়।

শরীরের তাপে জ্বলবে টর্চ

ব্যাটারি বা ইলেকট্রিক চার্জনির্ভর টর্চের দিন ফুরোচ্ছে। শরীরের তাপ কাজে লাগিয়ে অন্ধকারে পথ দেখাবে ‘লুমেন’ এলইডি টর্চ। এ জন্য ব্যবহারকারীদের কোন শারীরিক পরিশ্রমও করতে হবে না। টর্চের নির্দিষ্ট অংশে আঙ্গুল রাখলেই চলবে। টর্চটিতে থাকা থার্মোইলেকট্রিক জেনারেটর (টিইজি) শরীরের তাপ সংগ্রহ করে এলইডি বাল্ব জ্বালাতে পারে।

প্রকাশিত : ১৩ নভেম্বর ২০১৫, ০১:১৭ এ. এম.

১৩/১১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: