২১ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

আজই কী বরিশালের শিরোপা উৎসব?


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ আর ২৭ রান করতে পারলেই ওয়ালটন ১৭তম জাতীয় ক্রিকেট লীগের (এনসিএল) শিরোপা উৎসবে মাতবেন বরিশালের ক্রিকেটাররা। আজই বরিশালের হাতে সেই দিন ধরা দিতে পারে। শনিবার শুরু হওয়া লীগের শেষ রাউন্ডের প্রথমদিনেই যে ১ উইকেট হারিয়ে ৩২৩ রান করে ফেলেছে বরিশাল। শাহরিয়ার নাফীস অপরাজিত ১৫৮ ও ফজলে মাহমুদ রাব্বি অপরাজিত ১২৮ রান করে বরিশালকে বড় স্কোর গড়ার পথে এগিয়ে নিয়ে যান। তাদের অসাধারণ ব্যাটিং নৈপুণ্যে শিরোপার দ্বারপ্রান্তে আছে বরিশাল। প্রথম ইনিংসে ৩৫০ রান করতে পারলে বোনাস ৩ পয়েন্ট মিলে। আর ২৭ রান করে সেই ৩ পয়েন্ট যদি বরিশাল পেয়ে যায় তাহলে সর্বোচ্চ পয়েন্ট পাওয়া নিশ্চিত হবে। সেক্ষেত্রে দ্বিতীয় স্তর থেকে লীগ শেষ হওয়ার আগেই চ্যাম্পিয়ন হয়ে যাবে বরিশাল। চ্যাম্পিয়ন রেসে থাকা রাজশাহীও অবশ্য দুর্দান্ত খেলছে। সিলেটকে প্রথমদিনেই অলআউট করে দিয়েছে। প্রথম স্তরের দুটি ম্যাচের একটিও হয়নি।

প্রথম স্তর ॥ কক্সবাজারে ঢাকা বিভাগ ও ঢাকা মেট্রো এবং চট্টগ্রামে খুলনা ও রংপুরের মধ্যকার ম্যাচ শুরু হওয়ার কথা ছিল শনিবার সাড়ে নয়টায়। কিন্তু বিরূপ আবহাওয়ায় একটি ম্যাচও হয়নি। একটি বলও মাঠে গড়ায়নি। এমনটি যদি লীগের শেষপর্বের শেষদিন পর্যন্ত চলে, তাহলে খুলনাই চ্যাম্পিয়ন হয়ে যাবে। খুলনা, ঢাকা বিভাগ ও ঢাকা মেট্রোর মধ্যেই মূলত চ্যাম্পিয়ন হওয়ার প্রতিদ্বন্দ্বিতা হচ্ছে। খুলনা ৪৭, ঢাকা মেট্রো ৪১ ও ঢাকা বিভাগ ৪০ পয়েন্ট পেয়েছে। আর এ স্তর থেকে রংপুর পেয়েছে ৩০ পয়েন্ট। রংপুরের দ্বিতীয় স্তরে নেমে যাওয়া নিশ্চিত। খুলনা ও দুই ঢাকার মধ্যে যে দল জিতবে তাদেরই শিরোপা জেতার সম্ভাবনা বেশি ছিল। কিন্তু এখন খেলাই হচ্ছে না। খেলা না হলে স্বাভাবিকভাবেই খুলনাই শিরোপা ঘরে তুলবে।

দ্বিতীয় স্তর ॥ লীগের শেষ রাউন্ডে নামার আগেই বরিশালের ৫৩ পয়েন্ট জমা ছিল। একটি দল এক ম্যাচ থেকে বোনাসসহ সর্বোচ্চ ১৮ পয়েন্ট পেতে পারে। সেই হিসেবে শিরোপা জেতার ক্ষেত্রে বরিশালের প্রতিদ্বন্দ্বী দলটি ছিল রাজশাহী। তাদের পয়েন্ট ছিল ৩৭। সিলেটের পয়েন্ট ছিল ৩৫। অর্থাৎ রাজশাহীর সঙ্গে ১৬ ও সিলেটের সঙ্গে ১৮ পয়েন্টের পার্থক্য রয়েছে বরিশালের। বরিশাল কোন পয়েন্ট না পেলে আর রাজশাহী পুরো ১৮ পয়েন্ট (জয়ে ১০ পয়েন্ট, ব্যাটিং বোনাস ৪ পয়েন্ট, বোলিং বোনাস ৩ পয়েন্ট ও প্রথম ইনিংসে লিড নিয়ে ১ বোনাস পয়েন্ট) পেলে রাজশাহীই চ্যাম্পিয়ন হত। কিন্তু শাহরিয়ার ও রাব্বি মিলে এমন দুর্দান্ত ব্যাটিংই করলেন যে, আজই বরিশাল আর ২৭ রান স্কোরবোর্ডে যোগ করলেই শিরোপা উৎসব করা শুরু করে দেবে। তখন ৩ পয়েন্ট পেয়ে যে বরিশালের ৫৬ পয়েন্ট হয়ে যাবে। রাজশাহী তখন ১৮ পয়েন্ট পেলেও কাজ হবে না। বরিশাল ধরাছোঁয়ার বাইরে চলে যাবে। শাহরিয়ার ও রাব্বি মিলে দ্বিতীয় উইকেটে ২৭০ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়ে বরিশালকে শিরোপার দ্বারপ্রান্তে নিয়ে গেছেন। খুলনায় দুর্দান্ত খেলছে। সিলেটকে ১৭৬ রানেই অলআউট করে দিয়েছে। মাইনুল ও সানজামুল ৩ উইকেট করে নিয়েছেন। নাসুম সর্বোচ্চ ৫৯ রান করেছেন। পরে প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে ২ উইকেট হারিয়ে ৪২ রান করেছে রাজশাহী। শেষ রাউন্ডে এসে জ্বলে উঠলেও কাজ হয়ত হবে না রাজশাহীর। বরিশাল যে আজই শিরোপা উৎসব করে ফেলতে পারে।

স্কোর ॥ প্রথম দিন শেষে। দ্বিতীয় স্তর ॥ বরিশাল-চট্টগ্রাম ম্যাচ ॥ বরিশাল প্রথম ইনিংস ৩২৩/১; (শাহরিয়ার ১৫৮*, রাব্বি ১২৮*, শাহিন ২৫)।

রাজশাহী-সিলেট ম্যাচ ॥ সিলেট প্রথম ইনিংস ১৭৬/১০; ৬০.৩ ওভার (নাসুম ৫৯, এজাজ ২০, রুমন ১৯, সায়েম ১৮; মইনুল ৩/২০, সানজামুল ৩/৩৯।

রাজশাহী প্রথম ইনিংস ৪২/২; ৮.১ ওভার (জুনায়েদ ২৯, ফরহাদ হোসেন ১০)।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: