১৯ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

সেলিম-রিচির ‘ফেরা না ফেরার মাঝখানে’


সেলিম-রিচির ‘ফেরা না ফেরার মাঝখানে’

সংস্কৃতি ডেস্ক ॥ এটিএন বাংলায় আজ শনিবার রাত ৮-৪৫ মিনিটে প্রচার হবে বিশেষ নাটক ‘ফেরা না ফেরার মাঝখানে’। পান্থ শাহরিয়ারের রচনায় নটকটি পরিচালনা করেছেন শহীদুজ্জামান সেলিম। অভিনয় করেছেন রিচি সোলায়মান, শহীদুজ্জামান সেলিম প্রমুখ।

নাটকের গল্পে দেখা যাবে রুদ্র ও নবনিতা আজ এখানে বসেছে নিজেদের মধ্যে গড়ে ওঠা সম্পর্কটার পরিণতি টানতে। আর সব তরুণ তরুণীর মতো এতদিন তাদের সম্পর্কটা বেশ ভালই যাচ্ছিল। সদ্য চারুকলা থেকে পাশ করা নবনিতা এখন একটা ছোট্ট ফ্ল্যাট গুছিয়ে নিয়ে একাই থাকে। আসলে গুছিয়ে নেয়ার চেয়ে বেশি অপেক্ষা করছিল কানাডা থেকে অনিন্দ্যর ফিরে আসবার। অনিন্দ্য আর নবনিতা একে অপরকে ভীষণ ভালবাসে। এ জীবনে যতগুলো পোট্রেট নবনিতা এঁকেছে তার বেশিরভাগই অনিন্দ্যর। আশপাশের মানুষজন, দোকানদার, রিকশাওয়ালা সবাই যেন জেনে গেছে এবার অনিন্দ্য কানাডা থেকে ফিরে আসলেই ওদের বিয়ে। নতুন সংসার ঢাকা শহরের সবাই জানে শুধু একটা লোক ছাড়া। সে রুদ্র। সত্যিই কি জানতো না? কিংবা না জানার ভান করছিল, নবনিতার কাছে আসার জন্য। কিন্তু সেই কলেজ জীবন, তারপর চারুকলা কতটা সময় তো একসঙ্গে কেটেছে। রুদ্র একদম অন্য ধাঁচে গড়া ছেলে। কোন সম্পর্কের বাধনেই নিজেকে আটকাতে চায় না। রুদ্র নিজেকে আলগোছে সরিয়ে রাখতে চেয়েছে পার্থিব মোহ থেকে। মানুষ চাইলেও যেমন সব পারে না তেমনি রুদ্রও পারে না। হঠাৎ করে মা মারা গেলে। অদ্ভুত শূন্যতা ঘিরে ধরলো। বন্ধুরা কিছুদিনের জন্য তাদের কাছে থাকতে বললে রাজি হয়নি রুদ্র। তবে কোন এক রাত জাগা ভোরে অজানা কারণে নবনিতার দরজায় এসে দাঁড়ায়। সম্পর্কের শুরুটা এখান থেকেই। দেখতে দেখতে কেটে যায় কয়েকটা মাস। আজ অনিন্দ্য ফিরে আসার সংবাদে দু’জনার মাঝে নিস্তব্ধতা নেমে আসে। নীরবে বসে থেকে দু’জন দুদিকে চলে যায়। অনিন্দ্য ফিরে আসে। এরপর কাহিনীতে শুরু হয় নাটকীয়তা।

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: