মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১০ আশ্বিন ১৪২৪, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

মোবাইলে লেনদেন ৫শ’ কোটি টাকা ছাড়িয়েছে

প্রকাশিত : ৩০ অক্টোবর ২০১৫

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ প্রায় তাৎক্ষণিকভাবে বা অতিদ্রুত শহর থেকে গ্রামে, গ্রাম থেকে শহরে সর্বত্রই টাকা পাঠানোর সুযোগ তৈরি হওয়ায় মোবাইল ব্যাংকিং জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। বর্তমানে মোবাইল ব্যাংকিং কেবল টাকা আদান-প্রদানের মধ্যেই সীমাবদ্ধ নেই, বরং অনেক নতুন নতুন সেবা যুক্ত হয়েছে এতে। প্রতিমাসেই বাড়ছে বিভিন্ন সেবা বিল দেয়ার পরিমাণ। প্রথমবারের মতো গত সেপ্টেম্বরে দৈনিক গড় লেনদেন ৫শ’ কোটি টাকা ছাড়িয়েছে। অবশ্য লেনদেন বাড়লেও গত কয়েক মাস ধরে চালু (এ্যাকটিভ) এ্যাকাউন্টের সংখ্যা কম ছিল। সেই ধারা থেকে বেরিয়ে এসে সেপ্টেম্বরে চালু এ্যাকাউন্ট বেড়ে এক কোটি ১৭ লাখে দাঁড়িয়েছে। বর্তমানে মোবাইল ব্যাংকিংয়ে গ্রাহকসংখ্যা ২ কোটি ৯২ লাখ ছাড়িয়েছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, গত আগস্ট মাসে মোবাইল ব্যাংকিং সেবায় নিবন্ধিত গ্রাহকসংখ্যা ছিল ২ কোটি ৮৭ লাখ ৫৭ হাজার। আর সেপ্টেম্বরে তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২ কোটি ৯২ লাখ ১২ হাজারে। সেই সঙ্গে লেনদেনে সক্রিয় গ্রাহকের সংখ্যাও বেড়েছে ২২ লাখ। গত আগস্ট মাসে সক্রিয় গ্রাহকের সংখ্যা ছিল ৯৫ লাখ ৬৩ হাজার। আর সেপ্টেম্বরে তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১ কোটি ১৭ লাখ ২৭ হাজার। সেই হিসাবে মাসিক গ্রাহক সংখ্যা ২২ শতাংশ বেড়েছে। সাধারণত যেসব হিসাবে একটানা তিন মাসের বেশি লেনদেন হয় না, সেসব হিসাবকে নিষ্ক্রিয় হিসাব বলে ধরা হয়। আর অন্ততপক্ষে তিন মাসের মধ্যে একবার লেনদেন করেছে এমন হিসাবকে সক্রিয় হিসাব বলে ধরা হয়।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তথ্যমতে, গত সেপ্টেম্বরে গ্রাহক বাড়ার পাশাপাশি লেনদেনের পরিমাণও বেড়েছে। ওই মাসে মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে প্রায় ১৫ হাজার ৬৫ কোটি ৭৫ লাখ টাকার লেনদেন হয়। জুলাই মাসে যার পরিমাণ ছিল ১২ হাজার ৮৪২ কোটি টাকা। আগস্টে দৈনিক গড় লেনদেনের পরিমাণ ছিল প্রায় ৪২৮ কোটি ৫ লাখ টাকা। আর সেপ্টেম্বরে তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে প্রায় ৫০২ কোটি ১৯ লাখ টাকা। সেই হিসেবে মাসিক ও দৈনিক লেনদেন ১৭ দশমিক ৩২ শতাংশ বেড়েছে। এদিকে গ্রাহক ও লেনদেনের পাশাপাশি বেড়েছে মোবাইল ব্যাংকিং প্রতিনিধি বা এজেন্ট। আগস্টের চেয়ে সেপ্টেম্বরে এজেন্টের সংখ্যা ৮ হাজার ৫০২ জন বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫ লাখ ৪২ হাজার ৪০০ জনে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, সেপ্টম্বরে সাড়ে ৩ কোটি টাকা প্রবাসী-আয় লেনদেন হয় এই সেবার মাধ্যমে। আগস্ট মাসে মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে প্রবাসী আয় আসে ২ কোটি ৫৪ লাখ টাকা। সেপ্টেম্বর মাসে উত্তোলন করেছেন ৫ হাজার ৪৭২ কোটি ৮০ লাখ টাকা। আগস্ট মাসে ৪ হাজার ৬৮৯ কোটি ২৫ লাখ টাকা। সেপ্টেম্বর মাসে অন্যের হিসাবে পাঠিয়েছেন ২ হাজার ৪৯২ কোটি ৩৩ লাখ টাকা। আগের মাসে অন্যের হিসাবে পাঠিয়েছেন ২ হাজার ২৪৬ কোটি ৫ লাখ টাকা। সেপ্টেম্বর মাসে বেতন পরিশোধ হয়েছে ১৪৬ কোটি টাকা। আগস্ট মাসে বেতন পরিশোধ হয়েছে ১১৯ কোটি টাকা। সেপ্টেম্বর মাসে সেবা-বিল পরিশোধ হয়েছে ১৬৮ কোটি ২১ লাখ টাকা। আগের মাসে সেবা-বিল পরিশোধ হয়েছে ১১৭ কোটি ৬২ লাখ টাকা। সেপ্টেম্বর মাসে অন্যান্য খাতে পরিশোধ হয়েছে ৩১৬ কোটি ৪৭ লাখ টাকা। আগের মাসে অন্যান্য খাতে পরিশোধ হয়েছে ২৬৮ কোটি ৯৫ লাখ টাকা।

প্রকাশিত : ৩০ অক্টোবর ২০১৫

৩০/১০/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: