১৪ ডিসেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

তিনদিনেই হারের মুখে রাজশাহী


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ওয়ালটন ১৭তম জাতীয় ক্রিকেট লীগের (এনসিএল) পঞ্চম রাউন্ডের তৃতীয় দিনেই বরিশালের কাছে হারের মুখে পড়ে যেতে চলেছে রাজশাহী। বাকি তিন ম্যাচেই প্রথম ইনিংসে প্রতিদ্বন্দ্বিতা চলছে। চট্টগ্রাম-সিলেটের মধ্যকার হাড্ডাহাড্ডি লড়াই দেখা যাচ্ছে। ঢাকা মেট্রো যেমন বিশাল স্কোর গড়েছে, তেমনি এগিয়ে চলছে খুলনা। রংপুর এ রাউন্ডে প্রথম ইনিংসে সবচেয়ে বেশি ৪৬৩ রান করেছে। ঢাকা বিভাগ এখন তা সামাল দেয়ার চেষ্টা করছে। এ রাউন্ডে প্রথমদিন দুটি শতক হয়েছিল। ঢাকা মেট্রো শামসুর রহমান শুভ ও মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ হাঁকিয়েছিলেন। দ্বিতীয় দিন তিন শতক হয়েছে। এবার খুলনার ইমরুল কায়েস, রংপুরের নাঈম ইসলাম ও ধীমান ঘোষ শতক হাঁকান।

প্রথম স্তর ॥ ফতুল্লায় প্রথমদিনেই দুই শতক হয়েছে। ঢাকা মেট্রোর শামসুর রহমান শুভ (১৪৪ রান) ও মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ (১২৯*) শতক করেছিলেন। দ্বিতীয় দিন মাহমুদুল্লাহ আর মাত্র ৩ রান যোগ করতে পেরেছেন। সেই সঙ্গে ঢাকা মেট্রো ৩৯৯ রানের স্কোর গড়ে। তবে দ্বিতীয় দিন এই ম্যাচে আরেকটি শতকের দেখা মিলেছে। এবার শতক করেছেন ইমরুল কায়েস। এখনও ১১০ রান করে অপরাজিত আছেন ইমরুল। তার এ দুর্দান্ত ইনিংসে ৪ উইকেট হারিয়ে ২০৪ রান করেছে খুলনা। এখনও ঢাকা মেট্রো থেকে ১৯৫ রানে পিছিয়ে রয়েছে খুলনা।

বগুড়ায় রংপুর পাহাড়সম রান করে ফেলেছে। প্রথম ইনিংসেই তরিক আহমেদ (১০২), ধীমান ঘোষ (১০১*), নাঈম ইসলামের (১০০) শতকে ৪৬৩ রান করে অলআউট হয় রংপুর। ৯০ রান করে প্রথমদিনেই অপরাজিত ছিলেন নাঈম। দ্বিতীয় দিন শতক পূরণ করেই আউট হন। নাঈমের পর ধীমানও শতক করে দেখিয়েছেন। রংপুরের ইনিংস শেষ হওয়ার পর ঢাকা বিভাগ এখন তার জবাব দিচ্ছে। ২ উইকেট হারিয়ে ৭৮ রান করে ৩৮৫ রানে পিছিয়ে আছে। ঢাকা বিভাগ বড় স্কোর গড়তে পারলে ম্যাচটি ড্র’র পথেই এগিয়ে যাবে।

দ্বিতীয় স্তর ॥ রাজশাহীতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ৫ উইকেট করে নেয়া তৌহিদুল ইসলাম ও সালমান হোসেনের বোলিং তোপে প্রথম ইনিংসে ১১৯ রানেই গুটিয়ে যায় রাজশাহী। বরিশাল প্রথম ইনিংসে খেলতে নেমে দিনটি শেষ হওয়ার আগে ২ উইকেট হারিয়ে ১৫৩ রান যোগ করে ফেলে। রাজশাহী থেকে এগিয়ে যায়। দ্বিতীয় দিন শাহরিয়ার নাফিসের ৮০ ও আল আমিনের ৭১ রানে ৩১১ রান করে অলআউট হয় বরিশাল। ১৯২ রানে এগিয়ে যায়। দ্বিতীয় দিনই ব্যাট করতে নেমে ২ উইকেট নেয়া সোহাগ গাজীর বোলিং ঘূর্ণির সামনে পড়ে ১০৮ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে বসে রাজশাহী। শেষপর্যন্ত দিন শেষে ১২৬ রান করে। এখনও ৬৬ রানে পিছিয়ে আছে। আজ তৃতীয় দিনে দ্রুতই ৭ উইকেট তুলে নেয়া গেলে বরিশাল একদিন হাতে রেখেই জয় তুলে নিতে পারে।

চট্টগ্রামে চট্টগ্রাম যেমন ব্যাটিং দেখিয়েছে, তেমনি সিলেটও এগিয়ে চলছে। তাসামুল হকের ৭৪, ইয়াসির আলীর ৫৫ রানে চট্টগ্রাম প্রথম ইনিংসে ২৭০ রান করেছে। সিলেট প্রথম ইনিংসে ব্যাটসম্যানদের ঐক্যবদ্ধ নৈপুণ্যে দ্বিতীয় দিন শেষ হওয়ার আগে ৯ উইকেটে ২৬২ রান করেছে। দুই দলের মধ্যকারই প্রথম ইনিংসে তুমুল লড়াই হচ্ছে। সিলেট পিছিয়ে আছে এখন ৮ রানে। এ পর্বে খেলছেন না চট্টগ্রামের তামিম ইকবাল।

স্কোর ॥ পঞ্চম রাউন্ড-দ্বিতীয় দিন শেষে

ঢাকা মেট্রো প্রথম ইনিংস ৩৯৯/১০; ১১৫.১ ওভার (শামসুর ১৪৪, মাহমুদুল্লাহ ১৩২, শরিফুল্লাহ ৩৯; মেহেদী মিরাজ ৫/৯৬)। খুলনা প্রথম ইনিংস ২০৪/৪; ৬৬ ওভার (ইমরুল ১১০*, মেহেদী ২৮)।

রংপুর প্রথম ইনিংস ৪৬৩/১০; ১৫২ ওভার (তরিক ১০২, ধীমান ১০১, নাঈম ১০০; দেওয়ান ৪/৯৬)। ঢাকা প্রথম ইনিংস ৭৮/২; ২৮ ওভার (সাইফ ৪৪, মোশাররফ ২৬*)।

রাজশাহী প্রথম ইনিংস ১১৯/১০; ৪২.৫ ওভার (সানজামুল ৪০, নিহাদুজ্জামান ৩৪*; তৌহিদুল ৫/৩০, সালমান ৫/৩১ ও দ্বিতীয় ইনিংস ১২৬/৩; ৪২ ওভার (জুনায়েদ ৫৮*, নাজমুল ২৯, মিজানুর ২২; সোহাগ ২/৪৩)। বরিশাল প্রথম ইনিংস ৩১১/১০; ৮৬.২ ওভার (শাহরিয়ার ৮০, আল আমিন ৭১, ফজলে মাহমুদ ৫১, সালমান ৪৫; সানজামুল ৪/৮৭, শাফাক ৪/৯৫)।

চট্টগ্রাম প্রথম ইনিংস ২৭০/১০; ৮৭.২ ওভার (তাসামুল ৭৪, ইয়াসির ৫৫, ডলার ৩৯; আবুল ৪/৩৪, এনামুল জুনিয়র ৩/৭৫)। সিলেট প্রথম ইনিংস ২৬২/৯; ৮৯ ওভার (কাপালী ৪৬, জাকির ৩০, রাহাতুল ২৭; নাবিল ৩/৭৪)।