১৪ ডিসেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ২ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

বরিশালে যৌতুকের দাবিতে গৃহবধূকে পুড়িয়ে হত্যা


স্টাফ রিপোর্টার, বরিশাল ॥ যৌতুকের দাবিতে দু’সন্তানের জননী এক গৃহবধূকে নির্যাতনের পর গায়ে কেরোসিন ঢেলে পুড়িয়ে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। নিহতের লাশের ময়নাতদন্ত শেষে সোমবার মধ্যরাতে বাবার বাড়ির পারিবারিক গোরস্তানে দাফন করা হয়েছে। এ ঘটনায় মঙ্গলবার সকালে স্থানীয় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। ঘটনাটি জেলার গৌরনদী উপজেলার নলচিড়া ইউনিয়নের বদরপুর গ্রামের। উপজেলার দক্ষিণ মাহিলাড়া গ্রামের মৃত কাদের সরদারের পুত্র দিনমজুর শাহজাহান সরদার জানান, সাত বছর আগে তার বোন পারভীন আক্তারকে (২৬) পার্শ্ববর্তী নলচিড়া ইউনিয়নের বদরপুর গ্রামের মৃত নায়েব আলী খানের পুত্র মোটরবাইক মিস্ত্রি নজরুল খানের সঙ্গে সামাজিকভাবে বিয়ে দেয়া হয়। তাদের সংসারে দুটি পুত্র সন্তান রয়েছে। শাহজাহান অভিযোগ করেন, নজরুল খান ও তার পরিবারের সদস্যরা বিয়ের পর থেকে বিভিন্ন সময় যৌতুকের দাবিতে পারভীনকে শারীরিক নির্যাতন করে আসছিল। বিয়ের পর যৌতুক হিসেবে নজরুলের পরিবারকে দু’বার ৯০ হাজার টাকা দেয়া হয়। ফের আরও এক লাখ টাকা যৌতুকের দাবিতে গত ১৯ অক্টোবর সকালে নজরুল ও তার পরিবারের সদস্যরা পারভীনকে অমানুষিক নির্যাতন করে। এতে পারভীন অজ্ঞান হয়ে পড়লে তার গায়ে কেরোসিন ঢেলে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা করা হয়। এ সময় পারভীনের চিৎকারে প্রতিবেশীরা এসে মুমূর্ষু অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে প্রথমে গৌরনদী ও তাৎক্ষণিক শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করে। পরবর্তীতে উন্নত চিকিৎসার জন্য পারভীনকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রবিবার রাতে পারভীন মারা যায়। এদিকে পারভীনের মৃত্যুর সংবাদ ছড়িয়ে পড়ার পর ঘাতক স্বামী নজরুল ইসলাম ও তার পরিবারের সদস্যরা ঘরে তালা লাগিয়ে আত্মগোপন করেছে।

লালমনিরহাট থেকে নিজস্ব সংবাদদাতা জানান, সারাদেহে দগদগে আঘাতের ক্ষত চিহ্ন। হাসপাতালের শয্যায় কাতরাচ্ছেন দুই সন্তানের জননী গৃহবধূ শেফালি বেগম (৩৫)। পাঁচ লাখ টাকা যৌতুকের দাবিতে তাকে স্বামী ও শ্বশুড়বাড়ির স্বজনরা ঘরে আটকে রেখে কয়েকদিন ধরে নির্যাতন করেছে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: