১৮ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৫ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

ট্রাইনোসর ছিল মাংসাশী


ট্রাইনোসর ছিল মাংসাশী

পৃথিবীর সবচেয়ে বড় প্রাণী ট্রাইনোসর মূলত শান্ত স্বভাবের প্রাণী ছিল বলেই এতদিন আমরা বিশ্বাস করে এসেছি। আজ থেকে ৬ কোটি ৮০ লাখ বছর আগে পৃথিবীতে এই প্রাণীর বিচরণ ছিল।

কিন্তু সম্প্রতি জীববিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন, এই প্রাণী মোটেও শান্ত স্বভাবের ছিল না। এটি ছিল মাংসাশী। বিশেষ করে ট্রাইনোসররা অনায়াসে নিজ গোত্রের প্রাণীদের মাংস ভক্ষণ করত। এমনকি এক ট্রাইনোসর অপরটির মাংস খেত। রবিবার যুক্তরাষ্ট্রে জিওলজিক্যাল সোসাইটির বার্ষিক বৈঠকে এই তথ্য উপস্থাপন করা হয়। যুক্তরাষ্ট্রের ওয়েমিং লেন্স ফরমেশনে পাওয়া ট্রাইনোসরের দুটি হাড় পরীক্ষার পর লোমা লিন্ডা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক জীবাশ্মবিদ ম্যাথিউ ম্যাকলেইন এই তথ্য উপস্থাপন করেন। ম্যাথিউ ম্যাকলেইন হাড় দুটি গভীরভাবে পর্যবেক্ষণের পর এটির একটিতে করাতের মতো খাঁজ কাটা একটি অংশ দেখতে পান। মনে করা হচ্ছে এটি ট্রাইনোসরের দাঁতের অংশ। আর এই দাঁত দিয়ে আমরা যেমন মুরগির পা চিবিয়ে খাই ট্রাইনোসরাও হয়ত নিজেদের গোত্রের প্রাণীদের ধরে এনে এভাবে চিবিয়ে খেত।

ম্যাথিউ ম্যাকলেইন আরও বলেন, এই দাঁতের আকার দেখে মনে হচ্ছে এটি ট্রাইনোসরের দাঁত। কেননা ট্রাইনোসর ছাড়া এতবড় দাঁত অন্যকোন প্রাণীর হওয়ার কথা নয়। তিনি বলেন, আজ পর্যন্ত পৃথিবীতে যতবড় দাঁত পাওয়া গেছে এর মধ্যে এটির আকার সবচেয়ে বড়।

ট্রাইনোসর যুগে আর কোন বড় প্রাণী ছিল বলে আজ পর্যন্ত জানা যায়নি। বিজ্ঞানীরা বলছেন, ট্রাইনোসরের খাদ্যাভাসের সঙ্গে বর্তমান যুগের সিংহের মিল রয়েছে। কারণ সিংহ এটির একই প্রজাতির প্রাণী বাঘের মাংস খায়।

ট্রাইনোসর যে মাংসাশী ছিল এটির পেছনে প্রথমে যুক্তি তুলে ধরেন এক ব্রিটিশ গবেষক। চলতি বছরের শুরুতে ফরেনসিক প্রতিবেদনের সাহায্যে তিনি এই যুক্তি উপস্থাপন করেন। এতে বলা হয়েছিল, বড় ট্রাইনোসর অনায়াসে খোঁজাখুঁজি করে অপর ট্রাইনোসরকে খেয়ে ফেলত। এনডিটিভি অবলম্বনে নাজিম মাহমুদ।

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: