১৮ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

গণজাগরণের বিক্ষোভ


গণজাগরণের বিক্ষোভ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ জাগৃতি প্রকাশনীর স্বত্বাধিকারী ফয়সাল আরেফিন দীপনকে হত্যার প্রতিবাদে শাহবাগে প্রতিবাদ মিছিল ও বিক্ষোভ করেছে গণজাগরণ মঞ্চ। সংগঠনটির মুখপাত্র ইমরান এইচ সরকারের নেতৃত্বে কর্মীরা মিছিলে অংশ নেন। এ মিছিল থেকে দীপনকে হত্যা এবং শুদ্ধস্বর প্রকাশনীতে হামলা চালিয়ে এর স্বত্বাধিকারী টুটুলসহ তিনজনকে কুপিয়ে আহত করার প্রতিবাদ করা হয়। মিছিল শেষে এসব ঘটনার প্রতিবাদে আজ রবিবার দেশজুড়ে বিক্ষোভ কর্মসূচী ঘোষণা করা হয়। রাজধানীর শাহবাগে বিকেল তিনটায় এ কর্মসূচী অনুষ্ঠিত হবে।

প্রসঙ্গত শনিবার বিকেলে অজ্ঞাত দুর্বৃত্তদের হাতে নিজ কার্যালয়ে নির্মমভাবে নিহত হন জাগৃতি প্রকাশনীর স্বত্বাধিকারী ফয়সাল আরেফিন দীপন। শাহবাগের আজিজ সুপার মার্কেটের ৩য় তলার উত্তর-পূর্ব কোণের গলিতে এ ঘটনা ঘটে।

শুধু লেখক কিংবা ব্লগার নয়, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসীদের ওপরই হামলা হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ডাঃ ইমরান এইচ সরকার। শনিবার বিকেলে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন হামলার শিকার আহত তিনজনকে দেখতে এসে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

ইমরান এইচ সরকার বলেন, সারাদেশে এখন হাজার হাজার মানুষ গভীর নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। কিন্তু কোন বিচার হচ্ছে না। আসলে সরকারের একটি গ্রুপ এখানে মদদ দিচ্ছে। তা না হলে দ্রুতই এসব হত্যার বিচার হয়ে যেত। বার বার এসব ঘটনা ঘটত না।

বিদেশীদেরও হত্যা করা হচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, কেউই তেমন নিরাপদ নন। হত্যা তো বিদেশীদেরও হচ্ছে। আসলে শুধু ব্লগার নয়, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসীদের ওপরই হামলা হচ্ছে। এই পর্যন্ত চারজন ব্লগারকে খুন করা হয়েছে। আজও তিনজনকে আহত করা হলো। মুক্ত চিন্তার ব্লগারদের ওপর হামলার বিষয়ে কথা বলতে গিয়ে গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র আরও বলেন, সরকারের ভেতর থেকে পৃষ্ঠপোষকতা না থাকলে এভাবে একের পর এক হত্যাকা- সম্ভব না। হত্যাকা-ের পর আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী নির্লিপ্ত থাকছে।

ইমরান আরও বলেন, তারা (আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী) প্রকৃত অপরাধীদের না ধরে ব্লগাররা কে কী লিখছে, কে কী বলছে তা নিয়ে ব্যস্ত থাকছে। এতে প্রকৃত অপরাধীরা আড়ালে থেকে যাচ্ছে এবং একের পর এক হত্যাকা- ঘটিয়ে যাচ্ছে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: