১৪ ডিসেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

মোতালেব গুলিবিদ্ধ হলেও পুলিশ মামলা নেয়নি


স্টাফ রিপোর্টার॥ ফজরের নামাজ পড়তে মসজিদে ঢোকার সময় পরিচিত লোকদের হামলায় গুলিবিদ্ধ হন মোতালেব হোসেন উকিল। রক্তাক্ত অবস্থায় থানায় গিয়ে মামলা করতে এজাহার লিখে দেন। কিন্তু দুর্ভাগ্য আসামিরা প্রভাবশালী হওয়ায় পুলিশ মামলা নেয়নি। শেষ পর্যন্ত আদালতে গিয়ে মামলা দায়ের করার পরও প্রতিকার পাননি। এখন পুলিশ আসামি ধরছে না। উল্টো নুরুজ্জামান মৃধা নামের এক প্রভাবশালী তাকে প্রাণনাশের হামলা দিয়ে মামলা প্রত্যাহারের চাপ দিচ্ছে।

শনিবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এমনই অভিযোগ করলেন মোতালেব হোসেন উকিল। তিনি রাজধানীর রূপনগর পল্লবী থানা আওয়ামী হকার্স লীগের সাধারণ সম্পাদক। তার পৈত্রিক বাড়ি শরীয়তপুরে।

সেখানকার গোসাইরহাট উপজেলার মাছুয়াখালী গ্রামের বাসিন্দা মোতালেবের অভিযোগ-জমিজমার বিরোধ নিয়ে প্রভাবশালী প্রতিবেশীরা এই হামলা চালায়। বার বার জমিজমার বিরোধ মিটানোর কথা বলে সালিশী ডেকে ঢাকা থেকে বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয় তাকে। গত ৪ অক্টোবর ফজরের নামাজের সময় তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে গুলি করা হয়।

মোতালেব বলেন, গুলি খেয়ে গোসাইরহাট থানায় মামলা করতে যাই। কিন্তু মোফাজ্জেল হোসেন এজাহারে প্রভাবশালীদের নাম থাকায় মামলা রেকর্ড করেননি। বাধ্য হয়েই শরীয়তপুর আদালতে পিটিশন মামলা দায়ের কর্।ি এতে আসামি করা হয় জিল্লুর রহমান, নুরুজ্জামান মৃধা, বজলুর রহমান শিকদার, মাহমুদা বেগম, ফজিলাতুন্নেছাসহ কয়েকজনকে। পুলিশ তাদের আটক করছে না। উল্টো প্রধান আসামি নুরুজ্জামান মৃধা থানায় গিয়ে ওসির সঙ্গে চা সিঙ্গাড়া খাচ্ছে।