মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১০ আশ্বিন ১৪২৪, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

রংপুরে দিলশান

প্রকাশিত : ১ নভেম্বর ২০১৫
রংপুরে দিলশান

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ‘প্লেয়ার্স বাই চয়েজে’র আগেই শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটার তিলকারতেœ দিলশানকে নিয়ে সমস্যা তৈরি হয়। চিটাগাং ভাইকিংস ও রংপুর রাইডার্স- দুই দলই দিলশানকে নিজেদের দাবি করে। দুই দলই বলে তাদের সঙ্গে চুক্তি হয়েছে। আর তাই ২২ অক্টোবর ‘প্লেয়ার্স বাই চয়েজে’র দিনেও দিলশান কোন দলে খেলছেন তার কোন সমাধান মিলেনি। এমনকি এখন পর্যন্ত কোন সুরাহা হচ্ছে না। যতদূর জানা গেছে, দিলশান খেলতে চান রংপুর রাইডার্সের হয়ে।

কিন্তু তা কী সম্ভব? বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) থেকেই যে জানা যাচ্ছে, চিটাগাং ভাইকিংস থেকেই পারিশ্রমিক নিয়েছেন দিলশান। তাই নিয়ম অনুযায়ী চিটাগাংয়েই খেলার কথা দিলশানের। কিন্তু এখানে একটু ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে। আর সেই ভুলে শেষ পর্যন্ত দিলশানকে নাও পেতে পারে চিটাগাং।

ভুলটি কী? শনিবার জানিয়েছেন বিসিবির পরিচালক ও মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস। বলেছেন, ‘চিটাগাং থেকে দিলশান ঠিকই পেমেন্ট নিয়েছেন। তবে সেটি ভুল করে নিয়েছেন। দিলশান বকেয়া ভেবেই পেমেন্ট নিয়েছেন।’ অথচ চিটাগাংয়ে নয়, বিপিএলের দ্বিতীয় আসরে দিলশান খেলেছেন ঢাকার হয়ে।

তাহলে এমন ভুল হল কিভাবে? সেই সমস্যার সমাধান এখন আজকালের মধ্যে মিলে যাবে বলেও জানিয়েছেন জালাল ইউনুস। বলেছেন, ‘আমরা দুই দলেরই চুক্তিপত্রগুলো দেখব। এগুলো পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখব কোনটা বৈধ। কার দাবি যৌক্তিক। এগুলো দেখে রবি কিংবা সোমবারের মধ্যে সিদ্ধান্ত দিয়ে দেব।’ তবে এও বলে রাখলেন জালাল ইউনুস, ‘দিলশান ইতিমধ্যেই রংপুরের হয়ে চুক্তি সই করেছেন। তিনি রংপুরেই খেলার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। এখন রংপুরের হয়েই খেলতে চাচ্ছে দিলশান। সে বলেছে, ‘যদি সমস্যা হয়, আমি টাকা ফেরত দিয়ে দেব। তবুও রংপুরের হয়েই খেলতে চাই।’ দিলশান যদি শেষ পর্যন্ত রংপুরের হয়েই খেলার আশা প্রকাশ করেন তাহলে স্বাভাবিকভাবেই বোঝা যায়, রংপুরেই খেলবেন এ ক্রিকেটার। চিটাগাং ভাইকিংস দিলশানকে দিলেও নিশ্চয়ই এখন খেলবেন না। কিন্তু চিটাগাং ভাইকিংস কী তা মানবে? বিপিএলের স্বার্থে মেনেও যেতে পারে। কিন্তু যদি না মানে তাহলে কী হবে? বিপিএল গবর্নিং কাউন্সিলের একটি সূত্রে জানা গেছে, দিলশানের বিপিএলে নাও খেলা হতে পারে তখন। সমস্যা তাহলে দিলশান নিজেই তৈরি করে ফেললেন।

‘প্লেয়ার্স বাই চয়েজে’র দিনই দিলশানকে নিয়ে যে ঝামেলা হতে যাচ্ছে তা বোঝা গিয়েছিল। চিটাগাং ভাইকিংসের মালিক আবদুল ওয়াহেদ বলেছিলেন, ‘১০ তারিখের (অক্টোবরের) আগেই দিলশান আমাদের সঙ্গে চুক্তি করেছে। তাকে চুক্তির কিছু অর্থও দেয়া হয়ে গেছে।’ রংপুর রাইডার্সের মালিক মুস্তফা রফিকুল ইসলামও দাবি করেছিলেন দিলশান তাদের, ‘আমাদের সঙ্গে দিলশানের চুক্তি হয়েছে। লিখিত চুক্তি। সঙ্গে সিলও আছে।’

বিপিএল গবর্নিং কাউন্সিলের সদস্য সচিব ইসমাইল হায়দার মল্লিক এ বিষয়ে বলেছিলেন, ‘যেহেতু দুই দলই দাবি করছে দিলশানের সঙ্গে চুক্তি হয়েছে, তা খতিয়ে দেখতে হবে। চুক্তির কাগজপত্র দেখতে হবে। এরপর সিদ্ধান্ত নিতে হবে। তবে এ বিষয়ে একটু ভালভাবেই দেখতে হবে। এখন পর্যন্ত যে অবস্থা আছে তাতে দিলশানই দোষী যদি দুই দলের সঙ্গেই চুক্তি করে থাকে। তবে দেখা গেল একটি দল চুক্তি করল। কিন্তু দিলশানকে অর্থ দেয়ার তারিখ থাকল ১০ তারিখ, সেই অনুযায়ী দলটি অর্থ দিল না। তখন দিলশান অন্য দলের সঙ্গে চুক্তি করে ফেলতেই পারে। সেক্ষেত্রে দিলশানের কোন দোষ থাকবে না। এ বিষয়ে দুই দলের চুক্তিই ভালভাবে দেখে সিদ্ধান্ত দিতে হবে।’ কিন্তু এখন দেখা যাচ্ছে দিলশান পেমেন্ট নিয়েছেন। সেটি গত আসরের বকেয়া পেমেন্ট হিসেব করে। কিন্তু চিটাগাং কিংসতো ঠিকই এ আসরের হিসেবেই পেমেন্ট করেছে। দিলশান এখন রংপুরে খেলতে চান। এর সমাধান এখন বিপিএল গবর্নিং কাউন্সিলকেই বের করতে হবে।

প্রকাশিত : ১ নভেম্বর ২০১৫

০১/১১/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: