২০ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৬ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

ক্লান্ত সেরেনার অবসর ভাবনা!


জয় কিংবা পরাজয়। চলতি মৌসুমের পুরো সময়টাজুড়েই ছিল সেরেনা উইলিয়ামসের নাম। নতুন বছরের প্রথম গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্ট অস্ট্রেলিয়ান ওপেন জিতে যাত্রা শুরু। এরপর ফ্রেঞ্চ ওপেন এবং উইম্বলডনের শিরোপাটাও নিজের শোকেসে তুলেন তিনি। কিন্তু ইউএস ওপেনেই থেমে যায় তার জয়রথ। মৌসুমের শেষ মেজর টুর্নামেন্টের সেমিফাইনাল থেকে বিদায় নেয়ার পর আর কোর্টে নামেননি বিশ্ব টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের নাম্বার ওয়ান এই তারকা। পুরো মৌসুমে কোর্টে থেকে নিজেকে ক্লান্ত বলে দাবি করেন সেরেনা ও তার কোচ। যে কারণে বিশ্রামে চলে যান আমেরিকান টেনিসের জীবন্ত কিংবদন্তি। তবে ইতোমধ্যেই সেরেনা প্রতিপক্ষ খেলোয়াড়দের সতর্ক করে ঘোষণা দিয়ে দিয়েছেন নতুন মৌসুমে নতুন উদ্যমে ফিরবেন টেনিস কোর্টে।

তেত্রিশকে পেছনে ফেলে গত মাসেই চৌত্রিশে পা রেখেছেন সেরেনা উইলিয়ামস। কিন্তু টেনিস কোর্টে! যেন টগবগে এক তরুণী। প্রতিপক্ষের জন্য ভয়ঙ্কর হুমকির নাম। বছরের শুরু থেকেই দাপট দেখিয়েছেন টেনিস কোর্টে। কিন্তু শেষে রবার্টা ভিঞ্চির কাছে হেরে ইউএস ওপেনের সেমিফাইনাল থেকে ছিটকে পড়েন তিনি। সেইসঙ্গে ভেঙ্গে চুরমার হয়ে যায় তার ‘ক্যালেন্ডার সøাম’ জয়ের রেকর্ডও। কিন্তু তার আগে চলতি বছরের সময়টা এক কথায় দুর্দান্ত কেটেছে তার। যার শুরুটা অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের শিরোপা জিতে। এর পরের দুটি গ্র্যান্ডসøামও নিজের শোকেসে তুলেছেন বিশ্ব টেনিস র‌্যাংকিংয়ের নাম্বার ওয়ান এই তারকা। বছরের শেষ গ্র্যান্ডসøাম ইউএস ওপেন জিতে যখন নতুন মাইলফলক স্পর্শ করবেন। তখনই তার সামনে বাধা হয়ে দাঁড়ায় ইতালিয়ান তারকা রবার্টা ভিঞ্চি। ইউএস ওপেনের শেষ চারে হেরে যান তিনি। সেই পরাজয়ের পরই নিজেকে ক্লান্ত মনে করেন। তবে প্রথমে প্রশ্নটা তুলেন তার কোচ। এরপর সেরেনা নিজেও জানিয়ে দেন মৌসুমের শেষ সময়টাতে বিশ্রামে থাকবেন। যেই কথা সেই কাজ।

যে কারণে বছরের শেষ দুটি টুর্নামেন্ট থেকে নিজের নাম প্রত্যাহার করে নেন সেরেনা উইলিয়ামস। চলতি মাসের প্রথম দিকে শেষ হওয়া চায়না ওপেনে খেলেননি তিনি। চলমান ডব্লিউটিএ ফাইনালসেও খেলছেন না তিনি। সিঙ্গাপুরে চলছে এখন এই ইভেন্ট। টেনিস বিশ্বের চার গ্র্যান্ডসøামের পরই এটাকে বিবেচনা করা হয়। কিন্তু এখানে পারফর্ম করেননি ২১টি গ্র্যান্ডসøাম জিতে নিজেকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যাওয়া সেরেনা। বিশ্ব টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ আট প্রমীলা খেলোয়াড়ের এই টুর্নামেন্টে খেলার কথা। অথচ বিশ্রাম নেয়ার কারণে নেই নাম্বার ওয়ান সেরেনাই। এ নিয়ে প্রশ্নও উঠেছে। সেরেনা উইলিয়ামস কেন নেই? এমন প্রশ্ন তুলেছেন বর্তমান টেনিসেরই গ্ল্যামারগার্ল মারিয়া শারাপোভা। রুশ সুন্দরী ডব্লিউটিএ ফাইনালসে জয় দিয়েই শুরু করেছেন তিনি। উইম্বলডনের সেমিফাইনালে চিরপ্রতিন্দ্বী সেরেনা উইলিয়ামসের বিপক্ষে হেরে ছিটকে পড়েছিলেন মাশা। এরপর উহান ওপেনে ঢাকঢোল পিঠিয়েই কোর্টে নামেন তিনি। কিন্তু দুর্ভাগ্য রুশ সুন্দরীর। এখানেও তার পিছু ছাড়েনি চোট। এক সেট খেললেও ইনজুরির কারণে ম্যাচ শেষ করার আগেই অবসর নিতে বাধ্য হয় তার। যে কারণে ডব্লিউটিএ ফাইনালসে প্রায় পাঁচ মাস পর প্রথম কোন প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচ জিতলেন তিনি। তবে জয়টা সহজে আসেনি তার। ২ ঘণ্টা ৪৭ মিনিট কঠিন লড়াইয়ের পরই প্রতিপক্ষের বিপক্ষে ম্যাচ জয়ের স্বাদ পান তিনি। যে কারণে তার আনন্দ উল্লাসের মাত্রাটাও ছিল অনেক বেশি। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘জুলাইয়ের পর থেকে এটাই আমার পরিপুর্ণ একটি ম্যাচ জয়। তাই এটা আমার জন্য অনেক বড় কিছু। রাদওয়ানস্কার বিপক্ষে জিতে আমি সত্যিই খুব রোমাঞ্চিত।’

তবে সেরেনা ভক্তদের জন্য সুখবর হলো নতুন বছরের প্রথম সপ্তাহেই কোর্টে ফিরছেন আমেরিকান টেনিসের এই জীবন্ত কিংবদন্তি। ২০১৬ সালের ৩রা জানুয়ারি থেকে শুরু হবে হোপম্যান কাপ। আর সেখানেই খেলার ঘোষণা দিয়েছেন তিনি। এ বিষয়ে সেরেনা বলেন, ‘পার্থের এই টুর্নামেন্ট আমার কাছে বিস্ময়কর মনে হয়। আমি মনে করি পার্থে ফেরাটা আমার জন্য স্বাভাবিক এবং যেতে বাধ্য।’ গত মৌসুমে হোপম্যান কাপে সেরেনার সঙ্গী ছিলেন আমেরিকার জন ইসনার। পুরো টুর্নামেন্টেই দুর্দো-প্রতাপে লড়াই করেন তারা। কিন্তু ফাইনালে পোল্যান্ডের কাছে হেরে বিদায় নিতে হয়েছিল তাদের। যে কারণে এবার প্রিয় এই কোর্টে ফিরতে মরিয়া সেরেনা। তাছাড়া বেশ কিছুদিন কোর্টের বাইরে অবস্থান করছেন আমেরিকান তারকা। সেখানে ফিরতে যেন কিছুতেই তর সইছে না তার। এই মুহূর্তেই রোমাঞ্চ ছুয়ে যাচ্ছে তার হৃদয়ে। এ বিষয়ে সেরেনার অভিমত হলো, ‘গত বছরে শিরোপা জয়ের খুবই কাছাকাছি পৌঁছে গিয়েছিলাম আমরা। এবার এখানে ফিরতে আমি খুবই রোমাঞ্চিত।’ এবার তার সঙ্গে জুটি বাধবেন ডাবলসের অভিজ্ঞ খেলোয়াড় জ্যাক শক। যার সঙ্গে আগামী বছর অস্ট্রেলিয়ান ওপেনেও জুটি বাধবেন তিনি। মৌসুমের প্রথম গ্র্যান্ডসøাম টুর্নামেন্টের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন সেরেনা। এবার যে ফেবারিট হিসেবেই কোর্টে নামবেন তিনি সে বিষয়ে কোন সন্দেহ নেই। আর জ্যাক শকের সঙ্গে হোপম্যান কাপে খেলা মানে মূল লড়াইয়ের আগে দারুণ কিছু অভিজ্ঞতাও লাভের সুযোগ পাওয়া। তা বুঝতে পারছেন সেরেনাও। যে কারণে তিনি বলেন, ‘২০১৬ সালে অস্ট্রেলিয়ায় ডাবলসে খেলব আমি। তাই এখানে যাওয়াটা আমার জন্য রোমাঞ্চকরই বটে। হোপম্যান কাপের দ্বৈতে খেলে কিছু অভিজ্ঞতা লাভ করতে পারব। আর প্রথম মেজর টুর্নামেন্ট অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের আগে আমার জন্য হোপম্যান কাপই হবে দারুণ প্রস্তুতির মঞ্চ।’

শুধু সেরেনা উইলিয়ামস নয়, ব্রিটিশ টেনিস তারকা এ্যান্ডি মারেও নতুন বছর শুরু করবেন হোপম্যান কাপ দিয়ে। এবার তার সঙ্গে জুটি বাধবেন হেথার ওয়াটসন। চলতি বছরটা মোটেই ভাল কাটেনি এ্যান্ডি মারের। তবে এবার পুরুষ এককে শুধু মারে নয় রাফায়েল নাদাল এবং রজার ফেদেরারও নিস্প্রভ ছিলেন। কেননা এবার যে টেনিস কোর্টে এককভাবেই রাজত্ব করেছেন সার্বিয়ার নোভাক জোকোভিচ। তাই হোপম্যান কাপ দিয়েই নতুন বছরে জ্বলে উঠতে চান ব্রিটিশ তারকা এ্যান্ডি মারে।