১৪ ডিসেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

রুনির জন্য ম্যানইউর বিশেষ সম্মান


রুনির জন্য ম্যানইউর বিশেষ সম্মান

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ অধিনায়ক ওয়েন রুনিকে বিশেষ সম্মান জানাতে যাচ্ছে তার ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। ওল্ডট্রাফোর্ডে ইংলিশ অধিনায়কের একযুগ পূর্তি সামনে রেখে এ উদ্যোগ নিয়েছে রেড ডেভিলসরা।

তবে গৌরবময় অর্জনের সামনে দাঁড়িয়ে মাঠের পারফর্মেন্সে তেমন তাক লাগাতে পারছেন না রুনি। তারকা এই ফরোয়ার্ড ইংল্যান্ডের হয়ে গত মাসে সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড গড়ার পর থেকেই ফর্মহীনতার মধ্যে আছেন। এরই ধারাবাহিকতায় আজ রাতে আবারও মাঠে নামছেন রুনি। ইংলিশ লীগ কাপের ম্যাচে নিজেকে মেলে ধরার সুযোগ পাচ্ছেন ২৪ অক্টোবর ৩০ বছরে পা রাখা তারকা এই ফরোয়ার্ড।

ক্যাপিটাল ওয়ান কাপ নামে পরিচিত এই আসরের চতুর্থ পর্বের ম্যাচে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের প্রতিপক্ষ মিডলসবার্গ। ম্যানইউর ঘরের মাঠ ওল্ডট্রাফোর্ডে অনুষ্ঠিত হবে ম্যাচটি। আজ রাতে মাঠে নামছে ম্যানচেস্টার সিটি ও লিভারপুলও। ম্যানসিটি নিজেদের মাঠ ইতিহাদ স্টেডিয়ামে লড়বে ক্রিস্টাল প্যালেসের বিপক্ষে। ঘরের মাঠ এ্যানফিল্ডে লিভারপুলের প্রতিপক্ষ এএফসি বোর্নমাউথ। আরেক ম্যাচে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে সাউদাম্পটন ও এ্যাস্টন ভিলা।

ম্যানইউতে এক যুগ অর্থাৎ ১২ বছর পূর্ণ করতে যাচ্ছেন রুনি। ২০১৬ সালের আগস্টে ওল্ডট্রাফোর্ডে এক যুগ পূর্ণ হবে তার। এরই অংশ হিসেবে রুনিকে একটি প্রশংসাপত্র দিয়েছে ম্যানইউ। বিশেষ সম্মানের এই ক্ষণে রুনির পারফর্মেন্স নিম্নগামী হলেও ম্যানইউর সর্বোচ্চ গোলদাতা হতে তিনি খুব দূরে নন। ১২ বছর পূর্তিতে আগামী বছরের ৩ আগস্ট রুনির স্মরণে একটি চ্যারিটি ম্যাচ আয়োজন করতে যাচ্ছে ম্যানইউ। ম্যাচটি কোন দলের বিপক্ষে খেলবে তা এখনও ঘোষণা করা হয়নি। তবে ম্যাচ বেশ রোমাঞ্চকর হবে বলে মনে করছেন রুনি। এটি তার জন্য বিশেষ সম্মান বলে মনে করেন রেড ডেভিলস অধিনায়ক। সাক্ষাতকারে রুনি বলেন, যারা আমাকে এত বড় সম্মান জানালো, তাদের সবাইকে আমার কৃতজ্ঞতা রইল। বিশেষ করে সমর্থক ও দলের সতীর্থদের আমি কৃতজ্ঞতা জানাই। আর এই ম্যাচটি অবশ্যই অসাধারণ হবে। ম্যাচটিতে আয় করা অর্থ চ্যারিটি ফাউন্ডেশনে দান করা হবে বলে জানিয়েছে আয়োজকরা। ২০০৪ এভারটন ছেড়ে ম্যানইউতে নাম লেখান রুনি। এই সময়ে তিনি পাঁচবার ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগ, একবার উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগ ও দুইবার ইংলিশ লীগ কাপের শিরোপা জয় করেন। বর্তমানে সব ধরনের প্রতিযোগিতা মিলিয়ে এগারো বছরে ম্যানইউর হয়ে রুনি ৪৯৩ ম্যাচে করেছেন ২৩৬ গোল। দেশের হয়ে সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড গড়া রুনি ক্লাবের হয়েও এই অর্জনের কাছাকাছি আছেন।

সেপ্টেম্বর মাসে লন্ডনের বিখ্যাত ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে ইউরো বাছাই ফুটবলে সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে মাঠে নামে ইংল্যান্ড। ওই ম্যাচে সবার দৃষ্টি ছিল রুনির দিকে। কেননা আগের ম্যাচেই তিনি ছুঁয়ে ফেলেন ৪৯ গোল করা স্যার ববি চার্লটনকে। পরের ম্যাচে তাই এক গোল করলেই হয়ে যাবেন ইংল্যান্ডের ইতিহাসের সর্বোচ্চ গোলদাতা। এমন সমীকরণ সামনে রেখে ক্যারিয়ারে ৫০তম গোল করে ইংল্যান্ডের হয়ে সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড গড়েন রুনি। আগেই ইংল্যান্ডের ইউরোর চূড়ান্ত পর্বে খেলা নিশ্চিত হওয়ায় ম্যাচটিতে সবটুকু আলো ছিল রুনির ওপর। অসাধারণ রেকর্ডের হাতছানি নিয়ে মাঠে নামেন তিনি। আর সেটা করতে পেরে আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েন ম্যানইউর তারকা। ৪৫ বছর আগে কিংবদন্তি স্ট্রাইকার ববি চার্লটন ৪৯ গোল করে এর আগ পর্যন্ত ইংল্যান্ডের হয়ে সর্বোচ্চ গোলের মালিক ছিলেন। সান ম্যারিনোর বিপক্ষে ইংল্যান্ডের ৬-০ গোলে জয়ের ম্যাচটিতে রুনি চার্লটনের রেকর্ড স্পর্শ করেন। এরপর সুইসদের বিপক্ষে পেনাল্টি থেকে গোল করে রেকর্ডটি নিজের করে নেন ম্যানইউ তারকা। স্মরণীয় ওই মুহূর্তে ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামের দর্শকরা দাঁড়িয়ে রুনিকে অভিনন্দন জানান।

ইংল্যান্ডের হয়ে চার্লটনের রেকর্ড ভাঙ্গার পর ক্লাবের হয়েও সেটি ভাঙ্গতে চলেছেন রুনি। কেননা ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হয়ে চার্লটনের করা ২৪৯ গোলের রেকর্ডেও খুব কাছাকাছি পৌঁছে গেছেন রুনি। ক্লাব রেকর্ড ভাঙ্গতে রুনির প্রয়োজন আর মাত্র ১৪ গোল। যুগপূর্তির আগেই হয়ত গৌরব গাথা রচনা করবেন মেজাজি এই তারকা।

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: