১৩ ডিসেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

ক্ষমা না চাওয়ায় ব্লেয়ারের প্রতি যুদ্ধে নিহত স্বজনদের ক্ষোভ


ইরাক যুদ্ধে নিহত ব্রিটিশ সৈন্যদের পরিবারগুলো ওই যুদ্ধের জন্য ক্ষমা চাইতে সাবেক প্রধানমন্ত্রী টনি ব্লেয়ারের ব্যর্থতায় তীব্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছে। ইরাক সংঘাত বিষয়ক চিলকট রিপোর্টে প্রকৃত ঘটনা ধামাচাপা দেয়া হবে বলেও তারা সতর্ক করে দেয়। খবর টেলিগ্রাফ অনলাইনের।

ব্লেয়ার ইরাক যুদ্ধের কিছু কিছু বিষয়ে দুঃখ প্রকাশ করতে সিএনএনের সঙ্গে দেয়া এক সাক্ষাতকারকে কাজে লাগান। এতে তিনি ওই রিপোর্ট প্রকাশিত হওয়ার আগেই নিজের বক্তব্য জানিয়ে জনমতকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করছেন বলে সঙ্গে সঙ্গেই অভিযোগ ওঠে। স্যার জন চিলকটের ওই রিপোর্ট প্রকাশ করার কথা।

ব্লেয়ার ২০০৩ সালে সাদ্দাম হোসেনকে ক্ষমতাচ্যুত করার পরবর্তী পরিস্থিতি মোকাবেলার উপযুক্ত পরিকল্পনা নিতে ব্যর্থতার জন্য এবং সাদ্দামকে উৎখাত করতে মিথ্যা তথ্য দেয়ার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেন।

কিন্তু তিনি জোর দিয়ে বলেন, সাদ্দামকে অপসারণের জন্য দুঃখ প্রকাশ করা তার জন্য কঠিন হবে।

নিহত এক সৈনিকের বাবা রেগ কিস বলেন, তিনি যখন ব্লেয়ারের মন্তব্য শোনেন তখন বিতৃষ্ণা বোধ করেন।

কিসের ছেলে ল্যান্স কর্পোরাল টম কিস ২০০৩ সালে ইরাকে নিহত হন। কিস বলেন, আমি বিতৃষ্ণা বোধ করছি। এ ব্যক্তি অবশ্যই ভুল করেছিলেন। ১৯৭ জন ব্রিটিশ সৈন্য নিহত এবং ৩,৫০০ জন আহত হয়। লাখ লাখ নিরীহ ইরাকী নারী-পুরুষ-শিশু নিহত হওয়ার কথা না-ই বললাম। এ ব্যক্তিকে তার হাত উপরে তুলে বলতে হবে, আমি ভুল বুঝেছিলাম এবং আমি দুঃখিত। কিস আরও বলেন, আমার মনে হয় তিনি স্পষ্টত ইরাক তদন্ত রিপোর্ট মোকাবেলায় আগাম পদক্ষেপ নিচ্ছেন। এটি একের দোষ অন্যের ওপর চাপানোর পদক্ষেপ। তিনি তাকে ভুল তথ্য দেয়ার দায়ে গোয়েন্দা প্রধানদের দোষারোপ করেছেন। তিনি সাদ্দামকে উৎখাত করার জন্য দুঃখ প্রকাশা করছেন না।

তিনি বলেন, অপ্রয়োজনীয়ভাবে প্রাণনাশের ঘটনা নিয়ে দুঃখ প্রকাশ কোথায়? আমরা ব্যাপক ধ্বংসাত্মক অস্ত্রের কারণে যুদ্ধে গিয়েছিলাম, সাদ্দামকে উৎখাত করতে নয়।