মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৯ আশ্বিন ১৪২৪, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

নিম্ন আয়ের মানুষের জন্য ৫০ হাজার ফ্ল্যাট হবে

প্রকাশিত : ২৯ অক্টোবর ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ প্রতিদিন ২৭৫ টাকা কিস্তিতে ২০ বছরের মধ্যে পরিশোধের সময় বেঁধে দিয়ে বস্তির বাসিন্দাদের দুই বেডরুমের এ্যাপার্টমেন্ট দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন। স্বল্প ও নিম্ন আয়ের মানুষের জন্য ৪০ থেকে ৫০ হাজার এ্যাপার্টমেন্ট করার পরিকল্পনার কথাও জানান তিনি। বুধবার রাজধানীর ব্র্যাক-ইন সেন্টারে ‘নগর দরিদ্রের জন্য আবাসন : সমস্যা, সম্ভাবনা এবং নীতি করণীয়’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব তথ্য জানান তিনি। গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ আরবান ফোরাম, ইউএনডিপি এবং রিহ্যাব এ সেমিনারের আয়োজন করে। মন্ত্রী বলেন, বস্তিবাসীর জন্য মিরপুরে একটি জায়গার মধ্যে সাড়ে চার শ’ বর্গফুটের দুই বেডরুমের দুই হাজার এ্যাপার্টমেন্ট গড়ে তোলা হবে। এর সঙ্গে বাথরুম, রান্নাঘর ও বেসিনের ব্যবস্থা থাকবে। এ্যাপার্টমেন্টগুলো আগেই বরাদ্দ দেয়া হবে না। তৈরি করে সেখানে বস্তিবাসীদের তুলে দেয়ার পর বলা হবে, দিনে ২৭৫ টাকা করে দিতে হবে। ২০ বছর পর এ এ্যাপার্টমেন্ট তার হয়ে যাবে। তিনি বলেন, স্বল্প ও নিম্ন আয়ের মানুষের জন্যও কাজ করে যাচ্ছে সরকার। তাদের জন্য ৪০ থেকে ৫০ হাজার এ্যাপার্টমেন্টের ব্যবস্থা করা হচ্ছে। যেখানে দীর্ঘমেয়াদে এ্যাপার্টমেন্টের দাম পরিশোধ করার সুযোগ পাওয়া যাবে।

মন্ত্রী বলেন, আবাসিক এলাকায় বস্তি থাকার জন্য ওই এলাকার নাগরিকরাও দায়ী। যারা বড় বড় বাড়ি করেছেন তারা কিন্তু গৃহকর্মীদের জন্য থাকার কোন ব্যবস্থা করেন না। ফলে তাদের বাড়ির আশপাশেই যেন এসব গৃহকর্মীরা থাকতে পারেন, সে কারণে তারাই চান না বস্তি উঠে যাক। এছাড়া বস্তিবাসীর কাছ থেকে যেসব টাকা নেয়া হয় সেগুলো ওই এলাকার মাস্তান ও নিয়ন্ত্রণকারীদের হাতেই থাকে। প্রকৃতপক্ষে আমরা সঠিকভাবে নগর পরিকল্পনা করি না। আবাসিক এলাকায় গড়ে তুলছি রেস্টুরেন্ট, হোটেল। তাই পরিকল্পিত নগর গড়ে তুলতে আমাদের সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে। বস্তিবাসীর সঠিক পুনর্বাসনের পাশাপাশি কড়াইল বস্তিতে আইসিটি পার্ক, প্রতিটি উপজেলায় আবাসিক এলাকা গড়ে তোলাসহ বিভিন্ন পরিকল্পনার কথাও জানান গৃহায়নমন্ত্রী।

প্রকাশিত : ২৯ অক্টোবর ২০১৫

২৯/১০/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



শীর্ষ সংবাদ: