মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২২ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৭ আশ্বিন ১৪২৪, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

দুই বছর পর উসমান খাজা

প্রকাশিত : ৩১ অক্টোবর ২০১৫
দুই বছর পর উসমান খাজা

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ঠিক দুই বছর পর অস্ট্রেলিয়ার টেস্ট দলে ফিরেছেন পাকিস্তানী বংশোদ্ভূত দেশটির প্রথম মুসলিম ক্রিকেটার উসমান খাজা। ঘরের মাটিতে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে আসন্ন সিরিজের দলে নেয়া হয়েছে তরুণ জো বার্নসকেও। ফলে জায়গা হারিয়েছেন ক্যামেরন ব্যানক্রফট ও শন মার্শ। একাধিক কারণে সিরিজটি আলোচিত। ইংল্যান্ড সফরে এ্যাশেজ ভরাডুবির দায় মাথায় নিয়ে নেতৃত্ব এবং দল দুই-ই ছেড়েছেন মাইকেল ক্লার্ক। অবসরে ক্রিস রজার্স, ব্রাড হ্যাডিন, শেন ওয়াটসনসহ এক ঝাঁক তারকা। তরুণ অস্ট্রেলিয়ার নেতৃত্বে স্টিভেন স্মিথ। তার ওপর দরজায় কড়া নাড়া সিরিজে একটি ম্যাচ হবে দিবারাত্রির। এ্যাডিলেড ওভালে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে ফ্লাডলাইটের কৃত্রিম আলোয় নতুন ইতিহাসে প্রবেশ করবে টেস্ট ক্রিকেট।

বৃহস্পতিবার ব্রিসবেনের গ্যাবায় প্রথম টেস্ট দিয়ে শুরু দুই তাসমান প্রতিবেশীর মধ্যকার সাদা পোশাকের দ্বৈরথ। পার্থে দ্বিতীয় টেস্ট ১৩ নবেম্বর থেকে। আর ঐতিহাসিক দিবারাত্রির টেস্টটি ২৭ নবেম্বর থেকে। উসমান খাজা আধুনিক অস্ট্রেলিয়ার অন্যতম আলোচিত ক্রিকেটার। ২০১১ সালের শুরুতে প্রথম মুসলিম ক্রিকেটার হিসেবে অস্ট্রেলিয়া টেস্ট দলে সুযোগ পান। ঘরোয়া ক্রিকেটে নিউ সাউথ ওয়েলস ও সিডনি থান্ডারের হয়ে দুরন্ত পারফর্ম করে প্রতিভার স্বাক্ষর রাখেন। কিন্তু জাতীয় দলে পাওয়া সুযোগটা সেভাবে কাজে লাগাতে পারেননি। চার বছরে খেলেছেন ৯ মাত্র টেস্ট এবং ৩ ওয়ানডে। অস্ট্রেলিয়া ‘এ’ দলের হয়ে সম্প্রতি ভারত সফরে চমৎকার ব্যাটিং করেন।

সফরকারী নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ) একাদশের হয়ে হাঁকিয়েছেন দারুণ এক সেঞ্চুরি (১১১)। ড্র ম্যাচে সামনে থেকে নেৃতৃত্বও দিয়েছেন তিনি। ২৮ বছর বয়সী খাজাকে তাই দলে ফেরালেন সিএর নির্বাচকরা। ১২ সদস্যের দলটি বেছে নেয়া হয়েছে প্রথম দুটি টেস্টের জন্য। ধারণা করা হচ্ছে রেখে যাওয়া ক্লার্কের তিন নম্বর পজিশনে ব্যাট করার সুযোগ পাবেন খাজা। তাকে জায়গা ছেড়ে দিতে চার নম্বরে নেমে যাবেন স্মিথ। ওপেনিংয়ে ডেডিভড ওয়ার্নারের সঙ্গী হবেন বার্নস। ২৬ বছর বয়সী কুইন্সল্যান্ডের এই ডানহাতি ব্যাটসম্যানের টেস্ট অভিষেক গত বছর ডিসেম্বরে, ঘরের মাটিতে ভারতের বিপক্ষে দুটি টেস্ট খেলেছেন তিনি।

বার্নসের অন্তর্ভুক্তি সম্পর্কে প্রধান নির্বাচক রডনি মার্শ বলেন, ‘সম্প্রতি সব ধরনের ক্রিকেটে ভাল করেছে। সে প্রতিভাবান ব্যাটসম্যান। আমরা একসঙ্গে পাঁচ-ছয় অভিজ্ঞ ক্রিকেটারকে হারিয়েছি। সুতরং ভবিষ্যতের কথা ভেবেই বার্নসে নেয়া হয়েছে।’ তবে ব্যানক্রাফটের জন্য দরজা খোলা থাকবে বলে মন্তব্য করেন রড মার্শ। ঘরোয়া ক্রিকেটে ভাল করে ফেরার সুযোগ থাকবে তার। এই সিরিজে অস্ট্রেলিয়ার জন্য সুসংবাদ। ইনজুরি কাটিয়ে ফিরেছেন তারকা ওপেনার ওয়ার্নার। এ্যাশেজে ইনজুরিতে পড়ায় বাদ হয়ে যাওয়া বাংলাদেশ সফরের দল থেকে ছিটকে গিয়েছিলেন তিনি। বিশ্রাম শেষে নিউজিল্যান্ড সিরিজে ফিরেছেন দুই পেসার মিচেল জনসন আর জস হ্যাজলউডও।

নিরাপত্তার অজুহাত তুলে শেষ মুহূর্তে বাংলাদেশ সফর বাতিল করে অস্ট্রেলিয়া। এ্যাশেজ শেষে ক্লার্ক সরে যাওয়ায় নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ দিয়ে তাই পুরোপুরি স্টিভেন স্মিথ-যুগে প্রবেশ করতে যাচ্ছে অস্ট্রেলিয়া।

অস্ট্রেলিয়া টেস্ট দল ॥ স্মিথ (অধিনায়ক), ওয়ার্নার, বার্নস, খাজা, ভোগস, মিচেল মার্শ, পিটার নেভিল (উই.) মিচেল জনসন, মিচেল স্টার্ক, সিডল, লেয়ন ও হ্যাজলউড।

প্রকাশিত : ৩১ অক্টোবর ২০১৫

৩১/১০/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



শীর্ষ সংবাদ: