মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২১ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৬ আশ্বিন ১৪২৪, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

শচীন আমাকে অবসর নিতে দেননি ॥ শেবাগ

প্রকাশিত : ৩০ অক্টোবর ২০১৫

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ আর ফেরা হবে না, বুঝে গেছেন। অনেক দিন ধরেই ভাবছিলেন ক্যারিয়ারে ইতি টানবেন, কিন্তু হয়ে উঠছিল না। তবে পেসার জহির খান পথ বাতলে দিলেন। হঠাৎ করেই অবসর নিয়ে নিলেন সব ধরনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে। আর সপ্তাহ না ঘুরতেই অবসর নিয়ে নিলেন তার দীর্ঘদিনের সতীর্থ উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান বীরেন্দর শেবাগ। তবে এই সিদ্ধান্তটি নিয়েছিলেন আরও আগেই। ২০০৭ সালে অবসরে যাওয়ার চিন্তা করলেও লিটল মাস্টার শচীন টেন্ডুলকর তাকে থামিয়েছিলেন। সেবার ভারতীয় দল থেকে বাদ দেয়া হয়েছিল শেবাগকে। আর এবার প্রায় আড়াই বছর ধরে দলের বাইরে থাকলেও গত ২০ অক্টোবর নিজের ৩৭তম জন্মদিনে অবসর নিয়ে নিলেন তিনি। কিন্তু অপেক্ষা করেছেন এবং চেষ্টা চালিয়েছেন ফেরার। ২০০৭ সালের প্রায় পুরোটা সময়ই দলের বাইরে ছিলেন শেবাগ। আর সে কারণেই সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছিলেন অবসরের। কিন্তু শচীন তাকে নিষেধ করেছিলেন এবং অপেক্ষা করতে বলেছিলেন। সেই অপেক্ষাটা বেশ কার্যকরী হয়েছিল শেবাগের জন্য। বছরের শেষ ভাগে অস্ট্রেলিয়া সফরের দলে আবার ডাক পান তিনি। এরপর দীর্ঘদিন টানা খেলেছেন। তবে ২০১৩ সালেই তার ক্যারিয়ার শেষ হয়ে যায়। অস্ট্রেলিয়া দলের ভারত সফরে টেস্ট সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে দল থেকে বাদ পড়েন বাজে ফর্মের কারণে। এরপর আর ফেরার রাস্তা খুঁজে পাননি তিনি। এ বিষয়ে শেবাগ বলেন, ‘নির্বাচকরা আর কখনই আমার ভবিষ্যত পরিকল্পনা নিয়ে কিছু জিজ্ঞেস করেননি। তারা যদি আমাকে একটা সিদ্ধান্ত জানিয়ে দিতেন তাহলে অনেক আগেই আমি অবসর নিয়ে ফেলতাম।’ অবশ্য শেবাগ অবসর ঘোষণার পর এখন ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড (বিসিসিআই) তাকে আনুষ্ঠানিকভাবে বিদায়ী সংবর্ধনা দেয়ার আয়োজন করছে। ফিরোজ শাহ কোটলা স্টেডিয়ামে সফরকারী দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে আগামী ৩ ডিসেম্বর সিরিজের চতুর্থ ও শেষ টেস্টের সময় তার বিদায়ী ভাষণ দেয়ার সুযোগ থাকছে ওই অনুষ্ঠানে। বর্তমানে ভারতীয় দল পুরোপুরি আনকোরা একটা টেস্ট দলে পরিণত হয়েছে। কারণ টেস্ট থেকেও অবসর নিয়ে ফেলেছেন একমাত্র অভিজ্ঞ মহেন্দ্র সিং ধোনি। তবে তিনি এখনও ওয়ানডে ও টি২০ ফরমেটে সমানতালে খেলে যাচ্ছেন। তবে এখনও অধিনায়ক হিসেবে ধোনিকেই সবচেয়ে উপযোগী মনে করেন শেবাগ। তিনি মনে করেন মিডলঅর্ডারের দৃঢ়তার জন্য এবং দলের সুবিধার জন্য ধোনিই সবচেয়ে কার্যকর হবেন। এ বিষয়ে শেবাগ বলেন, ‘আগামী বিশ্বকাপ পর্যন্ত তার অধিনায়ক হিসেবে দায়িত্বে থাকা উচিত। তিনি যদি সেটা পারেন সেক্ষেত্রে খুব ভাল একটা দল রেখে যেতে পারবেন। এখনও ধোনি আছে বলে ৫, ৬ ও ৭ নম্বরে কোন সমস্যা নেই এবং তিনি অবসর নিয়ে ফেললে এ তিন জায়গা একসঙ্গে শূন্য হয়ে পড়বে।

প্রকাশিত : ৩০ অক্টোবর ২০১৫

৩০/১০/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

খেলার খবর



শীর্ষ সংবাদ: