মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২০ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৫ আশ্বিন ১৪২৪, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

ইউরোজোনের অর্থনীতিতে ধীরগতি

প্রকাশিত : ১ নভেম্বর ২০১৫

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ আবারও ধীরগতি দেখা দিয়েছে ইউরোজোনের বৃহত্তম দেশগুলোর অর্থনীতিতে। কমছে ভোক্তাখরচ, ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে আর্থিক খাত, বাড়ছে অভিবাসী সংখ্যা। এ অবস্থায় দেশগুলোর বেকারত্ব হার বাড়ার আশঙ্কা করছে বিভিন্ন গবেষণা প্রতিষ্ঠান। ইউরোজোনের বৃহত্তম অর্থনীতির দেশ জার্মানি। এরপরের অবস্থানেই রয়েছে ফ্রান্স। এ অঞ্চলের অর্থনৈতিক উন্নয়নের মূল চালিকাশক্তিগুলো হিসেবে কাজ করছে এ দেশগুলোই। তবে চলমান নানা সঙ্কটের কারণে সাময়িকভাবে উন্নয়নের মুখ দেখলেও স্থিতিশীল কোন উন্নতি হচ্ছে না তাদের। এর নেতিবাচক প্রভাব পড়ছে ইতালি, গ্রিসের মতো মন্দ্রাগ্রস্ত দেশগুলোর।

অক্টোবরে আবারও কমেছে জার্মানি, ফ্রান্সের ভোক্তাখরচ। সেইসঙ্গে ভক্সওয়াগনের কার্বন নিঃসরণ কেলেঙ্কারির কারণে আর্থিক ক্ষতির পাশাপাশি ভাবমূর্তি সঙ্কটে পড়েছে জার্মানি। তবে ফেড যদি সুদের হার বাড়ায়, সেক্ষেত্রে ইউরোপের শক্তিশালী অর্থনীতির দেশ হিসেবে জার্মানিই ভূমিকা রাখবে বলে মত বিশ্লেষকদের।

এদিকে উন্নয়ন ত্বরান্বিত করতে ফ্রান্সকে শ্রমবাজার পুনর্গঠনে গুরুত্ব দেয়ার আহ্বান বিশ্লেষকদের। তবে ব্রিটেনের বিষয়ে বেশ সন্তুষ্ট পুঁজিবাজার বিশ্লেষকরা।

বাজার বিশ্লেষক জ্যাসপার লওলার বলেন, ইউরোপের দ্বিতীয় বৃহত্তম অর্থনীতির দেশ হিসেবে ফ্রান্সের এখন জরুরী ভিত্তিতে পুনর্গঠন প্রয়োজন। কারণ একটি প্রতিষ্ঠানের কর্মী ছাঁটাই দুঃখজনক। আবার অন্য প্রতিষ্ঠানে চাকরি খোঁজাটাও বেশ কঠিন। ফ্রান্সের এখন উচিত ব্রিটেনকে অনুসরণ করা। ইউরোপের সামগ্রিক অর্থনৈতিক উন্নয়নের ক্ষেত্রে এখন সবচেয়ে বড় প্রতিবন্ধকতা হিসেবে কাজ করছে অভিবাসী সঙ্কট। এ সঙ্কট সমাধানে ইউরোপসহ পুরো বিশ্বকে একযোগে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন বিশ্লেষকরা।

প্রকাশিত : ১ নভেম্বর ২০১৫

০১/১১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

অর্থ বাণিজ্য



শীর্ষ সংবাদ: