২০ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

ফেসবুক সব জানে


একজন ব্যবহারকারী তার নিজের সম্পর্কে যতটা না জানেন, ওই ব্যবহারকারীর সম্পর্কে তার চেয়েও ‘বেশি জানে’ সামাজিক যোগাযোগের শীর্ষ মাধ্যম ফেসবুক। বিষয়টি ঠিক বিশ্বাসযোগ্য মনে না হলেও, এই কথা বলার পেছনের যৌক্তিক ব্যাখ্যা এক প্রতিবেদনে তুলে ধরেছে প্রযুক্তিবিষয়ক সাইট টেকক্রাঞ্চ। টেকক্রাঞ্চ জানিয়েছে, ব্যবহারকারী ফেসবুকে লগইন করার পর থেকে নিউজফিডের কোন পোস্টটিতে লাইক দিচ্ছেন, কোনটি এড়িয়ে যাচ্ছেন, কোন পোস্টে ইতিবাচক, আর কোনটিতে নেতিবাচক মন্তব্য প্রকাশ করছেন, মেসেঞ্জারের মাধ্যমে কাকে কী মেসেজ পাঠাচ্ছেন, কী ধরনের ছবি পোস্ট করছেন ইত্যাদি সব ডেটাই ফেসবুক নিজ সংগ্রহে রাখে। বিষয়টি যদি তাই হয়, তাহলে একবার চিন্তা করে দেখুন বর্তমানে ফেসবুকের কী পরিমাণ ব্যবহারকারী রয়েছে এবং প্রতিষ্ঠানটি প্রতিনিয়ত কত মানুষের ব্যক্তিগত ডেটা সংগ্রহ করছে। ইতোমধ্যেই ব্যবহারকারীরা নিজেদের যে পরিমাণ ব্যক্তিগত ডেটা স্বেচ্ছায় ফেসবুককে দিয়েছেন, তাতে প্রতিষ্ঠানটি সহজেই ব্যবহারকারীর একটি ‘ডিজিটাল চিত্র’ দাঁড় করিয়ে ফেলতে পারে বলে জানিয়েছে টেকক্রাঞ্চ। ব্যাপারটি আরও ভালভাবে বুঝাতে সাইটটি একটি উদাহরণ দিয়েছে। ধরে নেয়া যাক, আপনি একজন ফেসবুক ব্যবহারকারী। অনেকদিন ধরে ফেসবুক ব্যবহার করছেন। আপনার দেয়া ডেটার মাধ্যমে ফেসবুক সহজেই নির্ণয় করতে পারবে, আপনি নেতিবাচক নাকি ইতিবাচক মনোভাব পোষণ করেন, আপনার চাকরি করার ইচ্ছা রয়েছে নাকি আপনার আগ্রহ ব্যবসার দিকে। ঠিক এ রকমভাবে আপনি কর্মঠ নাকি অলস, আপনার রাজনৈতিক ও ধর্মীয় চিন্তাধারা, ব্যক্তিগত পছন্দ-অপছন্দ ইত্যাদি কোন কিছুই বের করতে ফেসবুকের খুব বেশি সময় লাগবে না।

দেখা যাবে কোন সমস্যার সমাধান আপনি কীভাবে করতে পারেন, তা আপনার দেয়া ডেটার মাধ্যমেই হিসাব করে আপনার আগেই বের করে ফেলতে পারবে ফেসবুক! অনেকেই হয়ত এক্ষেত্রে মনে করতে পারেন, এ্যান্ড্রয়েডের মাধ্যমে গুগল প্রতিনিয়ত ব্যবহারকারীদের আরও বেশি ডেটা সংগ্রহ করছে, তাহলে শুধু ফেসবুকই কীভাবে ব্যবহারকারীর ডিজিটাল চিত্র তৈরি করতে পারে? উত্তর খুবই সহজ বলে জানিয়েছে টেকক্রাঞ্চ। গুগল ব্যবহারকারীদের যে ডেটাগুলো সংগ্রহ করতে পারে তা এতটা ব্যক্তিগত নয়। অন্যদিকে ফেসবুক যে ডেটাগুলো সংগ্রহ করার সুযোগ পায় তা ‘সম্পূর্ণই ব্যক্তিগত’।