২৫ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

রাজশাহীতে পরিবহন টোল বন্ধ


মামুন-অর-রশিদ, রাজশাহী ॥ নগরীর দুটি বাস ও একটি ট্রাক টার্মিনালের মালিকানা নিয়ে দ্বন্দ্ব শুরু হয়েছে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন (রাসিক) ও রাজশাহী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (আরডিএ) মধ্যে। দুই প্রতিষ্ঠানের দ্বন্দ্বে আরডিএকে টোল দেয়া বন্ধ করে দিয়েছে সড়ক পরিবহন গ্রুপ। গত সেপ্টেম্বর থেকে রাজশাহী নগরীর তিনটি ট্রার্মিনালের টোলের অর্থ জমা দেয়নি তারা। প্রতিবছর এই তিনটি টার্মিনাল থেকে প্রায় কোটি টাকা টোল পেয়ে থাকে আরডিএ। চুক্তি অনুযায়ী বাস থেকে টোল আদায় করে ব্যাংকের মাধ্যমে আরডিএ’র অনকূলে জমা দিয়ে আসছে সড়ক পরিবহন গ্রুপ। এখন তা বন্ধ রয়েছে।

রাসিক সূত্র জানায়, নির্মাণের পর সিটি কর্পোরেশনের কাছে টার্মিনাল হস্তান্তরের নিয়ম থাকলেও তা করা হয়নি। কিন্তু সেখান থেকে প্রতিবছর আরডিএ কোটি টাকার টোল আদায় করে। তবে টার্মিনালগুলো রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব পালন করতে হয় রাসিককে। অন্যদিকে, আরডিএ’র দাবি মন্ত্রণালয় থেকে নির্দেশনা না আসায় ট্রার্মিনালগুলো সিটি কর্পোরেশনের কাছে হস্তান্তর করা হয়নি। তবে নওদাপাড়ায় নতুন টার্মিনাল হওয়ায় শিরোইল টার্মিনালের প্রয়োজন নেয়। সেখানে বহুতল বাণিজ্যিক ভবন নির্মাণের পরিকল্পনা করছে আরডিএ। গত ২৬ অক্টোবর আরডিএর সাধারণ সভায় শিরোইল টার্মিনালে বাণিজ্যিক ভবন নির্মাণের আলোচনার এজেন্ডাও ছিল। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, নির্মাণের পর ২৫ বছরেও রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের (রাসিক) কাছে হস্তান্তর করা হয়নি নগরীর শিরোইল বাস ট্রার্মিনাল। ১৯৯০ সালে ৩ দশমিক ৭৮ একর জমির ওপর এ টার্মিনালটি নির্মাণ করে রাজশাহী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (আরডিএ)। এছাড়াও ২০০৪ সালে নগরীর নওদাপাড়া এলাকায় নির্মিত আরও একটি বাস ও একটি ট্রাক টার্মিনাল এখনও রাসিকের কাছে হস্তান্তর করা হয়নি। এদিকে হঠাৎ টোল দেয়া বন্ধ করার ব্যাপারে রাজশাহী সড়ক পরিবহন গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক মুঞ্জুর রহমান পিটার বলেন, চুক্তি অনুযায়ী এতদিন টোল আদায় করে প্রতিদিন দুইটি বাস টার্মিনাল ব্যবহারের জন্য ২৩ হাজার টাকা আরডিএ’র অনুকূলে জমা দিয়ে আসছে তারা। কিন্তু সম্প্রতি টার্মিনালের মালিকানা নিয়ে রাসিক ও আরডিএ’র মধ্যে নতুন করে দ্বন্দ্ব শুরু হয়। রাসিকের নির্দেশেই তারা গত সেপ্টেম্বর মাস থেকে আপাতত টোল জমা দেয়া বন্ধ রেখেছেন।

পরিবহন গ্রুপের নেতা পিটার বলেন, গত ১ অক্টোবর আরডিএর পক্ষ থেকে নিয়মিত টোল দেয়ার জন্য তাদের কাছে চিঠি দেয়া হয়েছে। তাতে সিটি কর্পোরেশনের কাছে টার্মিনাল হস্তান্তর প্রক্রিয়া সম্পন্ন না হওয়া পর্যন্ত আগের নিয়মে আরডিএ’র অনুকূলে টোল প্রদানের অনুরোধ জানানো হয়েছে। রাসিকের দায়িত্বপ্রাপ্ত মেয়র নিযাম উল আযীম বলেন, টার্মিনাল নির্মাণের পর সিটি কর্পোরেশনের কাছে হস্তান্তরের নিয়ম থাকলেও তা করা হয়নি। কিন্তু টার্মিনাল পরিষ্কার রাখাসহ রক্ষণাবেক্ষণের সব দায়িত্ব রাসিককে পালন করতে হয়।

আরডিএ’র চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ বজলুর রহমান বলেন, নিজস্ব জমির ওপর আরডিএ’র টার্মিনাল নির্মাণ করেছে। সে অনুযায়ী আরডিএ টোল আদায় করে থাকে। এখন জোর করে রাসিক টোল আদায় করতে চাইছে।