২০ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৪ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

পঞ্চগড়ে নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও মুক্তিযোদ্ধার জমি দখল


স্টাফ রিপোর্টার, পঞ্চগড় ॥ আদালতের নির্দেশ অমান্য করে পঞ্চগড় জেলা সদরের জগদল বাজার এলাকায় এক প্রভাবশালীর বিরুদ্ধে এক মুক্তিযোদ্ধার জমি দখল করে স্থায়ী সীমানা প্রাচীর নির্মাণের অভিযোগ উঠেছে। এ নিয়ে উভয়পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। ওই প্রভাবশালীর বিরুদ্ধে এর আগেও আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে বাড়িঘর নির্মাণ ও মসজিদের জমি দখলের অভিযোগ রয়েছে।

জানা গেছে, পঞ্চগড়-বাংলাবান্ধা মহাসড়কের ধারে জগদল বাজার এলাকায় মুক্তিযোদ্ধা মজিবর রহমান ১৯৮৭ সালে একই এলাকার আব্দুল জলিলের কাছ থেকে ২২ শতক জমি ক্রয় করেন। সম্প্রতি একই এলাকার মৃত ইয়াদ আলীর ছেলে জালাল উদ্দীন ওই জমি নিজের বলে দাবি করে ১২ শতক জমিতে মাটি ভরাট করে দখলের চেষ্টা করেন। গত ১৫ অক্টোবর মুক্তিযোদ্ধা মজিবর রহমান ওই জমিতে দোকানঘর নির্মাণ করার জন্য মাপজোক করতে গেলে জালাল উদ্দীন বাধা প্রদান করে। এ ব্যাপারে পঞ্চগড় সদর থানায় জানালে ১৯ অক্টোবর অফিসার ইনচার্জ ওই জমিতে শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রাখার জন্য উভয়পক্ষকে নোটিস দেয়। ওই জমি দখল ও ঘর উত্তোলনের চেষ্টা করতে পারেন এজন্য মুক্তিযোদ্ধা মজিবর রহমান ওইদিনই জালাল উদ্দীনকে প্রধান বিবাদী করে ৯ জনের বিরুদ্ধে পঞ্চগড় সদর সিনিয়র জজ আদালতে চিরস্থায়ী নিষেধাজ্ঞার আবেদন করেন। ২৬ অক্টোরব সদর সিনিয়র জজ আদালতের বিচারক বিরোধীয় অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞার দরখাস্ত উভয়পক্ষের শুনানি অন্তে নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত বিবাদী পক্ষ নালিশীয় জমিতে অনধিকার প্রবেশ কিংবা ঘরবাড়ি উত্তোলন বা ওই জমি জবর দখল করতে না পারে সে জন্য অন্তর্বর্তীকালীন নিষেধাজ্ঞার আদেশ জারি করেন। কিন্তু আদালতের ওই আদেশের পরদিনই জালাল উদ্দীন ১২ শতক জমি জবর দখল করে ইট দিয়ে সীমানা প্রাচীর নির্মাণের কাজ শুরু করেছেন। তিনি ওই জমি দখলে রেখেছেন।

এ ব্যাপারে মুক্তিযোদ্ধা মজিবর রহমান জানান, আমরা জীবন দিয়ে দেশটাকে স্বাধীন করেছি। আর এখন আমার জমি দখল করছে প্রভাবশালীরা। তিনি তার জমি উদ্ধারে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

বিষয়টি নিয়ে কথা বলার জন্য জালাল উদ্দীনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি।