২০ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৪ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

এ সরকারের আমলে ৫ কর্মকর্তা, বিএনপির সময়ে ৪২


সংসদ রিপোর্টার ॥ বিগত বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের সময়ে ৪২ জন সরকারী কর্মকর্তাকে বাধ্যতামূলক অবসরে পাঠানো হয়েছে। বর্তমান সরকারের সময়ে এ পর্যন্ত ৫ জন কর্মকর্তাকে বাধ্যতামূলক অবসরে পাঠানো হয়েছে। মঙ্গলবার জাতীয় সংসদের প্রশ্নোত্তর পর্বে সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য নূরজাহান বেগমের প্রশ্নের জবাবে সংসদকে এ তথ্য জানান জনপ্রশাসনমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম।

সরকারী দলের সংসদ সদস্য মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরীর প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান, জনস্বার্থে সরকারী চাকরিতে চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ অব্যাহত রাখার প্রয়োজনীয়তা এখনও রয়েছে। এ কারণে চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ প্রথা বাতিলের কোন পরিকল্পনা আপাতত সরকারের নেই। এ প্রসঙ্গে তিনি আরও জানান, বিশেষায়িত পদে এবং যে সকল সংস্থায় কারিগরি জ্ঞানসম্পন্ন জনবল সঙ্কট রয়েছে, সে সকল সংস্থায় উপযুক্ত অবসরপ্রাপ্ত সামরিক, বেসামরিক কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং বেসরকারী ব্যক্তিদের মধ্য থেকে বিশেষ যোগ্যতাসম্পন্ন ব্যক্তিদের মধ্য থেকে বিশেষ যোগ্যতাসম্পন্ন ব্যক্তিদের সরকার জনস্বার্থে নিয়োগ দিয়ে থাকে।

সৈয়দ আশরাফ জানান, প্রশাসনিক ও মামলা সংক্রান্ত জটিলতার কারণে যে সকল দফতর বা সংস্থায় দ্রুত জনবল নিয়োগ করা সম্ভব হয় না, সে সকল দফতর বা সংস্থায়ও অবসরপ্রাপ্ত সরকারী কর্মকর্তা কর্মচারীদের চুক্তিভিত্তিক নিয়োগের মাধ্যমে জনবল সঙ্কট নিরসন করে সরকারী কাজের ধারাবাহিকতা রক্ষা করা হয়ে থাকে।

মওদুদের বাড়ি দখল মামলা কার্যতালিকায় ॥ সরকারী দলের বেগম ফজিলাতুন নেসা বাপ্পির প্রশ্নের জবাবে আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়কমন্ত্রী আনিসুল হক জানান, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহম্মেদের বিরুদ্ধে অবৈধভাবে ঢাকার গুলশানে সরকারী বাড়ি দখল ও আত্মসাতের অভিযোগ দায়েরকৃত মামলাটির বিষয়ে আপীল বিভাগ কর্তৃক লীভ টু আপীল মঞ্জুর করেছে। সরকার কর্তৃক দুটি এবং রাজউক কর্তৃক একটিসহ মোট ৩টি সিভিল আপীল মামলাসমূহ ৮ সেপ্টেম্বর আপীল বিভাগের কার্যতালিকায় আসবে।

সংসদ সদস্য শওকত চৌধুরীর প্রশ্নের জবাবে আইনমন্ত্রী জানান, আর্মি এ্যাক্টের অধীনে বিচারের শাস্তির বিরুদ্ধে সিভিল আদালতে আপীল করা যায় না, সামরিক আদালতেই আপীল করতে হয়। এই আইন পরিবর্তন করে সিভিল আদালতে আপীল করার সুযোগ সৃষ্টির কোন পরিকল্পনা সরকারের নেই। এই উদ্দেশ্যে অবসরপ্রাপ্ত সামরিক কর্মকর্তাদের বিচারক নিয়োগ করে পৃথক কোন ট্রাইব্যুনাল গঠনেরও পরিকল্পনা সরকারের নেই।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: