মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১১ আশ্বিন ১৪২৪, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

নাটোরে অত্যাশ্চার্য বিদ্যুত উৎপাদন যন্ত্র আবিষ্কার

প্রকাশিত : ৩১ অক্টোবর ২০১৫

সংবাদদাতা, নাটোর, ৩০ অক্টোবর ॥ জেলার বড়াইগ্রাম উপজেলার তরুণ উদ্ভাবক জালাল উদ্দিন দীর্ঘ গবেষণায় সফল হয়েছেন বিদ্যুত উৎপাদনে। তিনি তৈরি করেছেন খরচ সাশ্রয়ী বিদ্যুত উৎপাদন যন্ত্র। অভিনব বিদ্যুত উৎপাদন যন্ত্রটিতে ১০ মিনিট জ্বালানি ব্যবহারের পর যন্ত্রটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে বিদ্যুত উৎপাদন শুরু করে। উদ্ভাবকরা দাবি করেন, প্রয়োজনীয় সহযোগিতা পেলে মাত্র ২০ পয়সা ইউনিট খরচে জাতীয় গ্রিডে বিদ্যুত দেয়া সম্ভব।

সরেজমিনে নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলার পাঁচবাড়ীয়া গ্রামে গিয়ে দেখা যায় ওই গ্রামের জালাল উদ্দিন ভাড়া বাড়িতে বিদ্যুত উৎপাদন যন্ত্র স্থাপন করেছেন। জালাল উদ্দিন জানান, তার এই যন্ত্রটি তৈরি করতে ৫৫ লাখ টাকা ব্যয় হয়েছে। নিজের অত টাকা না থাকায় তিনি স্থানীয় দু’একজন ব্যবসায়ীকে নিয়ে গঠন করেন জুনাইদ পাওয়ার লিমিটেড কোম্পানি। এরপর তারা প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি স্থাপন করে বর্তমানে পরীক্ষামূলকভাবে ২৫০ কিলোওয়াট বিদ্যুত উৎপাদন করছেন।

জালাল উদ্দিন জানান, তিনি ১৯৭৪ সালে ১ আগস্ট সিরাজগঞ্জ জেলার শাহজাদপুর থানার প্রত্যন্ত গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি পূর্বে একটি ব্যাটারি কোম্পানিতে কর্মরত ছিলেন। তখন থেকেই কিভাবে কম খরচে বিদ্যুত উৎপাদন করা যায় সে বিষয়ে চেষ্টা করতে থাকেন। তিনি জানান, বাংলাদেশের বিদ্যুত চাহিদা সম্পূর্ণরূপে নিরসন করার লক্ষ্যে ফ্লাই হুইল এনার্জি, ইলেকট্রিক্যাল এনার্জি, রেটিও এনার্জি, এ্যাসেন্ট এ্যান্ড ডিসেন্ট এনার্জি, লেভেল এনার্জি, গ্র্যাভিটেশন এনার্জি এ্যান্ড মেকানিক্যাল এনার্জিসহ নানা প্রকার বিদ্যুত শক্তির সমন্বয় করে বিদ্যুত উৎপাদন যন্ত্র আবিষ্কার করেন যার নাম দিয়েছেন ফিরেল জেম মেশিন। তিনি দাবি করেন, তার এই প্রযুক্তিতে উদ্ভাবিত মেশিন বিশ্বে প্রথম। আবিষ্কৃত যন্ত্রটিতে প্রথমে বাইরের যে কোন শক্তি জ্বালানি হিসেবে ১০ মিনিট ব্যবহার করার পর পুনঃচক্রকারে (রিসাইক্লিং) পদ্ধতিতে ৪০ ভাগ বিদ্যুত মেশিনের জ্বালানি শক্তি হিসেবে ব্যবহার করে অবশিষ্ট ৬০ ভাগ বিদ্যুত বিক্রয় করা বা জাতীয় গ্রিডে সঞ্চালন করা যাবে। আবিষ্কৃত মেশিনের বিদ্যুত উৎপাদনে আউটপুট ৩.২ ভাগ। এই প্রযুক্তির বিদ্যুত উৎপাদন সম্পূর্ণ বায়ু ও শব্দ দূষণমুক্ত। জালাল উদ্দিন জানান, প্রতি ৫ মেগাওয়াট বিদ্যুত উৎপাদন মেশিন তৈরি করতে খরচ পড়বে দেড় মিলিয়ন মার্কিন ডলার। মেশিনের ওয়েস্টেজ এবং পরিচালনা খরচসহ ইউনিট প্রতি উৎপাদন খরচ পড়বে মাত্র ২০ পয়সা।

গ্যাস, ডিজেল, ফার্নেস ওয়েল, সোলার, জলবিদ্যুত বা পরমাণু বিদ্যুতের মাধ্যমে বিদ্যুত উৎপাদনের চেয়ে তার উদ্ভাবিত পদ্ধতিতে বিদ্যুত উৎপাদন খরচ অনেক কম। তিনি দাবি করেন, জুনায়েদ পাওয়ার লিমিটেড এই প্রক্রিয়ায় বিদ্যুত তৈরি করে জাতীয় চাহিদা পূরণ করতে সক্ষম।

জুনাইদ পাওয়ার লিমিটেডের ইঞ্জিনিয়ার হুসেন আলী জানান, একবার মেশিন স্টার্ট করলে মেইন সুইচ অফ না করা পর্যন্ত বিদ্যুত উৎপাদন অব্যাহত থাকে। তিনি এই মেশিনের মাধ্যমে জাতীয় বিদ্যুত সমস্যার সমাধানে আশাবাদী। এক্ষেত্রে প্রয়োজন সরকারী বা বেসরকারী সহযোগিতা।

প্রকাশিত : ৩১ অক্টোবর ২০১৫

৩১/১০/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



শীর্ষ সংবাদ: