মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৯ আশ্বিন ১৪২৪, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

বগুড়ায় রেললাইন ঘেঁষে অবৈধ স্থাপনা

প্রকাশিত : ৩০ অক্টোবর ২০১৫
  • দেখার কেউ নেই

স্টাফ রিপোর্টার, বগুড়া অফিস ॥ বগুড়ায় রেলের ভূমি দখলের নানা প্রক্রিয়া থেমে নেই। যে যেভাবে পারছে দখল করে নিচ্ছে। রেলস্টেশনের কাছেই পূর্বদিকে হকাররা নিত্যদিন অনেকটা জায়গাজুড়ে পসরা সাজিয়ে বসেন, যার বেশির ভাগ পুরনো কাপড়ের। এমনভাবে বসে, ট্রেন অতিক্রম করার সময় মনে হবে দোকানগুলোর ভেতরে ঢুকে পড়েছে। আরও একটু এগিয়ে গেলে রেললাইনের ধারে (একেবারে গা ঘেঁষে) অবকাঠামো স্থাপনা গড়ে তোলা হয়েছে। নিয়মানুযায়ী রেলগাড়ির নিরবচ্ছিন্ন চলাচলে রেললাইনের উভয়প্রান্তে নির্দিষ্ট পরিমাণ জায়গা ছেড়ে দেয়া বাধ্যতামূলক। কেউ এ নিয়ম মানেনি। সূত্র জানায়, কখনও প্রভাবশালী ও অতি ক্ষমতাধররা জোর করে কখনও রেলের এক শ্রেণীর দুর্নীতিপরায়ন কর্মকর্তা-কর্মচারীদের প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ সহযোগিতায় রেলভূমি দখল হয়ে যাচ্ছে। বগুড়া রেলওয়ে পশ্চিমাঞ্চলীয় রেলের অধীনে, যার প্রধান অফিস রাজশাহী। তবে রেলের ভূমি দেখভালের দায়িত্ব রেলের লালমনিরহাট ডিভিশনের ওপর। আর বগুড়া রেলওয়ে পুলিশের প্রধান কার্যালয় বোনারপাড়া। সবই বগুড়ার বাইরে হওয়ায় রেলভূমি দখল হলেও তা উদ্ধার করা সহজ হয় না। মাঝে মধ্যে রেলস্টেশনের কাছে পুরনো কাপড় ছিট কাপড় ও টুকিটাকি কেনাকাটার ভ্রাম্যমাণ দোকানিদের উচ্ছেদ করা হয়। দিন কয়েকের মধ্যে অবস্থা যে তিমিরে ছিল সে তিমিরেই রয়ে যায়। আর রেলের ভূমির ওপর যে স্থাপনা নির্মিত হয়েছে তা পাকা। এসব ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে সেলামী দিয়ে ও কয়েক বছরের আগাম ভাড়া দিতে হয়েছে। তার ওপর ভাড়ার একটি অংশ বাদ রেখে প্রতিমাসে ভাড়াও গুনতে হচ্ছে। যাদের নামে ও বেনামে এসব ভূমি দখল করে অবকাঠামো গড়ে তোলা হয়েছে তারা নিজেরা দাবি করে এসব ভূসম্পত্তি রেলের কাছ থেকে লিজ নেয়া। রেল বিভাগ কখনও খতিয়ে দেখে না, কিভাবে কোন প্রক্রিয়ায় এসব ভূমি লিজ হলো। এক সূত্র জানায়, রেললাইনের ধার ঘেঁষে রেলের নিয়মে উভয়প্রান্তে অন্তত ৪০ ফুট জায়গার মধ্যে কোনভাবেই কোন ধরনের স্থাপনা নির্মাণ করা যাবে না। এ নিয়ম মানা হয়নি। এক হিসাবে দেখা যায় বগুড়ায় রেলওয়ের নিজস্ব ভূমি রয়েছে রেললাইনসহ ৬০ একরেরও বেশি, যার বেশিরভাগই দখল হয়ে গিয়েছে। কিছু জায়গা জেলা পরিষদের কাছে হস্তান্তরের অপেক্ষায় আছে।

বাউবির এসএসসি পরীক্ষা শুরু আজ

নিজস্ব সংবাদদাতা, গাজীপুর, ২৯ অক্টোবর ॥ বাংলাদেশ উ›মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের (বাউবি) ওপেন স্কুল পরিচালিত এসএসসি পরীক্ষা-২০১৪ আজ শুক্রবার থেকে শুরু হচ্ছে। এবারের এসএসসি পরীক্ষায় ১ম ও ২য় বর্ষে মোট ১ লাখ ৩৪ হাজার ৫৮১ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করছে। এর মধ্যে ১ম বর্ষে ৮৬ হাজার ৭৬১ জন এবং ২য় বর্ষে ৪৭ হাজার ৮২০ জন অংশ নিচ্ছে। সারাদেশে ৪৪১টি কেন্দ্রে একযোগে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এ পরীক্ষা শুক্রবার ও শনিবার দিনগুলোতে সকাল ও বিকেলে অনুষ্ঠিত হবে। আগামী ৪ ডিসেম্বর পরীক্ষা শেষ হবে।

নর্থ সাউথ ভার্সিটিতে সিভিল ফেস্ট ২০১৫

মঙ্গলবার নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের বসুন্ধরা ক্যাম্পাসে এনএসইউ সিভিল এ্যান্ড এনভারমেন্টাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের উদ্যোগে হয়ে গেল ‘সিভিল ফেস্ট ২০১৫’।

উদ্বোধনী পর্বে এনএসইউ ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য প্রফেসর ড. গৌর গোবিন্দ গোস্বামীর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশের তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রাক্তন উপদেষ্টা প্রফেসর ড. জামিলুর রেজা চৌধুরী। অতিথি ছিলেন এনএসইউ বোর্ড অব ট্রাস্টিজের প্রাক্তন চেয়ারম্যান এবং সদস্য বেনজীর আহমেদ। অন্যান্যের মধ্যে স্ট্যামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. ফিরোজ আহমেদ, পদ্মা সেতু প্রকল্পের প্রধান সমন্বয়ক মেজর জেনারেল আবু সাঈদ এম মাসুদ এবং নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের স্কুল অব ইঞ্জিনিয়ারিং এ্যান্ড ফিজিক্যাল সায়েন্সসের ডীন প্রফেসর ড. সিরাজুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন সিভিল এ্যান্ড এনভারমেন্টাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. জাভেদ বারী। বিজ্ঞপ্তি

প্রকাশিত : ৩০ অক্টোবর ২০১৫

৩০/১০/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

দেশের খবর



শীর্ষ সংবাদ: