মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৯ আশ্বিন ১৪২৪, রবিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

টক মিষ্টি দুই স্বাদের একটিই ফল- ভিটামিন সির রাজা

প্রকাশিত : ২৬ অক্টোবর ২০১৫
টক মিষ্টি দুই স্বাদের একটিই ফল- ভিটামিন সির রাজা
  • মৌসুম শুরু আমলকীর

মোরসালিন মিজান

প্রথম কামড়ে তেতো স্বাদ। চোখ বুজে আসে। তবে, একটু চিবানো গেলেই হলো। মিষ্টি! টক মিষ্টি দুই স্বাদের একটিই ফল আমলকী। রসালো ফলটি ভিটামিন সি’র বড় উৎস। ভেষজগুণের কারণেও এর বিশেষ কদর। না, সারাবছর আমলকীর দেখা মেলে না। এখন মৌসুম। গাছভর্তি আমলকী। এসেছে বাজারেও।

মৃদু শিরার গোল মাংসল ফলটিতে সব মিলিয়ে পাঁচটি বেশি স্বাদ পাওয়া যায়। এইটুকু ফলে অন্য যে কোন ফলের তুলনায় বেশি ভিটামিন সি থাকে। প্রতি ১শ’ গ্রাম আমলকীতে ভিটামিন সি’র পরিমাণ ৪৬৩ মিলিগ্রাম। চিকিৎসকদের মতে, একজন প্রাপ্তবয়স্ক ব্যক্তির প্রতিদিন ৩০ মিলিগ্রাম ভিটামিন সি দরকার হয়। মাত্র দুটো আমলকী মুখে পুরে দিলে সেটি পাওয়া যায়! বিভিন্ন গবেষণার ফল বলে, আমলকীতে কমলার চেয়ে ১৫ থেকে ২০ গুণ, আপেলের চেয়ে ১২০ গুণ, আমের চেয়ে ২৪ গুণ এবং কলার চেয়ে ৬০ গুণ বেশি ভিটামিন সি থাকে। এজন্য আমলকীকে ভিটামিন সি’র রাজা বলা হয়।

ভিটামিন সি ছাড়াও প্রয়োজনীয় অনেক উপাদান আছে আমলকীতে। পুষ্টি ও খাদ্যবিজ্ঞান ইনস্টিটিউটের গবেষণা থেকে জানা যায়, একটি আমলকীতে ভিটামিন সি ছাড়াও থাকে ১৬.২ গ্রাম শর্করা, ০.৭ গ্রাম খনিজ পদার্থ, ৩.৪ গ্রাম আঁশ, ৭০ কিলোক্যালরি খাদ্যশক্তি, ২২ মিলিগ্রাম ক্যালসিয়াম, ৩.১ মিলিগ্রাম লৌহ ও ০.০৩ মিলিগ্রাম ভিটামিন বি-১।

আমলকীর ভেষজগুণও অনেক। এটি মুখে দিলে খাওয়ার রুচি বাড়ে। হজমশক্তি বৃদ্ধি পায়। এজন্য আধাচূর্ণ শুষ্ক ৫ থেকে ৬ গ্রাম ফল ১ কাপ পানিতে ঘণ্টাখানেক ভিজিয়ে রাখা যেতে পারে। পরে কচলিয়ে প্রতিদিন ৩ থেকে ৪ বার পানিটুকু পান করা চাই। ভেষজ চিকিৎকদের মতে, তাতে হজম ক্ষমতা বৃদ্ধি পাবে। পাশাপাশি দূর হবে বমি সমস্যা। ভিটামিন সি’র অভাবজনিত রোগ সারাতেও কাজ করে আমলকী। পেটের পীড়া, সর্দি, কাশি ও রক্তশূন্যতা দেখা দিলেও এটি মহৌষধের কাজ করে। লিভার ও জন্ডিস রোগের পথ্য এটি।

জানা যায়, দেশীয় ওষুধ ও প্রসাধনী সামগ্রী তৈরিতে আমলকীর ব্যাপক ব্যবহার হচ্ছে। আমলকী বেঁটে একটু মাখন মিশিয়ে মাথায় দিলে ভাল ঘুম হয়। কাঁচা আমলকীর রস চুলে লাগানোর উপকার সম্পর্কে বরাবরই সচেতন শহুরে মেয়েরা। প্রতিদিন এ রস মাথায় দিয়ে দুই তিন ঘণ্টা রাখলে এবং একমাস মাখলে চুলের গোড়া শক্ত হয়। চুল পড়া এবং তাড়াতড়ি চুল পাকা বন্ধ হয়। আমলকীর চিরুনির মতো সাজানো পাতায়ও উপকার আছে। পাতার রস আমাশয় প্রতিষেধক। তবে আমলকীর জেলি ও মোরব্বার কথা না বললেই নয়। এ ফল দিয়ে তৈরি জেলি মোরব্বা অত্যন্ত সুস্বাদু হয়ে থাকে।

উদ্ভিদবিজ্ঞানী দ্বিজেন শর্মা জানান, বাংলাদেশ ছাড়াও পাকিস্তান, ভারত, শ্রীলঙ্কা, চীন, মিয়ানমারসহ আশপাশের দেশগুলোতে আমলকীর চাষ হয়। বীজ শাখা কলম ও জোড়কলম থেকে এর বংশবিস্তার করা যায়। এ গাছ ১০Ñ২০ ফুট পর্যন্ত উঁচু হয়ে থাকে। ফুল ধরে এপ্রিল-মে মাসের দিকে। ফুলের বর্ণনা দিয়ে তিনি বলেন, আমলকী ফুল এক লিঙ্গিক। স্ত্রী ও পুরুষ ফুল স্বতন্ত্র হলেও, একসঙ্গে একই শাখায় বাস। তবে ফুল খুব ছোট হওয়ায় তেমন চোখে পড়ে না। ফলই গাছের প্রধান বৈশিষ্ট্য। মৌসুমে প্রতিটি পূর্ণবয়স্ক গাছ থেকে ২শ’ কেজির মতো আমলকী পাওয়া যায়।

কৃষিবিদ মৃত্যুঞ্জয় রায় জানান, উত্তরাঞ্চলের বিভিন্ন এলাকায় বাণিজ্যিক ভিত্তিতে আমলকী চাষ হয়। সেখান থেকেই ঝুড়ি ভর্তি হয়ে ঢাকায় প্রবেশ করে। এছাড়া শহরে ছাদ বাগানে ফলটি হচ্ছে বলে জানান তিনি।

বেশ কিছুদিন ধরে রাজধানীর বিভিন্ন ফুটপাথ ও বাজারে বিক্রি হচ্ছে আমলকী। হাল্কা সবুজ বা হলুদাভ রঙের আমলকী রসে টলমল। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা আমলকীর আকার বিভিন্ন। অপেক্ষাকৃত ছোটগুলো প্রকৃত স্বাদের। পুষ্টিগুণেও এগিয়ে। খুব বড় দেখতে আমলকী অবশ্য সহজেই নজর কাড়ে।

তবে, শুধু চোখের দেখা নয়, মুখে পুরা চাই। মনে রাখা জরুরী, মাত্র দুটো আমলকী মুখে পুরে দিলে ৩০ মিলিগ্রাম ভিটামিন সি!

প্রকাশিত : ২৬ অক্টোবর ২০১৫

২৬/১০/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

শেষের পাতা



শীর্ষ সংবাদ: