১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৪ আশ্বিন ১৪২৬, বৃহস্পতিবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 
সর্বশেষ

বনশ্রীতে আটকে রাখা ১০ শিশুকে উদ্ধার গ্রেফতার ৪

প্রকাশিত : ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৫

স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজধানীর রামপুরার বনশ্রীর একটি আবাসিক ভবন থেকে ১০ শিশু উদ্ধার করা হয়েছে। এ সময় পুলিশ পাচারকারী সন্দেহে চারজনকে গ্রেফতার করেছে। গ্রেফতারকৃতরা হচ্ছে আরিফুর রহমান, হাসিবুল ইসলাম সবুজ, জাকিয়া সুলতানা ও ফিরোজ আলম ওরফে শুভ।

ঢাকা মহানগর পুলিশের গণমাধ্যম ও জনসংযোগ বিভাগের উপ-কমিশনার মুনতাসিরুল ইসলাম জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শনিবার দুপুরে থানা পুলিশ রামপুরা সি-ব্লকের ১০ নম্বর সড়কের ৭ নম্বর ভবনের ৬ তলায় ‘অদম্য বাংলাদেশ ফাউন্ডেশন’ নামক একটি এনজিও প্রতিষ্ঠানে অভিযান চালায়। এ সময় সেখান থেকে ১০ শিশুকে উদ্ধার করা হয়। এদের বয়স ১০ থেকে ১৩ বছরের মধ্যে। পরে সেখান থেকে ৪ ব্যক্তিকে আটক করে থানায় এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তিনি জানান, যে চারজনকে আটক করা হয়েছে।

তারা নিজেদের ‘অদম্য বাংলাদেশ’ নামে একটি বেসরকারী প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা বলে পরিচয় দিয়েছে। ডিসি মুনতাসিরুল ইসলাম বলেন, গ্রেফতারকৃতরা দাবি করছে, মুক্তিপণ আদায়ের উদ্দেশ্যে শিশুদের ওই বাসায় রাখা হয়নি। তারা পথ ও হারিয়ে যাওয়া শিশুদের নিয়ে কাজ করে। তাদের একটি এনজিও রয়েছে। এ কারণে তাদের ওই বাসায় রাখা হয়েছিল। জিজ্ঞাসাবাদে মনে হয়নি তারা শিশুদের নিয়ে কাজ করছে। তারা এ সংক্রান্ত কোন কাগজপত্রও দেখাতে পারেননি। মুনতাসিরুল ইসলাম আরও বলেন, আটকদের আরও জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। পাশাপাশি উদ্ধার শিশুদের পরিচয় জানার চেষ্টা চলছে। তিনি জানান, এই শিশুদের অপহরণ করা হয়েছিল। নাকি পুনর্বাসনের জন্য আনা হয়েছে। সেটা পুলিশ তদন্ত করে দেখবে। পাশাপাশি সংস্থাটির ব্যাপারে খোঁজ খবর নেয়া হচ্ছে।

রামপুরা থানার পুলিশ পরিদর্শক (ওসি তদন্ত) আসাদুজ্জামান স্থানীয়দের বরাত দিয়ে জানান, উদ্ধার হওয়া ১০ শিশুর মধ্যে একজন দুপুর ১২টার দিকে ওই বাসা থেকে বের হয়ে চিৎকার করে বলে ‘আমাদের এখানে আটকে রেখেছে। আপনারা বাঁচান’।

পরে এলাকাবাসী থানায় সংবাদ দেয়। পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে অভিযান চাণিয়ে ওই চারজনকে আটক করে। সেখান থেকে ১০ শিশুকে উদ্ধার করা হয়। রামপুরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান জানান, উদ্ধারকৃত শিশুদের বিস্তারিত পরিচয় জানার চেষ্টা করা হচ্ছে। আর আটককৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

প্রকাশিত : ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৫

১৩/০৯/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

অন্য খবর



শীর্ষ সংবাদ: