মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
১৮ আগস্ট ২০১৭, ৩ ভাদ্র ১৪২৪, শুক্রবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

টিআইবি দেশের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্রে লিপ্ত

প্রকাশিত : ২৭ অক্টোবর ২০১৫
  • দাবি সরকার ও বিরোধী দলের

বিশেষ প্রতিনিধি ॥ ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)’র সম্প্রতি প্রকাশিত রিপোর্ট প্রত্যাখ্যান করে সংস্থাটির কড়া সমালোচনা করেছে সরকার ও বিরোধী দল। দল দুটি সিনিয়র সংসদ সদস্যরা টিআইবির বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক চক্রান্তে লিপ্ত থাকার অভিযোগ করে বলেছেন, টিআইবি মূলত বিএনপির অঙ্গ সংগঠনের ভূমিকায় অবতীর্ণ। জাতীয় সংসদকে ‘পুতুল নাচের নাট্যশালা’ হিসেবে কটাক্ষ করে টিআইবি সংবিধান ও সংসদকে অবজ্ঞার পাশাপাশি নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদেরও অপমানিত করেছে। টিআইবির আয়ের উৎস কী এবং কারা তাদের অর্থের যোগান দেয় তা খুঁজে বের করতে সংস্থাটি সম্পর্কে এখনই তদন্তের দাবিও তুলেছেন সরকার ও বিরোধী দলের সংসদ সদস্যরা।

সোমবার টিআইবি রিপোর্ট সম্পর্কে জনকণ্ঠকে দেয়া প্রতিক্রিয়া এবং রিপোর্টটি নিয়ে আয়োজিত সাংবাদিক সম্মেলনে এসব দাবি জানানো হয়। উল্লেখ্য, দশম জাতীয় সংসদের দ্বিতীয় থেকে ষষ্ঠ অধিবেশন নিয়ে ‘পার্লামেন্ট ওয়াচ’ শীর্ষক একটি প্রতিবেদন রবিবার প্রকাশ করে টিআইবি। জাতীয় সংসদের কর্মকা-ের বেশকিছু বিষয়ে কড়া সমালোচনার পাশাপাশি বর্তমান বিরোধী দলের বিরুদ্ধে সরকারী দলের লেজুড়বৃত্তিরও অভিযোগ করা হয় ওই প্রতিবেদনে।

টিআইবি রিপোর্টের কড়া সমালোচনা করে প্রবীণ রাজনীতিক ও পার্লামেন্টারিয়ান বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ তার প্রতিক্রিয়ায় জনকণ্ঠকে বলেন, আজ পর্যন্ত বাংলাদেশের কোন ভাল কাজের প্রশংসা টিআইবির কাছ থেকে শোনা যায়নি। বাংলাদেশ আজ সবদিক থেকে এগিয়ে যাচ্ছে। বিশ্বের প্রায় প্রতিটি দেশ বাংলাদেশের এগিয়ে যাওয়ার প্রশংসা করছে। কিন্তু টিআইবি তাদের রিপোর্টে কখনও দেশের সুনাম করে কিছু লেখে না, বরং কীভাবে দেশের ও সরকারের দুর্নাম ও প্রশ্নবিদ্ধ করা যায় তারা তাই-ই করে। তিনি বলেন, টিআইবি ৫ জানুয়ারির নির্বাচন নিয়েও কথা বলেছে, নতুন নির্বাচন চেয়েছে। এসব কাজ তো পলিটিক্যাল পার্টির। এর মাধ্যমে কার্যত টিআইবি বিএনপির অঙ্গ সংগঠনের ভূমিকাই পালন করেছে। জাতির সামনে পরিষ্কার হয়েছে যে, টিআইবি মূলত হচ্ছে বিএনপির অঙ্গ সংগঠন।

ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি এবং বিমান পরিবহণ ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন এমপি তার প্রতিক্রিয়ায় টিআইবি’র রিপোর্ট প্রদানের এখতিয়ার নিয়ে প্রশ্ন তুলে জনকণ্ঠকে বলেন, টিআইবি কী দেশের বিবেক ঠিক করে দেবে? তাদের কী সব বিষয়েই কথা বলতে হবে? সংস্থাটির মূল কাজ ট্রান্সপ্যারেন্সি নিয়ে কাজ করা। টিআইবির দায়িত্ব তো সংসদ নিয়ে কথা বলা নয়। আর বিএনপি যদি গালিগালাজ খাওয়ার মতো কাজ করে, তবে তো তাদের গালি খেতেই হবে। এতে টিআইবির গাত্রদাহ হচ্ছে কেন? এটা নিয়ে তাদের এতো মাথা ব্যথা কেন? সংসদে প্রশ্নবিদ্ধ করার কোন এখতিয়ার টিআইবির নেই।

প্রধান বিরোধী দল জাতীয় পার্টির সাবেক মহাসচিব এ বি এম রুহুল আমিন হাওলাদার এমপি টিআইবির রিপোর্টের সমালোচনা করে তার প্রতিক্রিয়ায় বলেন, এই প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে নিরপেক্ষতা, গণতন্ত্র রক্ষা এবং দেশের স্বার্থের কথা মানুষ প্রত্যাশা করে। জাতীয় সংসদসহ সরকার ও বিরোধী দল সম্পর্কে টিআইবি যে আক্রমণাত্মক বক্তব্য দিয়েছে, তা এই প্রতিষ্ঠানকেই সবার কাছে প্রশ্নবিদ্ধ করেছে। যা সত্যিই বেদনাদায়ক।

তিনি বলেন, প্রত্যেকেরই সততা, নিরপেক্ষতা রক্ষা করা উচিত। টিআইবির এ রকম একটি প্রতিবেদন দেয়ার আগে তার পরিণতি নিয়ে ভাবা উচিত ছিল। কারণ গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে এভাবে অবস্থান নেয়া দেশের জন্য সুখকর হয় না। সংসদকে নিয়ে তুচ্ছ-তাচ্ছিল্য করে যে মতামত দেয়া হয়েছে, তা অনাকাক্সিক্ষত। ভবিষ্যতে সতর্কভাবে একটি গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মতামত তুলে ধরবে বলে আমি আশা করি।

আন্তর্জাতিক চক্রান্ত করছে টিআইবি- চিফ হুইপ ॥ বাংলাদেশের রাজপথ ও সংসদকে অকার্যকর করার জন্য টিআইবি আন্তর্জাতিক চক্রান্ত করছে বলে অভিযোগ করেছেন জাতীয় সংসদের প্রধান হুইপ আসম ফিরোজ। জাতীয় সংসদকে ‘পুতুল নাচের নাট্যশালা’র সঙ্গে তুলনা করার টিআইবির এখতিয়ার নিয়ে প্রশ্ন তুলে চীফ হুইপ সংস্থাটির প্রকৃত আয়ের উৎস নিয়েও প্রশ্ন তুলে বলেন, টিআইবির আয়ের উৎস কী কারা তাদের অর্থের যোগান দেয় এটাও মানুষ জানতে চায়। সময় এসেছে টিআইবির বিষয়ে তদন্ত করার।

সোমবার জাতীয় সংসদে মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে আসম ফিরোজ দাবি করেন, টিআইবির ওই মন্তব্যে বাংলাদেশের সংবিধান ও সংসদকে অবজ্ঞা করা হয়েছে। এর ফলে নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের অপমানিত করা হয়েছে। টিআইবির রিপোর্টের প্রতিক্রিয়া জানাতে আয়োজিত এই সাংবাদিক সম্মেলনে চীফ হুইপ প্রশ্ন রেখে বলেন, জাতীয় সংসদ পুতুল নাচের নাট্যশালায় পরিণত হয়েছেÑ এ ধরনের মন্তব্য করার অধিকার টিআইবিকে কে দিয়েছে? আসলে টিআইবি নিজেরাই নাচের পুতুল। তাদের প্রভুদের সুতার টানেই তারা নাচে। বর্তমান পরিস্থিতি সম্পর্কে মন্তব্য করার অধিকার টিআইবিকে দেয়া হয়নি। এ ধরনের মন্তব্য করে তারা সীমা লঙ্ঘন করেছে।

টিআইবি কাদের যোগসাজশে আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্র করছেÑ সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে আসম ফিরোজ বলেন, যারা মুক্তিযুদ্ধ থকে শুরু করে আজ পর্যন্ত আমাদের বিরোধিতা করেছে, আমাদের সঙ্গে যাদের সম্পর্ক ভাল নেই, আপনারা ভাল করেই জানেন তারা কারা। সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানকে কলঙ্কিত করার একটি অভিপ্রায় হয়ে দাঁড়িয়েছে টিআইবির। তারা প্রায়ই এ ধরনের কাজ করে। সংবিধান লঙ্ঘন করায় টিআইবির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে কিনাÑ এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এ বিষয়ে এখনই কিছু বলা যাচ্ছে না। স্পীকার ও অন্যদের সঙ্গে কথা বলে এ বিষয় জানানো হবে।

সাংবাদিক সম্মেলনে জাতীয় সংসদের হুইপ আতিউর রহমান আতিক, এ্যাডভোকেট ইকবালুর রহিম, মাহমুদ আরা গিণি এবং সংসদ সদস্য এমরান আহমেদ উপস্থিত ছিলেন।

আইএস ও টিআইবি একই সূত্রে গাঁথা- হানিফ ॥ আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ টিআইবির রিপোর্ট প্রত্যাখ্যান করে বলেন, টিআইবি নির্বাচনের নতুন ফর্মুলা দিয়ে জনগণকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছে। টিআইবি সংসদের কার্যকারিতা মানতে নারাজ। আসলে তথাকথিত আইএস ও টিআইবি একই সূত্রে গাঁথা।

সোমবার দুপুরে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ের আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ছাত্রলীগ আয়োজিত প্রস্তুতি সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। আগামী ৩ নবেম্বর জেলহত্যা দিবস পালনের প্রস্তুতি উপলক্ষে এ সভার আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে হানিফ আরও বলেন, টিআইবির রিপোর্ট দেখে আমরা হতবাক হয়েছি। তারা বলছে, সংসদ নাকি কার্যকর নয়! আমি টিআইবিকে বলতে চাই, বর্তমান বিরোধী দল সংসদে যথাযথ ভূমিকা পালন করে চলেছে। তারা সরকারে বিভিন্ন বিষয়ে কঠোর বিরোধিতা করে যাচ্ছে। কিন্তু বিএনপি যখন বিরোধী দলে ছিল, তখন তারা সংসদে অশালীন ও অশ্লীল বাক্য ব্যবহার করতো। তিনি বলেন, বিদেশী নাগরিকদের হত্যা সরকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের অংশ। সরকারকে বিপদে ফেলা ও ভাবমূর্তি বিনষ্ট করতেই এসব ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে। টিআইবিও একইভাবে সরকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে। দেশে জামায়াত-বিএনপি বাইরে আর কোন জঙ্গী সংগঠন নেই উল্লেখ করে হানিফ বলেন, বাংলাদেশে কোন জঙ্গী সংগঠনের অস্তিত্ব নেই, জঙ্গী বলতে যা বুঝায় তা হলো জামায়াত-বিএনপির কর্মকা-।

ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগের সভাপতিত্বে সভায় আরও বক্তব্য রাখেনÑ আওয়ামী লীগের কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক ড. আবদুর রাজ্জাক এমপি, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক ক্যাপ্টেন (অব) এবি তাজুল ইসলাম, ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন প্রমুখ।

প্রকাশিত : ২৭ অক্টোবর ২০১৫

২৭/১০/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



শীর্ষ সংবাদ: