২৩ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৬ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

দেশপ্রেমিক কোম্পানি


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ সময়টা বেশ খারাপ যাচ্ছে ভিনসেন্ট কোম্পানির। ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগে এখন পর্যন্ত শীর্ষস্থান ধরে রেখেছেন তার দল ম্যানচেস্টার সিটি। কিন্তু রবিবার ‘ম্যানচেস্টার ডার্বি’-তে চরম প্রতিপক্ষ ইউনাইটেডের বিপক্ষে তাকে প্রথম একাদশে রাখেননি কোচ ম্যানুয়েল পেলেগ্রিনি। দলের অধিনায়ক হয়েও টানা তিন ম্যাচে বাইরে থাকলেন ভিনসেন্ট। আবার বেলজিয়াম জাতীয় দলেও কোম্পানির খেলা উচিত নয় বলে দাবি করেছেন পেলেগ্রিনি। সবমিলিয়ে কোচের সঙ্গে কোম্পানির একটি শীতল সম্পর্ক তৈরি হয়েছে এমনটাই মনে করছেন অনেকে। কিন্তু সেসব অস্বীকার করেছেন ২৯ বছর বয়সী এ ফুটবলার। তিনি দাবি করেছেন দেশের হয়ে যেকোন সময় খেলতে প্রস্তুত তিনি। রবিবার রাতে ম্যান ইউর সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করে ম্যানসিটি। অবশ্য এ ড্রয়ের পরও আর্সেনালের সঙ্গে সমান ২২ পয়েন্ট নিয়ে প্রিমিয়ার লীগে শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে তারা। তবে কোচ পেলিগ্রিনি একাদশের বাইরে রাখছেন কোম্পানিকে। তিনি বেশ অসন্তুষ্ট সেন্টারব্যাক কোম্পানির ওপর। বেলজিয়ামের কোচ মার্ক উইলমটসও তাকে ইউরো বাছাইয়ে ইসরায়েলের বিপক্ষে নামাননি। যদিও এর আগেই ইউরোর চূড়ান্ত পর্ব নিশ্চিত করেছে বেলজিয়াম। তিনি স্বীকার করেছেন যে একইসঙ্গে দেশ এবং ক্লাবের হয়ে খেলাটা বেশ কঠিন। কিন্তু যেকোন সময় দেশের হয়ে খেলার সুযোগটাকে তিনি খুশি মনেই গ্রহণ করবেন বলে জানিয়েছেন। এ বিষয়ে কোম্পানি বলেন, ‘এখনকার জন্য অতীত ও ভবিষ্যতের কথা ভাবলে বলা যায় যে কিছুটা সঙ্কটাপন্ন পরিস্থিতি। তারা (সিটি ও বেলজিয়াম) দুটোই খুব গুরুত্বপূর্ণ দল। ভিন্ন ভিন্ন লক্ষ্য ও আকাক্সক্ষা আছে দু’দলের। তাই এখন যা ঘটছে সেটা খুবই স্বাভাবিক। আমি যদি ফিট না থাকি অবশ্যই আমার খেলা উচিত হবে না। কিন্তু আমি পেশাদার একজন খেলোয়াড় এবং সে কারণে খুব বেশি ব্যাখ্যার প্রয়োজন নেই আমার।’