মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৮ আশ্বিন ১৪২৪, শনিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

কেন্দ্রীয় ব্যাংককে দায়ী করে বিনিয়োগকারীদের বিক্ষোভ

প্রকাশিত : ২ নভেম্বর ২০১৫, ০৫:০৩ পি. এম.

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ পুঁজিবাজারে ধারাবাহিক দরপতনে কেন্দ্রীয় ব্যাংককে দায়ী করে গবর্নর ড. আতিউর রহমানের পদত্যাগের দাবিতে বিক্ষোভ করেছে বিনিয়োগকারীরা। সোমবার দুপুরে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) সামনে বাংলাদেশ পুঁজিবাজার বিনিয়োগকারী ঐক্য পরিষদের ব্যানারে বিনিয়োগকারীরা বিক্ষোভ করেন।

বিনিয়োগকারীরা অভিযোগ করে বলেন, পুঁজিবাজারে ব্যাংকগুলোর এক্সোপোজার লিমিট কমিয়ে আনার কারণে বাজারে তারল্য সংকট দেখা দিয়েছে। এর কারণে বাজারে পতন হচ্ছে। বাংলাদেশ ব্যাংকের ভূমিকার কারণে ২০১০ সালে পুঁজিবাজারে ধস নেমেছে বলেও তারা অভিযোগ করেন। গবর্নরকে পুঁজিবাজার বিরোধী আখ্যা করে অবিলম্বে তার পদত্যাগের দাবি জানান বিনিয়োগকারীরা।

গবর্নরের পদত্যাগ ছাড়াও পুঁজিবাজারে ব্যাংকের ইক্যুইটির ২৫ শতাংশ বিনিয়োগের নিয়ম বাতিল করে আমানতের ১০ শতাংশ করা, পুঁজিবাজার স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত আইপিও বন্ধ রাখা, বিনিয়োগকারীদের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানানো হয়।

বিক্ষুব্ধ বিনিয়োগকারীরা অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত ও বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) চেয়ারম্যান ড. খায়রুল হোসেনেরও সমালোচনা করেন। আইপিও নিয়ে বাণিজ্য বন্ধে বিএসইসির প্রতি দাবি জানান তারা।

বাংলাদেশ পুঁজিবাজার বিনিয়োগকারী ঐক্য পরিষদের সভাপতি মিজানুর রশীদ চৌধুরী বলেন, বিনিয়োগসীমা নিয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশনার কারণে বাজারে টানা পতন হচ্ছে। কিন্তু এই অবস্থা উত্তরণে কেউ এগিয়ে আসছে না। আমাদের দাবি বিনিয়োগ সীমা নিয়ে আমানতের ১০ শতাংশ পূণর্বহাল করতে হবে। একইসাথে বিএসইসির আইপিও বাইিজ্য বন্ধ করতে হবে।

উল্লেখ্য, পুঁজিবাজারে টানা পাঁচ দিন পতন হওয়ার পর সোমবারও দিনের শুরুতে পুঁজিবাজারে দরপতন ঘটে। দরপতনের কারণে বিনিয়োগকারীরা বিক্ষোভ করেন। বিনিয়োগকারীদের বিক্ষোভের পর পুঁজিবাজার ঘুরে দাঁড়ায় এবং দিনশেষে সূচকের ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা দিয়ে লেনদেন শেষ হয়েছে।

প্রকাশিত : ২ নভেম্বর ২০১৫, ০৫:০৩ পি. এম.

০২/১১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: