২০ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই ঘন্টায়  
Login   Register        
ADS

আইএফআইসি ব্যাংক থেকে বাদল অপসারিত


অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ সরকারবিরোধী আন্দোলনে নাশকতায় মদদ দেয়ার অভিযোগ এনে বেসরকারী খাতের আইএফআইসি ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদ থেকে লুৎফর রহমান বাদলকে অপসারণ করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। বৃহস্পতিবার জনকণ্ঠকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গবর্নর সচিবালয়ের মহাব্যাবস্থাপক এএফএম আসাদুজ্জামান। তিনি বলেন, গবর্নর আতিউর রহমান ব্যাংক কোম্পানি আইনের ১৯৯১-এর ৪৮ (১) ধারার আওতায় গঠিত স্থায়ী কমিটির রিপোর্টের ভিত্তিতে লুৎফর রহমানকে অপসারণের আদেশ দিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগ থেকে আইএফআইসি ব্যাংকের চেয়ারম্যান ও কোম্পানি সচিবের কাছে চিঠি পাঠিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। বিএনপি নেতা মোসাদ্দেক আলী ফালুর মালিকানায় প্রতিষ্ঠিত এনটিভির অন্যতম অংশীদার বাদলের বিরুদ্ধে আওয়ামী লীগ সরকারবিরোধী আন্দোলনের নাশকতায় মদদ দেয়ার অভিযোগ রয়েছে। বাদলকে অপসারণের ক্ষেত্রে পরিচালনা পর্ষদের সভায় টানা অনুপস্থিতির পাশাপাশি নাশকতার মামলায় পুলিশের তদন্তে নাম আসার কথাও জানিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। চিঠিতে বলা হয়েছে, গাজীপুরের জয়দেবপুর থানায় দায়ের করা এক মামলায় দেশে নাশকতা ছড়ানো এবং রাজনৈতিক অস্থিরতা সৃষ্টির লক্ষ্যে অর্থ সরবরাহের অভিযোগ ১৯৭৪ সালের বিশেষ ক্ষমতা আইনের ১৫ (৩)/২৫ (ঘ) ধারায় অপরাধ পুলিশের তদন্তে প্রাথমিকভাবে প্রমাণিত হওয়ায় এবং বিদেশে পলাতক থাকায় তাকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি। এতে আরও বলা হয়,

২০১৪ সালের ১ ডিসেম্বর থেকে ২০১৫ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের ১৮ সভায় অনুপস্থিত ছিলেন বাদল। তার অনুপস্থিতির কারণে গত বছরের ১৪ নবেম্বর থেকে এ পর্যন্ত ব্যাংকটির নির্বাহী কমিটির কোন সভা হয়নি। সরকারের ৩২ শতাংশ অংশীদারিত্ব থাকা ব্যাংকটির ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা কমিটির সভা অন্য পরিচালকদের মাধ্যমে পরিচালিত হচ্ছে। ঢাকা সিটি কলেজ থেকে স্নাতক ডিগ্রী নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে হিসাববিজ্ঞানে স্নাতকোত্তর ডিগ্রীধারী বাদল লতিফ পুঁজিবাজারের ব্রোকারেজ হাউস লতিফ সিকিউরিটিজ এবং পুঁজিবাজারে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান ‘নিউ ইংল্যান্ড ইক্যুইটি’র মালিক। বিভিন্ন সময় পুঁজিবাজারে কারসাজিতেও বাদলের নাম এসেছে। দুই বছর আগে পুঁজিবাজারে ধসের পর গঠিত খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদ নেতৃত্বাধীন তদন্ত কমিটি যাদের বিরুদ্ধে অধিকতর তদন্তের সুপারিশ করেছিল, তার মধ্যে বাদলের নামও ছিল। বাদল মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবসহ বিভিন্ন ক্রীড়া সংগঠনের সঙ্গেও যুক্ত। ঢাকা প্রিমিয়ার লীগের ক্লাব ‘লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জে’র মালিক হিসেবে গতবছর বিসিবি সভাপতিকে নিয়ে বিতর্কিত উক্তি করে আলোচনায় এসেছিলেন বাদল। তখন তাকে ক্রিকেট থেকে আজীবন নিষিদ্ধ করে বিসিবি।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: