২২ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

নীলফামারীতে বাল্য বিয়ে প্রতিরোধ


স্টাফ রির্পোটার, নীলফামারী॥ ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে সপ্তম শ্রেনীর এক ছাত্রীর বাল্য বিয়ে প্রতিরোধ করা হয়েছে। এ সময় বাল্য বিয়ের আসর থেকে পালিয়ে গেছে বর সহ বরযাত্রী ও কনের অভিভাবকরা। শুক্রবার রাত ১১টার দিকে ঘটনাটি ঘটে নীলফামারী সদরের টুপামারী ইউনিয়নের কামারপাড়া গ্রামে।

নীলফামারীর সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা ও ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট সাবেত আলী জানান,টুপামারী ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়াডের কামারপাড়া গ্রামের একরামুল হকের মেয়ে সপ্তম শ্রেনীর ছাত্রী রেখা আক্তারের সাথে পাশ্ববর্তী ইটাখোলা ইউনিয়নের চৌধুরীপাড়া গ্রামের আব্দুর রউফের ছেলে মিঠুন মিয়া (১৮) মধ্যে বাল্য বিয়ের আয়োজন চলছে এবং বরযাত্রী কনের বাড়িতে অবস্থান করছে। এই খবর পেয়েই তাৎক্ষনিকভাবে নীলফামারী থানা থেকে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়।

নীলফামারী থানার এসআই তপন কুমার রায় জানান সঙ্গীও ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌচ্ছার আগেই কনের বাড়ির লোকজন এবং বর সহ বরযাত্রী বিয়ের প্রস্তুতির আসর ছেড়ে পালিয়ে যায়। সেখানে ইউপি চেয়ারম্যানকে ঘটনাস্থলে ডেকে আনা হয়। সেখানে উপস্থিত ইউনিয়নে নিকাহ রেজিষ্টাড( কাজী) আফতাব উদ্দিন জানান ছেলে মেয়ের বিয়ের বয়স হয়েছে জানিয়ে তাকে বিয়ে কাবিনের জন্য ডেকে আসা হয়েছিল।টুপামারী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মছিরত ফকির শাহ বলেন তার এলাকায় বাল্য বিয়ে হচ্ছে সেটি তার জানা ছিল না।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: