১৮ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

নাটোরে গৃহবধূ ও গাইবান্ধায় জামাতা খুন


জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ নাটোরে গৃহবধূ ও গাইবান্ধায় জামাতা খুন হয়েছেন। এছাড়া ঝিনাইদহে যুবকের গুলিবিদ্ধ মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। খবর নিজস্ব সংবাদদাতা ও সংবাদদাতাদের।

নাটোর ॥ বড়াইগ্রাম উপজেলার মনপীরিত গ্রামে চম্পা খাতুন (২৪) নামে এক গৃহবধূকে মারপিট করার পর শ্বাসরোধে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। শনিবার রাতে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় বোরখা পরে পালানোর সময় স্থানীয়রা নিহতের শ্বশুর আব্দুর রহিম মাল, শাশুড়ি সনেকা বেগম (৫০) ও স্বামী জাহাঙ্গীর আলমকে আটক করে পুলিশে দেয়।

জানা গেছে, ২০০২ সালে মনপীরিত গ্রামের জাহাঙ্গীরের সঙ্গে মশিন্দা গ্রামের চাঁদ মোহাম্মদের মেয়ে চম্পার বিয়ে হয়েছিল। পারিবারিক অশান্তির জের ধরে ২০০৯ সালে জাহাঙ্গীর চম্পাকে তালাক দেয় এবং ২০১৪ সালে পুনরায় বিয়ে করে। সম্প্রতি জাহাঙ্গীর ও তার বাড়ির লোকজন ৫০ হাজার টাকা যৌতুকের জন্য চম্পাকে চাপ দেয়। কিন্তু এক সন্তানের জননী চম্পা যৌতুকের টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে শনিবার রাতে জাহাঙ্গীর তাকে বেদম মারপিট করে। রবিবার ভোরে চম্পার শাশুড়ির চিৎকারে স্থানীয়রা একটি আমগাছে হেলান দেয়া চম্পার মৃতদেহ দেখতে পায়। এ সময় তার দুই পা মাটিতে ঠেকানো এবং গলায় দড়ি বাঁধা ছিল।

গাইবান্ধা ॥ সদর উপজেলার খোলাহাটি ইউনিয়নের ছয়ঘড়িয়া গ্রামের আলম মিস্ত্রির বাড়িতে এসে জামাতা মধু মিয়ার অস্বাভাবিক মৃত্যু হয়। এদিকে শ্বশুরবাড়ির লোকজন জামাতাকে মারপিট করে মেরে ফেলেছে বলে মধু মিয়ার বাড়ির লোকজনের পক্ষ থেকে অভিযোগ উঠেছে। তবে শ্বশুরবাড়ির লোকজন ওই অভিযোগ অস্বীকার করে।

ঝিনাইদহ ॥ মহেশপুরে এরশাদ (৩৫) নামে এক যুবকের গুলিবিদ্ধ মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। রবিবার সকালে মহেশপুর উপজেলার পুরোন্দপুর গ্রামের মাঠ থেকে পুলিশ মৃতদেহটি উদ্ধার করে। নিহত যুবকের কপালে ও বুকে দুটি গুলির চিহ্ন রয়েছে।