২৩ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৬ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

‘ত্রিংশ শতাব্দী’ নাটকের বিশেষ মঞ্চায়ন আজ


সংস্কৃতি ডেস্ক ॥ এর আগে একাধিকবার দেশের বাইরে নাটকের মঞ্চায়ন করেছে ঢাকার মঞ্চে অন্যতম জনপ্রিয় নাট্যদল স্বপ্নদল। তবে সেটা ছিল পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতে। এবার সুদূর ইংল্যান্ডে বিখ্যাত ‘এ সিজন অব বাংলা ড্রামা-২০১৫’ উৎসবে যুদ্ধবিরোধী গবেষণাগার প্রযোজনা ‘ত্রিংশ শতাব্দী’ নাটক মঞ্চায়নের জন্য আমন্ত্রণ পেয়েছে দলটি। ইংল্যান্ডের টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিল আয়োজিত ইউরোপের গুরুত্বপূর্ণ নাট্যোৎসবের ১৩তম আসরে লন্ডনের ব্র্যাডি আর্টস সেন্টারে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করবে স্বপ্নদল। আগামী ৬ ও ৭ নবেম্বর ‘ত্রিংশ শতাব্দী’ নাটকের দুটি মঞ্চায়ন হবে। নাটক মঞ্চায়নের উদ্দেশ্যে আগামী ৩ নবেম্বর ইংল্যান্ডের উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করবে স্বপ্নদলের ১৫ সদস্যের প্রতিনিধি দল। এর আগে আজ রবিবার সন্ধ্যা সাতটায় ‘ত্রিংশ শতাব্দী’ নাটকের বিশেষ মঞ্চায়ন অনুষ্ঠিত হবে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির এক্সপেরিমেন্টাল থিয়েটার হলে। বাদল সরকারের মূল রচনা অবলম্বনে ‘ত্রিংশ শতাব্দী’ নাটকের রূপান্তরসহ নির্দেশনা দিয়েছেন জাহিদ রিপন। নাটকের অভিনয়শিল্পীরা হলেন, জুয়েনা শবনম, ফজলে রাব্বী সুকর্ন, সামাদ ভূঞা, শিশির সিকদার, মোস্তাফিজুর রহমান, জেবুন নেসা, রেজাউল মাওলা, মেহেদী রানা, তানভীর শেখ, জাহিদ রিপন প্রমুখ।

যুদ্ধোন্মাদনার বিরুদ্ধে শৈল্পিক প্রতিবাদ স্বপ্নদলের ‘ত্রিংশ শতাব্দী’ নাটকের মূল কাহিনী পৃথিবীর ইতিহাসের সবচেয়ে কলঙ্কজনক অধ্যায় দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধকালে জাপানের হিরোশিমা-নাগাসাকির আণবিক বোমা বিস্ফোরণের অনভিপ্রেত বিষাদময় পরিণতি। এর সমান্তরালে গুরুত্বের সঙ্গে উপস্থাপিত হয়েছে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ, বসনিয়া, আফগানিস্তান, পাকিস্তান-ভারত, ইরাকে আগ্রাসন, গাজা-কুয়েত-সিরিয়া-তিউনিসিয়া-ইয়েমেন-তুরস্ক-মিয়ানমারে সাম্প্রতিক বর্বরতা প্রভৃতি প্রসঙ্গ। ‘ত্রিংশ শতাব্দী’ প্রযোজনায় নানাবিধ দৃষ্টিকোণ থেকে বিশ্লেষণের মাধ্যমে স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক প্রেক্ষাপটে যুদ্ধবাজ-যুদ্ধাপরাধী-অশান্তিকামীদের স্বরূপ এবং তাদের কর্মের তাৎক্ষণিক ও সুদূরপ্রসারী বীভৎসতার চিত্র উদ্ঘাটিত হয়েছে।

সভ্যতা ধ্বংসকারী মানবসৃষ্ট যুদ্ধ-গণহত্যা-অনাচারের বিপরীতে মানুষ হিসেবে বর্তমান কর্তব্য অনুধাবন এবং এক্ষেত্রে দর্শককে সিদ্ধান্ত গ্রহণের মুখোমুখি স্থাপনই ‘ত্রিংশ শতাব্দী’ প্রযোজনার প্রত্যাশা। আর প্রযোজনাটির উপস্থাপনায় প্রয়োগ করা হয়েছে হাজার বছরের নাট্য-ঐতিহ্যের ধারায় আধুনিক ‘বাঙলা নাট্যরীতি’।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: