মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২০ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৫ আশ্বিন ১৪২৪, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

আন্ত:ব্যাংক লেনদেন হবে আরটিজিএস’র মাধ্যমে

প্রকাশিত : ২৯ অক্টোবর ২০১৫, ০৬:০০ পি. এম.

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ শুরুটা হয়েছিল অটোমেটিক ক্লিয়ারিং হাউজ দিয়ে আর শেষ হল রিয়েল টাইম গ্রস সেটেলমেন্ট (আরটিজিএস) ব্যবস্থা চালুর মাধ্যমে। এভাবেই সম্পন্ন হল দেশে ব্যাংকিং সেক্টরে ডিজিটালাইজেশেনের প্রথম পর্যায়ের কাজ। বাংলাদেশ ব্যাংক গভর্নর আতিউর রহমানের আশা, এভাবে এগিয়ে গেলে আমরা অদূর ভবিষ্যতে নগদ লেনদেন করতে হয়না এমন সমাজ প্রতিষ্ঠা করতে পারব। বৃহস্পতিবার রাজধানীর মতিঝিলে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তত্তাবধানে আরটিজিএস ব্যবস্থা উদ্বোধন কালে তিনি এমন আশার বাণী শোনালেন।

এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকের (এডিবি) সহায়তায় অনলাইনে তাৎক্ষণিকভাবে আন্তঃব্যাংক লেনদেনের সুবিধার্থে এ ব্যবস্থা চালু করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে দেশীয় মুদ্রা ও অন্য পাঁচটি বৈদেশিক মুদ্রায় সর্বনিম্ন এক লাখ টাকা লেনদেন এ ব্যবস্থায় সম্পন্ন করা যাবে। দেশে ৫৫টি তফসিলী ব্যাংকের প্রায় ৫ হাজার শাখায় এ সুবিধা পাওয়া যাবে।

আরটিজিএস উদ্বোধনকালে আতিউর বলেন, এ ব্যবস্থার মাধ্যমে লেনদেন সহজ ও স্বচ্ছ প্রক্রিয়ায় দ্রুত সম্পূর্ণ হবে। এর সবচেয়ে বেশি উপকৃত হবে ব্যবসায়ী ও প্রবাসিরা। এখন আর বড় অংকের লেনেদেনর ক্ষেত্রে দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করতে হবে না। রেমিট্যান্স প্রেরণকারীরা অর্থ এখন তাৎক্ষনিকভাবে দেশে পাঠাতে পারবে। প্রবাসি ও বিদেশি বিনিয়োগকারীরা সহজে দেশের সেক্রেন্ডারি বন্ড মার্কেটে বিনিয়োগ করতে পারবে।

তিনি বলেন, এখন জোর গলায় বলতে পারি আমাদের ব্যাংকিং লেনদেন ব্যবস্থা বিশ্ব মানের। ফাইন্যান্সিংয়ে ইনক্লুশনের আমরা অনেক এগিয়েছি। এখন ডিজিটাল ফাইন্যান্সিং ইনক্লুশনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছি। এই পরিকল্পনায় সহজে সব গ্রাহকের মাঝে ডিজিটাল পদ্ধিতে ব্যাংকিং সেবা পৌছে দেওয়া হবে। গভর্নর বলেন, ৫৬টি ব্যাংকের মধ্যে ৫৫টি আজ এ ব্যবস্থায় যুক্ত হচ্ছে। এটা খুবই ভালো দিক। এক সময় কেন্দ্রীয় ব্যাংক কোন ব্যবস্থা চালু করতে চাইলে তফসিলী ব্যাংকগুলোকে দীর্ঘ সময় ধরে বোঝাতে হত। আর এখন তারা নিজেরাই এগিয়ে আসছে। তিনি বলেন, আরটিজিএস চালুর মাধ্যমে আজ আমরা একটি ধাপ শেষ করেছি। পরবর্তী ধাপ হবে আরও রোমাঞ্চকর। এভাবে একদিন আমরা ক্যাশলেস সোসাইটি প্রতিষ্ঠা করতে পারব।

বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর (ডিজি) নাজনিন সুলতানার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে ডিজি আবুল কাসেম, নির্বাহী পরিচালক শুভঙ্কর শাহা ও বিভিন্ন তফসিলি ব্যাংকের প্রধান নির্বাহীরা উপস্থিত ছিলেন। আরটিজিএস প্রক্রিয়া চালুর পর অনুষ্ঠানে প্রাণ আরএফএল গ্রুপের ১ লাখ টাকা ইউসিবিএল এবং স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংকের মধ্যে লেনদেন করে দেখানো হয়।

প্রকাশিত : ২৯ অক্টোবর ২০১৫, ০৬:০০ পি. এম.

২৯/১০/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

জাতীয়



শীর্ষ সংবাদ: