১৯ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই ঘন্টায়  
Login   Register        
ADS

রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে বন্ধ হয়ে গেছে সিলেটের দুটি ফোয়ারা


রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে কিছুদিন চলার পর আবারও বন্ধ হয়ে গেছে সিলেটের নাইওরপুল ও শাহী ঈদগাহ পয়েন্টের দুটি ফোয়ারা। আর হুমায়ুন রশীদ চত্বর ও কীন ব্রিজ এলাকার ফোয়ারা দুটি বন্ধ ১০ বছর ধরে। নিরাপত্তা প্রহরী না থাকায় এগুলোর মূল্যবান যন্ত্রাংশ চুরি হয়ে গেছে। কর্তৃপক্ষের খাম খেয়ালিপনায় হারিয়েছে জৌলুস ও সৌন্দর্য। মরহুম স্পীকার হুমায়ুন রশীদ চৌধুরীর স্মৃতি ধরে রাখতে দক্ষিণ সুরমায় সিলেটের প্রবেশ মুখে গোল চত্বর নির্মাণ করে দৃষ্টিনন্দন ফোয়ারা স্থাপন করা হয়। ২০০৪ সালে জেলা পরিষদ ফোয়ারাটি নির্মাণ করে রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব তুলে দেয় সিটি কর্পোরেশনের হাতে। কিন্তু তাদের খাম খেয়ালিপনায় ফোয়ারাটি কিছুদিন পরই বন্ধ হয়ে যায়। কোন প্রহরী না থাকায় ফোয়ারার মূল্যবান যন্ত্রাংশ চুরি হয়ে যায়। একই অবস্থা কীন ব্রিজের পাশের দৃষ্টিনন্দন ফোয়ারারও। আর আরিফুল হক মেয়র হওয়ার পর শাহী ঈদগাহ ও নাইওরপুলের ফোয়ারা দুটি চালু করলেও এখন এগুলো বন্ধ। এতে ক্ষুব্ধ নগরবাসী। সিলেট সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এনামুল হাবিব বলছেন, এসব স্থাপনায় সার্বক্ষণিক প্রহরী নিয়োগের সামর্থ্য নেই তাদের। তবে নগর পরিকল্পনাবিদ প্রকৌশলী অধ্যাপক জহির বিন আলমের মতে, স্থানীয় কাউন্সিলরদের তত্ত্বাবধানে সামাজিক সংগঠনগুলোকে রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব দিলে ভালভাবেই চলবে ফোয়ারাগুলো। সিলেটকে পর্যটন নগরী বলা হলেও ভ্রমণকারীদের আকৃষ্ট করতে কোন উদ্যোগ নেই কর্তৃপক্ষের। বরং অযতœ অবহেলায় ঐতিহাসিক স্থাপনাগুলো আজ বিলুপ্তির পথে। Ñস্টাফ রিপোর্টার