১৫ ডিসেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই ঘন্টায়  
Login   Register        
ADS

সহকারী জজ আদালত ফুলছড়ি উপজেলা সদরে স্থানান্তের দাবী


সহকারী জজ আদালত ফুলছড়ি উপজেলা সদরে স্থানান্তের দাবী

নিজস্ব সংবাদদাতা, গাইবান্ধা ॥ ফুলছড়ি উপজেলা সদরের কালিরবাজারে সরকারি সিদ্ধান্তে সহকারী জজ ও জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বিচারিক আদালত স্থানান্তরের দাবীতে বৃহস্পতিবার মানববন্ধনের কর্মসূচী পালিত হয়।

ফুলছড়ি উপজেলা বিচারিক আদালত স্থানান্তর ও বাস্তবায়ন সর্বদলীয় সংগ্রাম কমিটির ডাকে কালিরবাজার উপজেলা পরিষদ সড়কের ছয় কিলোমিটার এলাকা জুড়ে এ মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করা হয়। উপজেলা সদরের সর্বস্তরের রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, ব্যবসায়ি, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি এবং বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও ছাত্রছাত্রীরা এতে অংশগ্রহণ করে। সকাল ১০টা থেকে শুরু হয়ে দুপুর ১২টা পর্যন্ত ২ ঘন্টা ব্যাপী মানববন্ধন চলাকালে বিভিন্ন রাজনীতিক, সামাজিক ও শিক্ষক নেতৃবৃন্দের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বিএনপি নেতা তোফায়েল আহমেদ, ফুলছড়ি উপজেলা মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান রাশেদা বেগম, ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল বাকী সরকার, অধ্যক্ষ ইব্রাহিম আকন্দ সেলিম, উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা গোলাম হোসেন কদ্দুস, আব্দুল করিম, মুক্তিযোদ্ধা হোসেন আলী, আবুল কালাম আজাদ, শহিদুল ইসলাম, সোলায়মান হোসেন ফুলমিয়া, বাদশা মিয়া, আলমগীর হোসেন, আজাদুল ইসলাম, আব্দুস সাত্তার, নেতা নাজিম উদ্দিন প্রমূখ।

নদী ভাঙন কবলিত দরিদ্র মানুষগুলোর দুঃখ-দুঃদশা বিবেচনা করে বর্তমান সরকার সহকারী জজ ও জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বিচারিক আদালত ফুলছড়ি উপজেলা সদরে স্থানান্তরের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে। এ লক্ষে সরকার জমি অধিগ্রহণসহ আদালত স্থানান্তরের বিভিন্ন প্রক্রিয়া চলমান রেখেছে। কিন্তু সম্প্রতি গাইবান্ধা জজ কোর্টের কিছু অ্যাডভোকেট এ সিদ্ধান্তের বিরোধীতা করে আসছে। তারই প্রতিবাদে এ কর্মসূচী পালন করা হচ্ছে বলে বক্তারা উল্লেখ করেন।

বক্তারা আরও বলেন, সহকারী জজ ও জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বিচারিক আদালত ফুলছড়ি উপজেলায় বাস্তবায়িত হলে উপজেলা সদরের ব্যবসা-বাণিজ্য, অর্থনীতির উন্নতি ঘটবে। তাই তারা অবিলম্বে বিচারিক আদালত দ্রুত ফুলছড়িতে বাস্তবায়নের জোর দাবী জানান।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: