২৪ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

সুন্দরবনে সম্পদ আহরণ নিষিদ্ধ- বন ও পরিবেশ মন্ত্রী


সুন্দরবনে সম্পদ আহরণ নিষিদ্ধ- বন ও পরিবেশ মন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার, বাগেরহাট॥ বিশ্বখ্যাত ম্যানগ্রোভ সুন্দরবন অভয়ারণ্য। বিশ্ব ঐতিহ্য বেঙ্গল টাইগারসহ জীববৈচিত্র্য সুরক্ষায় সুন্দরবনের অভ্যন্তরে সম্পদ আহরণ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এমনকি সুন্দরবনের নদী-খালে মাছ শিকারও নিষিদ্ধ করা হয়েছে। একইসাথে “সুন্দবন পরিবেশ বান্ধব পর্যটন” বিকাশের পাশাপাশি বনজীবী প্রান্তিক জনগোষ্টিকে বিকল্প কর্মসংস্থানে ফিরিয়ে আনার উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। বন ও পরিবেশ মন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জু বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

বন ও পরিবেশ মন্ত্রী জানান, বিশ্ব ঐতিহ্য বেঙ্গল টাইগারসহ জীববৈচিত্র্য সুরক্ষায় সুন্দরবনের অভ্যন্তরে সম্পদ আহরণ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এমনকি সুন্দরবনের নদ-নদী-খালে মাছ শিকারও বন্ধ। তবে বঙ্গোপসাগরে মাছ আহরণে কোন বাধা নেই।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে বিশ্বঐহিত্য সুন্দরবন সুরক্ষায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের গত ১৫ জুন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে সুন্দরবন সুরক্ষা বিষয়ে একটি উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক অনু্ষ্িঠত হয়। এ বৈঠকে সংশ্লিষ্ট সকল বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমের রক্ষাকবচ সুন্দরবন সুরক্ষায় প্রাথমিকভাবে অন্তত ১০ বছরের জন্য সুন্দরবনে সব ধরনের বনজ সম্পদ আহরণ বন্ধের সরকারি নির্দেশের জন্য সভায় দাবি ওঠে। এর প্রেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে সুন্দরবনের সম্পদ আহরণ নিষিদ্ধ করা হল।

এদিকে, সরকারের এ উদ্যোগের প্রশংসা ও সাধুবাদ জানিয়েছেন, সুন্দরবন সমর্থক কমিটির সভাপতি আলহাজ্জ্ব লিয়াকত আলী ও সদস্য সচিব রফিকুল ইসলাম খোকন। তাঁরা বলেন, এটা যুগোপযোগী মহৎ সিদ্ধান্ত। প্রাকৃতিক রক্ষাকবজ সুন্দরবন অভয়ারণ্য হলে মনুষ্য সৃষ্ট উপদ্রব বন্ধ হবে। সুন্দরবন বাঁচবে। এজন্য সংশ্লিষ্ট সকল দপ্তরকে আন্তরিক হতে হবে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: